লর্ডসে ভারতকে ইনিংস ব্যবধানে হারাল ইংল্যান্ড

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2018-08-12 23:23:49 BdST

ইংল্যান্ডের ইনিংসের এক পর্যায়ে তেমন একটা সুইং পাচ্ছিলেন না ভারতের পেসাররা। মনে হচ্ছিল ব্যাটিংয়ের জন্য ভালোর দিকে লর্ডসের উইকেট। তবে ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু হতেই দেখা মিলল সুইংয়ের। তাতে উড়ে গেল অতিথিদের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন আপ। অনায়াসে জিতল ইংলিশরা।

দ্বিতীয় টেস্ট ইনিংস ও ১৫৯ রানে জিতেছে জো রুটের দল। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে স্বাগতিকরা এগিয়ে ২-০ ব্যবধানে।

প্রথম ইনিংসে ১০৭ রানে গুটিয়ে যাওয়া ভারত দ্বিতীয় ইনিংসে করেন ১৩০ রান। চার দিনে শেষ হয়ে যাওয়া ম্যাচের প্রথম দিন মাঠে গড়ায়নি কোনো বল। পরের তিন দিনও বারবার বিঘ্ন ঘটে বৃষ্টির বাধায়। 

ইংল্যান্ডকে আরেকবার ব্যাটিং করাতে দ্বিতীয় ইনিংসে ২৮৯ রান করতে হতো ভারতকে। তবে ব্যাটিং ব্যর্থতায় তার ধারে কাছে যেতে পারেনি বিরাট কোহলির দল।

আগের ইনিংসের মতো এবারও অতিথিদের দিক হারানোর শুরু মুরালি বিজয়ের উইকেট দিয়ে। টেস্টে দ্বিতীয়বারের মতো শূন্য রানে ফিরেন ভারতীয় ওপেনার। তার পর লোকেশ রাহুলকেও বিদায় করেন জেমস অ্যান্ডারসন।

বিজয়কে ফিরিয়ে প্রথম বোলার হিসেবে লর্ডসে টেস্টে একশ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েন অ্যান্ডারসন।

সিরিজে আগের তিন ইনিংসে নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে না পারা স্টুয়ার্ট ব্রড দারুণ বোলিংয়ে কাঁপিয়ে দেন ভারতের মিডল অর্ডার। চেতেশ্বর পুজারা, অজিঙ্কা রাহানের প্রতিরোধ ভাঙার পর তুলে নেন আরও দামি উইকেট। ফিরিয়ে দেন থিতু হয়ে যাওয়া কোহলিকে। পরের বলে ব্রড গোল্ডেন ডাকের স্বাদ দেন দিনেশ কার্তিককে।

৬১ রানে ৬ উইকেট হারানো ভারত এর পর পায় নিজেদের সেরা জুটি। সপ্তম উইকেটে ৫৫ রান যোগ করেন হার্দিক পান্ডিয়া ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করা ক্রিস ওকস তুলে নেন পান্ডিয়া ও ইশান্ত শর্মার উইকেট। মাঝে শূন্য রানে কুলদীপ যাদব ও মোহাম্মদ শামিকে বিদায় করেন অ্যান্ডারসন।

৩৩ রানে অপরাজিত থাকেন অশ্বিন। প্রথম ইনিংসের মতো এবারও তিনি ভারতের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।

২৩ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের সেরা বোলার অ্যান্ডারসন। ব্রড ৪ উইকেট নেন ৪৪ রানে। সেঞ্চুরি আর দুই ইনিংস মিলিয়ে ৪ উইকেট ওকসকে এনে দেয় ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

এর আগে ৬ উইকেটে ৩৫৭ রান নিয়ে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করে ইংল্যান্ড। রোববার স্বাগতিকরা খেলে মাত্র ৭.১ ওভার। স্যাম কারান আউট হতেই ৭ উইকেটে ৩৯৬ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেন জো রুট।

ওকসের সঙ্গে আগের দিনের ৩৭ রানের জুটিকে ৭৬ পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার পর বিচ্ছিন্ন হন কারান। দ্রুত রান তোলার চেষ্টায় থাকা অলআরাউন্ড ফিরেন হার্দিক পান্ডিয়ার বলে মোহাম্মদ শামির হাতে ধরা পড়ে। ৪৯ বলে পাঁচ চার ও এক ছক্কায় কারান ফিরেন ৪০ রান করে।

১২০ রান নিয়ে দিন শুরু করা ওকস অপরাজিত থাকেন ১৩৭ রানে। তার ১৭৭ বলের ইনিংসটি গড়া ২১ চারে।

আগামী শনিবার ট্রেন্ট ব্রিজে শুরু হবে তৃতীয় টেস্ট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত ১ম ইনিংস: ১০৭

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: (তৃতীয় দিন শেষে ৩৫৭/৬) ৮৮.১ ওভারে ৩৯৬/৭ ডিক্লে. (কুক ২১, জেনিংস ১১, রুট ১৯, পোপ ২৮, বেয়ারস্টো ৯৩, বাটলার ২৪, ওকস ১৩৭*, কারান ৪০; ইশান্ত ১/১০১, শামি ৯৬/৩, কুলদীপ ০/৪৪, পান্ডিয়া ৩/৬৬, অশ্বিন ০/৬৮)

ভারত ২য় ইনিংস: ৪৭ ওভারে ১৩০ (বিজয় ০, রাহুল ১০, পুজারা ১৭, রাহানে ১৩, কোহলি ১৭, পান্ডিয়া ২৬, কার্তিক ০, অশ্বিন ৩৩*, কুলদীপ ০, শামি ০, ইশান্ত ২; অ্যান্ডারসন ৪/২৩, ব্রড ৪/৪৪, ওকস ২/২৪, কারান ০/২৭)

ফল: ইংল্যান্ড ইনিংস ও ১৫৯ রানে জয়ী

সিরিজ: পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ইংল্যান্ড ২-০তে এগিয়ে

ম্যান অব দা ম্যাচ: ক্রিস ওকস


ট্যাগ:  ব্রড  ইংল্যান্ড  ম্যাচ রিপোর্ট  ভারত  অ্যান্ডারসন  টেস্ট  ওকস