২৩ মার্চ ২০১৯, ৯ চৈত্র ১৪২৫

রকিবুলের দৃঢ়তায় মোহামেডানের জয়

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-03-12 18:03:04 BdST

bdnews24

সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন রকিবুল হাসান। আগের ম্যাচে দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলা এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান আবারও টানলেন মোহামেডানকে। রোমাঞ্চকর ম্যাচে দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে গড়ে দিলেন ব্যবধান। অধিনায়কের অপরাজিত ফিফটিতে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতিকে হারাল মোহামেডান।

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে ৪ উইকেটে জিতেছে মোহামেডান। ২২৬ রানের লক্ষ্য চার বল বাকি থাকতে পেরিয়ে যায় তারা।

ইরফান হোসেনের করা শেষ ওভারে জয়ের জন্য মোহামেডানের প্রয়োজন ছিল ৯ রান। ছক্কা ও চার হাঁকিয়ে দুই বলেই সমীকরণ মেলান রকিবুল। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে দলের জয়কে সঙ্গে নিয়ে ফিরেন তিনি।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি খেলাঘরের। দুই ওপেনারকে দ্রুত ফিরিয়ে দেন বাঁহাতি পেসার কাজী অনিক।

শুরুর ধাক্কা সামাল দিয়ে অমিত মজুমদারের সঙ্গে ৮৪ ও অশোক মেনারিয়ার সঙ্গে ৫৪ রানের দুটি জুটিতে দলকে ৩ উইকেটে ১৭২ রানের দৃঢ় ভিতের ওপর দাঁড় করান মোসাদ্দেক ইফতেখার।

৩৯তম ওভারে বোলিংয়ে ফিরে প্রথম বল করেই গোড়ালির গাঁটে চোট পেয়ে স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়েন অনিক। শুরুতে দুই ওপেনারকে ফেরানো বাঁহাতি এই পেসারের ৪ ওভার ৫ বল অন্য বোলারদের দিয়ে করাতে হয় মোহামেডানের অধিনায়ককে।

প্রতিপক্ষে একজন বোলার কমে যাওয়ার সুযোগ ডেথ ওভারে নিতে পারেনি খেলাঘর। শেষের দিকে দ্রুত উইকেট হারিয়ে দলটি ১৫ বল বাকি থাকতে থেমে যায় ২২৫ রানে। ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি পাওয়া মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ইফতেখার ১১৩ বলে ৭ চারে ফিরেন ৮৭ রান করে। খেলাঘর শেষ ৭ উইকেট হারায় ৫৩ রানে।   

অফ স্পিনার সোহাগ ৩ উইকেট নেন ৪১ রানে। দুটি করে উইকেট নেন অনিক ও আলাউদ্দিন বাবু।

রান তাড়ায় অভিষেক মিত্রর সঙ্গে ৬৪ রানের উদ্বোধনী জুটিতে মোহামেডানকে ভালো শুরু এনে দেন আব্দুল মজিদ। চার বলের মধ্যে দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে দেন বাঁহাতি স্পিনার তানভীর ইসলাম।

ইরফান শুক্কুর ও মোহাম্মদ আশরাফুল দুই অঙ্ক ছুঁয়ে ফিরলে চাপে পড়ে যায় মোহামেডান। ক্রিজে গিয়েই শট খেলতে শুরু করেন নাদিফ, রানের গতি বাড়ানোর দিকে মনোযোগ দেন রকিবুলও। পরপর দুই ওভারে নাদিফ ও সোহাগকে ফিরিয়ে ম্যাচ জমিয়ে দেন রবিউল হক।

তবে এরপর ঠাণ্ডা মাথায় দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান রকিবুল। ৮৮ বলে অভিজ্ঞ এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ৮ চার ও এক ছক্কায় অপরাজিত থাকেন ৮৪ রানে। দুর্দান্ত এই ইনিংসের জন্য তিনি জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

মোহামেডান পায় টানা দ্বিতীয় জয়। অন্য দিকে টানা দ্বিতীয় ম্যাচে হারল খেলাঘর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি: ৪৭.৩ ওভারে ২২৫ (রবি ১৯, অঙ্কন ১০, অমিত ৩৭, ইফতেখার ৮৭, মেনারিয়া ২৬, নাজিম ১২, মইনুল ৩, মাসুম ১, রবিউল ৭, ইরফান ৪, তানভীর ০*; শফিউল ১/৩৩, আলাউদ্দিন ২/৪২, অনিক ২/১৯, সোহাগ ৩/৪১, বিপুল ০/৩৭, আশরাফুল ১/৪৪)

মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব: ৪৯.২ ওভারে ২২৮/৬ (অভিষেক ২৭, মজিদ ৪০, শুক্কুর ১৬, রকিবুল ৮৪*, আশরাফুল ১০, নাদিফ ৩৯, সোহাগ ৫, আলাউদ্দিন ২*; রবিউল ২/৪১, রবি ১/৩১, ইরফান ০/৫৫, তানভীর ২/৪১, মাসুম ১/৩৫, ইফতেখার ০/১০, মইনুল ০/১৪)

ফল: মোহামেডান ৬ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: রকিবুল হাসান


ট্যাগ:  বাংলাদেশ  প্রিমিয়ার লিগ  খেলাঘর  মোহামেডান