৬ উইকেট নেওয়ার পর ব্যাটিংয়েও আগ্রাসী আরিফুল

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-11-18 18:45:15 BdST

bdnews24

আগের দিন বিকেলের বোলিং ধার সোমবার সকালেও ধরে রাখলেন আরিফুল হক। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে গুটিয়ে দিলেন রাজশাহীকে। পরে ব্যাট হাতেও খেললেন আক্রমণাত্মক এক ইনিংস। সঙ্গে তানবীর হায়দারের অপরাজিত ফিফটিতে রাজশাহীর বিপক্ষে অনেকটা এগিয়ে রংপুর।

রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে প্রথম স্তরের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেটে ২২৮ রান তুলে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে রংপুর। চার উইকেট হাতে রেখে তাদের লিড ২৪৮ রানের।

৫ উইকেটে ২২৪ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু রাজশাহীকে এদিন খুব বেশিদূর এগোতে দেননি আরিফুল। আগের দিন বিকেলে তিন উইকেট নিয়ে রংপুরকে লড়াইয়ে ফিরিয়েছিলেন। সোমবার সকালে তুলে নেন আরও তিন ব্যাটসম্যানকে।

সব মিলিয়ে ২৩.২ ওভারে ৪১ রান খরচায় নিয়েছেন ৬ উইকেট, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার আগের সেরা ছিল ৭৫ রানে ৬ উইকেট।

দিনের প্রথম বলে ২২ রান করা সাব্বির রহমানকে ফেরান রংপুরের বাঁহাতি পেসার সাজেদুল ইসলাম। নিজের এক ওভারেই সানজামুল ইসলাম ও মুক্তার আলিকে ফিরিয়ে রাজশাহীকে বড় ধাক্কা দেন আরিফুল। পরের ওভারে তুলে নেন মোহর শেখকেও।

শেষ ব্যাটসম্যান সুজন হাওলাদার রান আউট হলে ২৫৪ রানে শেষ হয় রাজশাহীর প্রথম ইনিংস।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম বলেই রংপুর ওপেনার মেহেদী মারুফ আউট হন দেলোয়ার হোসেনের বলে। আগের ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান সোহরাওয়ার্দী শুভও এদিন খুব বেশিদূর যেতে পারেননি।

একপ্রান্ত ধরে রাখা জাহিদ জাবেদ এবং অভিজ্ঞ নাঈম ইসলাম দ্রুত ফিরে গেলে আরও  চাপে পড়ে রংপুর। এরপর নাসির হোসেন ১৭ রানে ফিরলে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেটে ১২১।

সেই অবস্থা থেকে দলকে টেনে তোলে তানবীর ও আরিফুলের জুটি। ষষ্ঠ উইকেটে দুজন যোগ করেন ৮৫ রান। ধীরস্থির ব্যাটিংয়ে ১২৬ বলে ফিফটিতে পৌঁছান তানবীর। ব্যক্তিগত ১৪ রানের সময় স্পর্শ করেন প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে ৩০০০ রানের মাইলফলক।

প্রথম ইনিংসে ফিফটি পেলেও এবার অল্পের জন্য ফিফটি হাতছাড়া করেন আরিফুল। ওয়ানডে ঘরানার ব্যাটিংয়ে ৪৪ বলে তিনটি চার ও দুটি ছক্কায় ৪৮ রান করে ফেরেন দেলোয়ারের বলে।

আলোকস্বল্পতার কারণে নির্ধারিত সময়ের দশ মিনিট আগেই দিনের খেলা শেষ হয়। তানবীর অপরাজিত থাকেন ৭২ রানে। সঙ্গী রিশাদ ৯ বলে দুই ছক্কায় তুলেছেন ১৮ রান। 

রংপুরের ৬ উইকেটের চারটিই পেয়েছেন দেলোয়ার হোসেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

রংপুর ১ম ইনিংস: ২৭৪

রাজশাহী ১ম ইনিংস: (আগের দিন ২২৪/৫) ৮৬.২ ওভারে ২৫৪ (অভিষেক ৬৭, মিজানুর ২, জুনায়েদ ৩৭, ফরহাদ ৭৫, সাব্বির ২২, শাকির ২, মুক্তার ৫, সানজামুল ৬, দেলোয়ার ১৯*, মোহর ০, সুজন ০; আলাউদ্দিন বাবু ১১-২-৪৫-১, সাজেদুল ২২-৪-৫৯-২, আরিফুল ২৩.২-৮-৪১-৬, রিশাদ ২০-২-৫৫-০, সোহরাওয়ার্দী ২-০-১৪-০, তানবীর ৪-০-১৪-০, জাবেদ ৪-০-৭-০)

রংপুর ২য় ইনিংস: ৬১ ওভারে ২২৮/৬ (মারুফ ০, জাবেদ ৩৩, সোহরাওয়ার্দী ১৭, তানবীর ৭২*, নাঈম ১২, নাসির ১৭, আরিফুল ৪৮, রিশাদ ১৮*; দেলোয়ার ১৬-৪-৭৩-৪, মোহর ২১.৫-৪-৮৬-০, সুজন ০.১-০-০-০, মুক্তার ১৮-২-৪৪-২, সানজামুল ৫-০-১৫-০)


ট্যাগ:  রংপুর  জাতীয় লিগ  রাজশাহী