২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

আসিফের হ্যাটট্রিক, নাঈমের সেঞ্চুরির পরও রূপগঞ্জের হার

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2018-02-07 19:30:49 BdST

চলতি আসরে প্রথম হ্যাটট্রিক করলেন লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের আসিফ হাসান। প্রথম সেঞ্চুরি পেলেন তার সতীর্থ নাঈম ইসলাম। তবে দিন শেষে তাদের মাঠ ছাড়তে হল হতাশা নিয়ে। নুরুল হাসানের দারুণ ব্যাটিং আর আবু জায়েদের চমৎকার বোলিংয়ে রোমাঞ্চকর উত্তেজনার ম্যাচে জয় পেয়েছে শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব।  

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে ৩ রানে জিতেছে শেখ জামাল। তাদের ২৩০ রান তাড়ায় রূপগঞ্জ করে ২২৭ রান। 

বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে বুধবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে হাসানুজ্জামানের (৩৭ বলে ৪৯) ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় শেখ জামাল। নবম ওভারের পঞ্চম বলে পিনাক ঘোষকে ফিরিয়ে ৬৬ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন আসিফ। বাঁহাতি স্পিনার পরের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন সৈকত আলীকে।

পরের ওভারে ফিরে প্রথম বলে ঝড় তোলা হাসানকে থামান আসিফ। চলতি আসরের প্রথম হ্যাটট্রিক। মোশাররফ হোসেন শূন্য রানে ফেরান রাকিন আহমেদকে।

বিনা উইকেটে ৬৬ থেকে শেখ জামালের স্কোর হয় ৪ উইকেটে ৬৭। সেখান থেকে দলকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন নুরুল। পঞ্চম উইকেটে ইলিয়াস সানির সঙ্গে ৫১ ও অষ্টম উইকেটে আল ইমরানের সঙ্গে ৭৫ রানের দুটি ভালো জুটি উহার দেন এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান।

শেষ ওভারে ফেরার আগে ১০৭ বলে ৮টি চার ও একটি ছক্কায় ৯০ রান করেন নুরুল।

২৯ রানে ৩ উইকেট নিয়ে আসিফ রূপগঞ্জের সেরা বোলার। দুটি করে উইকেট নেন মোশাররফ, নাঈম ও মোহাম্মদ শরীফ।

রান তাড়ায় রূপগঞ্জের শুরুটা ছিল বিবর্ণ। ২৯ রানের মধ্যে ফিরে যান টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান। ৫৬ রানের মধ্যে হারায় ৫ ব্যাটসম্যানকে। সেখান থেকে দলকে লড়াইয়ে ফেরানোর কৃতিত্ব নাঈমের।

ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৫১ রান করা নাজমুল মিলনের ফিরেন তার সঙ্গে ৮৯ রানের জুটি গড়ে। এরপর প্রায় একাই খেলতে হয় নাঈমকে। অন্য দিক থেকে খুব একটা সহায়তা মেলেনি।

দারুণ চেষ্টা করেও পারেননি নাঈম। ১১৬ বলে ৮টি চার ও ৪টি ছক্কায় অপরাজিত ১১৬ রানের ইনিংস খেলে মাঠ ছাড়েন দলকে জেতাতে না পারার হতাশা নিয়ে।

৪২ রানে ৪ উইকেট নিয়ে শেখ জামালের সেরা বোলার পেসার আবু জায়েদ। অফ স্পিনার সোহাগ গাজী ২ উইকেট নেন ৪২ রানে। দারুণ ব্যাটিংয়ের জন্য ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন নুরুল।

 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব: ৫০ ওভারে ২৩০/৯ (পিনাক ১৭, হাসান ৪৯, সৈকত ০, রাকিন ০, সানি ২৩, হাসান ৯০, জিয়া ৯, সোহাগ ০, আল ইমরান ২৮, নাজমুল ৮*, জায়েদ ২*; শহীদ ০/৫২, শরীফ ২/৫৩, মোশাররফ ২/৪১, আসিফ ৩/২৯, নাঈম ২/৪৭, অভিষেক ০/৫)

লেজেন্ডস অব রূপাগঞ্জ: ৫০ ওভারে ২২৭/৮ (সামি ৬, মজিদ ৫, অভিষেক ৮, নাঈম ১১৬*, তুষার ৯, হামিদুল ০, মিলন ৫১, শরীফ ৯, মোশাররফ ১৬, শহীদ ০*; জায়েদ ৪/৪২, সোহাগ ২/৪২, নাজমুল ১/৪১, সানি ১/৪০, আল ইমরান ০/১৭, জিয়া ০/৪৪)

ফল: শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব ৩ রানে জয়ী

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: নুরুল হাসান


ট্যাগ:  বাংলাদেশ  নাঈম  জায়েদ  ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ  আসিফ  নুরুল