২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

প্রত্যাশার ভারই ডি ভিলিয়ার্সের প্রেরণা

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-01-18 15:33:53 BdST

bdnews24

তার নামের ওজন যতটা, প্রত্যাশার ভার যেন ততটাই। একাই গড়ে দিতে পারেন ম্যাচের ভাগ্য। ব্যাট হাতে গুঁড়িয়ে দিতে পারেন প্রতিপক্ষকে। ক্রিকেট বিশ্বের যে প্রান্তে, যে কোনো দলে যখন খেলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স, তার দিকে তাকিয়ে থাকে দল আর অগুনতি ক্রিকেট অনুসারী। ব্যতিক্রম নয় বিপিএল ও বাংলাদেশও। তবে ডি ভিলিয়ার্স চিন্তিত নন। বরং লোকের প্রত্যাশাই তার কাছে ভালো খেলার জ্বালানি।

প্রত্যাশার ভার এবার বিপিএলে একটু বেশিই হওয়ার কথা। বাংলাদেশে তিনি বরাবরই তুমুল জনপ্রিয়। এখানকার ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলছেন প্রথমবার। লোকের আগ্রহের কেন্দ্রে থাকবেন নিশ্চিতভাবেই। প্রত্যাশা থাকবে দল থেকেও। বিপিএলে এখনও পর্যন্ত খুব সুবিধা করতে পারছে না রংপুর রাইডার্স। ব্যাটিংয়েও ভোগান্তি বেশি। ডি ভিলিয়ার্সকে অনেকে দেখছেন ত্রাতা হিসেবে।

রংপুর কোচ টম মুডি যদিও আগের দিন স্পষ্ট বলে দিয়েছেন, ডি ভিলিয়ার্স এসেই জাদুমন্ত্রে সব বদলে দিতে পারবে না। তার পরও সমর্থকদের প্রত্যাশার রাশ টেনে ধরা কঠিন। ডি ভিলিয়ার্স রান টানার পক্ষপাতিও নন। বরং প্রত্যাশাই নাকি আরও গতিময় করে তার পথচলা।

“ক্যারিয়ার জুড়েই প্রত্যাশার ভার নিয়ে খেলেছি। এটি আমার জন্য নতুন কিছু নয়। এটি বরং আমাকে মাঠে নেমে ভালো খেলতে অনুপ্রেরণা জোগায়।”

“ক্রিকেট খেলাটায় উঠা-নাম থাকবেই। সব ম্যাচে পারফর্ম করা সম্ভব নয়। ক্রিকেটের বাস্তবতা আমি বুঝি। নিজের কাছে খুব বেশি প্রত্যাশা করি না। হ্যাঁ, নিয়মিত জ্বলে উঠতে চাই অবশ্যই। তবে জানি সব ম্যাচে সম্ভব নয়।”

শুক্রবার সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে রংপুর দলের সঙ্গে প্রথমবার অনুশীলন করেছেন ডি ভিলিয়ার্স। তার বিপিএল অভিযান শুরু হতে পারে শনিবারই, রংপুর রাইডার্সের প্রতিপক্ষ এ দিন সিলেট সিক্সার্স।