২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৫

কঠিন সমীকরণ মিলিয়ে রাজ্জাক-নুরুলদের উচ্ছ্বাস

  • অনীক মিশকাত, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2018-04-26 19:47:03 BdST

bdnews24

দুই রাউন্ড বাকি থাকতে পয়েন্ট টেবিলে ছিল তারা তিনে। শেষ রাউন্ডের আগে দুইয়ে উঠলেও শীর্ষে থাকা উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান ছিল ১৩। শেষ রাউন্ডে তাই শুধু জিতলেই যথেষ্ট হতো না, প্রয়োজন ছিল বোনাস পয়েন্টের। সেই চ্যালেঞ্জই দারুণ দাপটে জিতে নিয়েছে দক্ষিণাঞ্চল। শীর্ষে থাকা উত্তরাঞ্চলকে ইনিংস ব্যবধানে হারিয়ে জিতেছে শিরোপা। অধিনায়ক নুরুল হাসান ও অভিজ্ঞ স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের কণ্ঠে ফুটে উঠল তাই কঠিন চ্যালেঞ্জ জয়ের তৃপ্তি।

উত্তরাঞ্চলের জন্য সমীকরণ ছিল সহজ। শেষ রাউন্ডে হার এড়ালেই চ্যাম্পিয়ন। কিন্তু আগের বারের চ্যাম্পিয়নদের দুই দিন আর এক সেশনেই ইনিংস ও ৬৩ রানে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে দক্ষিণাঞ্চল। জিতেছে রেকর্ড তৃতীয় শিরোপা।

বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিন সকালে ৬ উইকেট নিয়ে উত্তরাঞ্চলকে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন রাজ্জাক। ম্যাচে ১১ উইকেট নিয়ে তিনিই জয়ের মূল কারিগর। ঘরোয়া ক্রিকেটের অনেক লড়াইয়ের অভিজ্ঞ যোদ্ধাকে এবার বেশি আনন্দ দিচ্ছে শিরোপা জয়ের ধরন।

“অবশ্যই ভালো লাগছে। সবচেয়ে বড় ব্যাপার, আমাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ ছিল ক্ষীণ। একদম সব কিছু যদি মিলে যায়, আমরা সব পয়েন্ট নেব, ওরা বেশি পয়েন্ট পাবে না, এমন হলেই কেবল আমরা চ্যাম্পিয়ন হব। এ রকম কঠিন ব্যাপার ছিল।”

৪৭ পয়েন্ট নিয়ে শেষ রাউন্ড শুরু করেছিল দক্ষিণাঞ্চল। ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে শিরোপা জিতেছে তারা। ৬০ পয়েন্ট নিয়ে শেষ রাউন্ড শুরু করা উত্তরাঞ্চল যোগ করতে পেরেছে কেবল ২ পয়েন্ট।

রাজ্জাকের প্রশংসা পেয়েছেন সব সতীর্থ। তবে আলাদা করে বলেছেন অধিনায়ক নুরুল হাসানের কথা।

“সোহান (নুরুল) খুব ভালো করেছে। তার থেকে বড় ব্যাপার যে, আমাদের দলের সবাই খুব ভালো টিমমেট। আমি যখন অধিনায়কত্ব করেছি, আমার কোনো সমস্যা হয়নি। আমি নিশ্চিত, সোহানেরও কোনো সমস্যা হয়নি। কেউ কোনো সমস্যা দেখলে সহায়তা করেছে, কথা বলেছে। আর অবশ্যই ওর মধ্যে নেতৃত্ব দেওয়ার সেই যোগ্যতা আছে। তা না হলে তো আর চ্যাম্পিয়নশিপ অর্জন করা যেত না।”

ঘরোয়া ক্রিকেটে এই প্রথমবার বড় দুটি দলকে টানা নেতৃত্ব দিয়েছেন নুরুল। শুরুতেই এমন সাফল্য, তরুণ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের ভালোলাগা তাই যেন একটু বেশি।

“অন্য রকম লাগছে। প্রিমিয়ার লিগে এবার শেখ জামালের অধিনায়কত্ব করে রানার্সআপ হয়েছি। এক মৌসুমে এরকম দুইটা সাফল্য খুব ভালো লাগছে। সিনিয়ররা ছিলেন, তারা অনেক সহায়তা করেছেন। খুব উপভোগ করেছি।”

“শেষ রাউন্ডে আমাদের হারানোর কোনো কিছু ছিল না। তবে পাওয়ার অনেক কিছু ছিল। মিটিংয়েও ওটা নিয়েই কথা হয়েছে। আমরা চেয়েছি চাপহীন খেলতে। সেটিই কাজে দিয়েছে।”


ট্যাগ:  বাংলাদেশ  রাজ্জাক  বিসিএল  নুরুল