বাংলাদেশের স্পিনে বড় চ্যালেঞ্জ দেখছেন টেইলর

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2018-10-28 22:08:52 BdST

bdnews24

প্রস্তুতি ম্যাচের উইকেট, ম্যাচের প্রতিপক্ষ বিসিবি একাদশ আর দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের বাংলাদেশ দল দেখে ব্রেন্ডন টেইলরের বুঝতে বাকি নেই, টেস্ট সিরিজে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হবে স্পিন। সেই পরীক্ষার জন্য অতিথিরা পুরোপুরি প্রস্তুত বলে জানালেন এই কিপার ব্যাটসম্যান।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দেশের মাটিতে জিততে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অস্ত্র স্পিন। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে সেই পরীক্ষিত অস্ত্রের ওপর খুব একটা নির্ভর করেনি স্বাগতিকরা। তবে টেস্ট সিরিজে তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজদের স্পিনের ওপরই বেশি নির্ভর করতে পারে বাংলাদেশ।

আগামী সোমবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ। জিম্বাবুয়েকে স্পিন অনুশীলনের সুযোগ না দিতে প্রতিপক্ষ বিসিবি একাদশে রাখা হয়নি কোনো বিশেষজ্ঞ স্পিনার। রোববার পর্যন্ত উইকেট সবুজ ঘাসে ঢাকা যা পেস সহায়ক। প্রস্তুতি ম্যাচের উইকেট দেখে অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের টেইলর জানান, তার বিশ্বাস টেস্টে হবে স্পিন সহায়ক উইকেটে। 

“বাংলাদেশের যে জিনিসটা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হবে আমাদের জন্য সেটি হলো স্পিন। ওদের স্পিনারদের যেন আমরা ঠিকমতো খেলতে পারি সেটা নিশ্চিত করতে হবে। বাংলাদেশের কয়েকজন দারুণ স্পিনার আছে আর এই কন্ডিশনও তো স্পিনের জন্য ভালো। তবে আমার বিশ্বাস আমাদের ব্যাটসম্যানরা এই চ্যালেঞ্জ নেওয়ার জন্য টেকনিক্যালি ও মানসিকভাবে প্রস্তুত।”

“আমাদের বোলারদেরও বাংলাদেশের ২০ উইকেট নিতে হবে। বাংলাদেশ এই কন্ডিশনে নিজেদের সামর্থ্য প্রমাণ করেছে আগেই, বেশ সফল ওরা। তবে আশা করি, আমাদের খেলোয়াড়েরা শেষ পর্যন্ত লড়বে।”

বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলা সবশেষ চার টেস্টে হেরেছে জিম্বাবুয়ে। সেই চিত্র পাল্টাতে প্রস্তুতি ম্যাচ বড় ভূমিকা রাখতে পারে বলে বিশ্বাস টেইলরের।

“সব খেলোয়াড়দের দীর্ঘ ফরম্যাটের জন্য নিজেদের তৈরি করে নেওয়ার একটা ভালো সুযোগ এটা। টেস্টের আগে আমাদের হাতে খুব বেশি সময় নেই, তিন দিনের একটা ম্যাচ পেয়েছি আমরা। সেটার সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে হবে আমাদের।”

টেস্ট খেলতে হবে সিলেটে। প্রস্তুতি ম্যাচ হবে চট্টগ্রামে। যেহেতু টেস্টের ভেন্যুতে প্রস্তুতি ম্যাচে খেলার সুযোগ নেই তাই চট্টগ্রামে খেলায় আপত্তির কিছু দেখেন না টেইলর।

“সিলেটের উইকেট ব্যাটিং বান্ধব হওয়ার কথা। ঢাকার থেকে আলাদা। সিলেটে প্রথম দুই দিন ব্যাটসম্যানরা সহায়তা পেতে পারে। পরের সময়টাতে ধীরে ধীরে স্পিনাররা সহায়তা পেতে শুরু করবে বলে আমার মনে হয়। চট্টগ্রামে প্রস্তুতি ম্যাচে কোনো সমস্যা নেই। আশা করি, আমরা এখানে তিন দিনের ম্যাচ থেকে ভালো প্রস্তুতি নিলে সিলেটে টেস্টেও ভালো করব।”


ট্যাগ:  জিম্বাবুয়ে  বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ  টেইলর