আফগানদের উড়িয়ে দিল উইন্ডিজ

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-11-07 00:00:21 BdST

bdnews24
ছবি: উইন্ডিজ ক্রিকেট

আফগানিস্তানকে কম রানে থামিয়ে আসল কাজটা সেরে রেখেছিলেন বোলাররা। ব্যাটিংয়ে শুরুতে দ্রুত দুই উইকেট হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পথ দেখালেন রোস্টন চেইস। ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে এনে দিলেন অনায়াস জয়।

লক্ষ্ণৌর ভারত রত্ন শ্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী একানা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বুধবার তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ৭ উইকেটের জয় পেয়েছে কাইরন পোলার্ডের দল। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৪৫.২ ওভারে ১৯৪ রানে অলআউট হয় আফগানিস্তান। জবাবে ২১ বল হাতে রেখে জয় তুলে নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

দারুণ ব্যাটিংয়ে ক্যারিয়ারে প্রথম ওডিআই সেঞ্চুরির আশা জাগিয়েছিলেন চেইস। কিন্তু ছক্কায় জয় মুঠোবন্দী করতে গিয়ে ফেরেন একরাশ হতাশা নিয়ে। তবে ব্যাটে-বলের দারুণ পারফরম্যান্সে দিন শেষে তিনিই ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়ের নায়ক।

এই ম্যাচ দিয়ে ৫০ ওভারের ক্রিকেটে অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক হলো দুই অধিনায়কেরই। তিন সংস্করণেই আফগানিস্তানের অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়ার পর এটি ছিল রশিদ খানের প্রথম ওয়ানডে। অন্যদিকে, সীমিত ওভারের দুই সংস্করণে নেতৃত্ব পাওয়ার পর এখান থেকে শুরু হলো পোলার্ডের নতুন পথচলা।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ১৫ রানের মধ্যে দুই ওপেনারকে হারায় আফগানিস্তান। তৃতীয় উইকেটে ১১১ রানের জুটিতে শুরুর ধাক্কা কাটান ইকরাম আলি খিল ও রহমত শাহ।

৪৭ বলে ফিফটি তুলে নেওয়া তরুণ কিপার-ব্যাটসম্যান ইকরামের দুর্ভাগ্যজনক রান আউটে ভাঙে জুটি। রহমত ফিফটি ছোঁয়ার পর তাকে অভিনন্দন জানাতে ক্রিজ ছেড়ে এগিয়ে যান ইকরাম, কিন্তু তখনও বল 'ডেড' হয়নি। ক্যারিবিয়ানরা বেলস ফেলে রান আউটের আবেদন করেন। নিয়ম অনুযায়ী রান আউট! ৬২ বলে ৬টি চার ও এক ছক্কায় ৫৮ রান করেন তিনি।

ওই ওভারে শূন্য রানে ফেরেন নাজিবুল্লাহ জাদরান। ফিফটির পর ইনিংস লম্বা করতে পারেননি অভিজ্ঞ রহমতও। অফস্পিনার চেইসের বলে স্কুপ করতে গিয়ে স্কয়ার লেগে ধরা পড়েন জেসন হোল্ডারের হাতে। ৮০ বলে ৬টি চার ও এক ছক্কায় ইনিংসের সর্বোচ্চ ৬১ রান আসে তার ব্যাট থেকে।

৩ রানে শেষ চার উইকেট হারায় আফগানিস্তান। ২১ রানে ২ উইকেট নিয়ে সফরকারীদের সেরা বোলার হোল্ডার। দুটি করে উইকেট পান চেইস ও অভিষিক্ত মিডিয়াম পেসার রোমারিও শেফার্ড। জন্মভূমি যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে একটি ওয়ানডে ও আটটি টি-টোয়েন্টি খেলা হেইডেন ওয়ালশ জুনিয়রের এই ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হলো ওয়েস্ট ইন্ডিজের জার্সিতে। ৩৩ রান খরচায় ১ উইকেট পান এই লেগ স্পিনার।

রান তাড়ায় শুরুটা ভালো করতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজও; ২৫ রানের মধ্যে ফিরে যান দুই আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান এভিন লুইস ও শিমরন হেটমায়ার।

তবে তৃতীয় উইকেটে শেই হোপ ও চেইসের ১৬৩ রানের জুটিতে জয় নিয়ে ভাবতে হয়নি দলটিকে। ছক্কায় ম্যাচ শেষ করতে গিয়ে মুজিব উর রহমানের বলে লাইন মিস করে বোল্ড হয়ে যান ৯৪ রান করা চেইস। ৭৭ রানে অপরাজিত থেকে যান হোপ। ব্যাটে-বলে অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে ম্যাচ সেরা চেইস।

আগামী শনিবার একই মাঠে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

আফগানিস্তান: ৪৫.২ ওভারে ১৯৪ (জাজাই ৯, জাভেদ ৫, রহমত ৬১, ইকরাম ৫৮, নাজিবুল্লাহ ০, আসগর ৩৫, নবি ১, নাইব ১৭, রশীদ ০, নাভীন ১, মুজিব ০*; কটরেল ৭-০-৩৩-১, রোচ ১০-২-৩৭-৩, হোল্ডার ১০-২-২১-২, জোসেফ ৫-০-৪২-০, শেফার্ড ৬.২-০-৩২-২, চেইস ১০-০-৩১-২, ওয়ালশ ৭-০-৩৩-১)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৪৬.৩ ওভারে ১৯৭/৩ (হোপ ৭৭*, লুইস ৭, হেটমায়ার ৩, চেইস ৯৪, পুরান ৮*; মুজিব ১০-১-৩৩-২, নাভীন ৮-১-৩০-১, রশীদ ১০-০-৪৩-০, নবি ১০-০-৪৪-০, গুলবাদিন ৫-০-২৮-০, জাভেদ ৩.৩-০-১৫-০)

ফল: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭ উইকেটে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ:  রোস্টন চেইস


ট্যাগ:  ম্যাচ রিপোর্ট  ওয়ানডে  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  আফগানিস্তান