পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

গত বছরের মার্চের চতুর্মুখী যাতায়াতই দেশে ছড়িয়েছিল করোনাভাইরাস: গবেষণা

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-15 00:12:23 BdST

bdnews24
গত বছরের মার্চে সাধারণ ছুটির দুদিন আগে কমলাপুর রেল স্টেশনে ছিল এমন ভিড়। ফাইল ছবি

বাংলাদেশে গত বছরের মার্চে মহামারীর প্রাদুর্ভাবের আনুষ্ঠানিক ঘোষণার পর ঢাকা থেকে চতুর্দিকে যে যাতায়াত হয়েছিল, তাতেই করোনাভাইরাস সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ে বলে এক গবেষণায় উঠে এসেছে।

সরকারি প্রতিষ্ঠান আইইডিসিআরের পাশাপাশি আইসিডিডিআর,বিসহ বেশ কয়েকটি সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সমন্বিতভাবে গবেষণা চালিয়ে এই চিত্র দেখতে পেয়েছে।

মঙ্গলবার আইসিডিডিআর,বি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই গবেষণার বিষয়ে আরও বলা হয়, গত বছরের ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছিল।

তবে এনিয়ে বিস্তারিত তেমন কিছু সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়নি।

এতে বলা হয়, “২০২০ সালের মার্চ থেকে জুলাই পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সংগৃহীত করোনাভাইরাসের ৩৯১টি নমুনার জিনোম বিশ্লেষণ করা হয়। ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে দেশে করোনাভাইরাসের প্রথম উদ্ভব হয়।”

রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট আইইডিসিআর গত বছরের ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম কোভিড-১৯ রোগী পাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছিল। তার ১০ দিন পর আসে প্রথম মৃত্যুর ঘোষণা।

দেড় বছর গড়িয়ে মঙ্গলবার পর্যন্ত দেশে শনাক্ত হয়েছে ১৫ লাখ ৩৪ হাজার ৪৪০ জন কোভিড রোগী। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছে ২৭ হাজার ৭ জন।

প্রাদুর্ভাবের পর গত বছরের ২৬ মার্চ থেকে ১০ দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছিল সরকার। তখন অফিস, আদালত, যান চলাচল সবই বন্ধ করা হয়েছিল।

সরকারি ঘোষণা আসার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের ঢাকা ছাড়ার হিড়িক নেমেছিল। আর সেই ছুটি বাড়তে বাড়তে জুন অবধি গিয়ে ঠেকেছিল।

আইসিডিডিআর,বি বলছে, সরকারের এটুআই প্রোগ্রাম থেকে সংগৃহীত ফেইসবুক এবং মোবাইল ফোন অপারেটরদের তথ্য অনুযায়ী মার্চের ২৩ থেকে ২৬ তারিখের মধ্যে মানুষের ঢাকা ত্যাগ করার তথ্যের সঙ্গে কোভিড-১৯ এর জিনগত বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণ করেছেন বিজ্ঞানীরা।

“মার্চের ২৩ থেকে ২৬ তারিখের মধ্যে ঢাকা বহির্মুখী যাতায়াতই মূলত দেশব্যাপী করোনাভাইরাস বিস্তারের প্রাথমিক কারণ হিসেবে বলছেন তারা।”

গত বছরের মার্চে সাধারণ ছুটির দুদিন আগে গাবতলী বাস টার্মিনালের চিত্র। ফাইল ছবি

গত বছরের মার্চে সাধারণ ছুটির দুদিন আগে গাবতলী বাস টার্মিনালের চিত্র। ফাইল ছবি

আইইডিসিআর, আইসিডিডিআরবি, আইদেশি, বাংলাদেশ সরকারের এটুআই প্রোগ্রাম, যুক্তরাজ্যভিত্তিক স্যাঙ্গার জিনোমিক ইনস্টিটিউট, হার্ভার্ড স্কুল অব পাবলিক হেলথ, এবং ইউনিভার্সিটি অব বাথ-এর বিজ্ঞানীদের যৌথ উদ্যোগে ২০২০ সালের মার্চ মাসে কোভিড-১৯ নিয়ে দেশব্যাপী বিস্তৃত গবেষণা শুরু করে।

একইসঙ্গে করোনাভাইরাসের বিস্তার প্রতিরোধে বিভিন্ন সময়ে লকডাউন এবং জনসাধারণের গতিবিধির ভূমিকার উপর ভিত্তি করে একটি বিশ্লেষণধর্মী গবেষণাপত্র প্রকাশ করা হয়।

গত ৪ সেপ্টেম্বর গবেষণাপত্রটি বিজ্ঞান সাময়িকী নেচার-এ প্রকাশ হয়েছে বলে জানিয়েছে আইসিডিডিআরবি।

ওই গবেষণাপত্রেই বাংলাদেশে করোনাভাইরাস প্রথম ছড়িয়ে পড়ার কারণ উল্লেখ করেছেন গবেষকরা।

আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক তাহমিনা শিরীন বলেন, এই কনসোর্টিয়াম বিভিন্ন সময় অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়ে নীতিনির্ধারকদের সহায়তা করে থাকে।

“এর মধ্যে রয়েছে সীমান্তবর্তী এলাকায় জনসাধারণের চলাচল নিষিদ্ধ করা, পরিবহন এবং যানবাহন চলাচলে সীমাবদ্ধতা আনা, বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন এবং যেসব দেশে উদ্বেগজনক ভ্যারিয়েন্ট ছিল সেখান থেকে আগত ভ্রমণকারীদের সাধারণ মানুষের কাছ থেকে আলাদা রাখা এবং সময়মতো লকডাউন সিদ্ধান্ত বা প্রয়োজনবোধে আন্তর্জাতিক চলাচল সীমাবদ্ধ করা।”