চীনা টিকা তৈরির অনুমতি এখনও কাউকে দেওয়া হয়নি: ঔষধ অধিদপ্তর

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-05-16 21:03:55 BdST

bdnews24
সিনোফার্মের টিকা

বাংলাদেশের একটি ওষুধ কোম্পানিকে সিনোফার্মের কোভিড-১৯ টিকা তৈরির অনুমতি দেওয়ার যে খবর ছড়িয়েছে, তা নাকচ করেছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

এখনও কাউকে এই ধরনের অনুমতি দেওয়া হয়নি বলে রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে এই কর্তৃপক্ষ। এনিয়ে বিভ্রান্তি না ছড়ানোর অনুরোধও করা হয়েছে।

টিকার সঙ্কটে পড়া বাংলাদেশ চীনা প্রতিষ্ঠান সিনোফার্মের টিকা কিনে প্রয়োগের পাশাপাশি ওই টিকা বাংলাদেশে তৈরির পথও খুলেছে।

তবে বাংলাদেশি কোনো কোম্পানির নিজেদের কারখানায় করোনাভাইরাসের ওই টিকা তৈরি করতে হলে সরকারের অনুমোদন লাগবে।

সেই অনুমোদনের কোনো খবর সরকারিভাবে জানানো না হলেও একটি কোম্পানি অনুমতি পেয়েছে বলে রোববার খবর ছড়ায়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “বিভিন্ন ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে এই মর্মে সংবাদ প্রকাশিত হচ্ছে যে চীনের সিনোফার্ম কর্তৃক উৎপাদিত ভ্যাকসিন ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের কারখানায় উৎপাদনের নিমিত্তে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর কর্তৃক অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে, যা সঠিক নয়।

“দেশে কোভিড-১৯ এর টিকা উৎপাদনের অনুমতি এখন পর্যন্ত কোনো ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানকে দেওয়া হয়নি।”

“এই ধরনের বিভ্রান্তিমূলক সংবাদ প্রকাশ করে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি না করার জন্য সকল প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়াকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হচ্ছে,” বলা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

সিনোফার্মের টিকা: জানার আছে যা যা

সিনোফার্মের টিকা: জানার আছে যা যা

কোভিড-১৯: চীন-রাশিয়ার টিকা বাংলাদেশেও তৈরির পথ খুলল  

গত ২৯ এপ্রিল চীনের সিনোফার্মের তৈরি টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয় ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

সেদিন সংবাদ সম্মেলনে মেজর জেনারেল মাহবুবুর  বলেছিলেন, সিনোফার্মের টিকা দেশেই তৈরি করা হবে। দেশের তিনটি ঔষধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের টিকা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে।

ওই তিনটির মধ্যে একটি হল ইনসেপটা ফার্মাসিউটিক্যালস।

চীনের পাশাপাশি রাশিয়ার টিকাও দেশে তৈরির পথ খুলে রেখে বাংলাদেশ। তা নিয়ে আলোচনা ও কথা চালাচালি চললেও চূড়ান্ত কোনো খবর এখনও আসেনি।

চীনের উপহারের ৫ লাখ ডোজ টিকা দেশে এল

চীন থেকে কেনা টিকা পেতে অপেক্ষায় থাকতে বললেন রাষ্ট্রদূত