শাহাদাতের ঘটনার সূত্রপাত শহীদকে দিয়ে

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-11-19 14:19:49 BdST

bdnews24

জাতীয় লিগের ম্যাচে সতীর্থ আরাফাত সানি জুনিয়রের গায়ে হাত তোলার যে ঘটনায় পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন শাহাদাত হোসেন, সেই ঘটনার সূত্রপাত আরেক পেসার মোহাম্মদ শহীদকে দিয়ে। এ কারণে ম্যাচ ফি’র ৫০ শতাংশ জরিমানাও করা হয়েছে তাকে। পেতে পারেন আরও বড় শাস্তি।

খুলনায় জাতীয় লিগের শেষ রাউন্ডের ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে, গত রোববার সতীর্থ অফ স্পিনার আরাফাত সানি জুনিয়রকে মারধর করেন ঢাকা বিভাগের হয়ে খেলা শাহাদাত। বল ঘষে উজ্জ্বল করা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে আরাফাতের উপর ক্ষিপ্ত হয়েছিলেন তিনি।

জানা গেছে, বল উজ্জ্বল করা নিয়ে আরাফাতের সাথে কথা কাটাকাটির শুরুটা করেছিলেন শহীদ। তিনিই শুরুতে এই অফ স্পিনারকে ধাক্কা দেন। এরপর আরাফাতের উপর চড়াও হন শাহাদাত। শুরু করেন চড়-থাপ্পড়। আম্পায়ার এসে সরিয়ে দেওয়ার পরও শাহাদাত আবার গিয়ে মারতে থাকেন আরাফাতকে। পরে সতীর্থরা তাকে একরকম জোর করেই নিয়ে যায় মাঠের বাইরে।

শহীদের ধাক্কা দেওয়ার ঘটনাটি নজর এড়ায়নি আম্পায়ারদের। আচরণবিধির লেভেল ২ ভঙ্গের জন্য ইতিমধ্যে তার ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। টেকনিক্যাল কমিটির কাছে তার ব্যাপারে প্রতিবেদনও জমা দিয়েছেন ম্যাচ রেফারি আখতার আহমেদ।

জাতীয় লিগের ষষ্ঠ ও শেষ রাউন্ডের খেলা শেষ হচ্ছে আজই। শহীদের শাস্তি বাড়ানো হবে কি না, ম্যাচ শেষে তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে টেকনিক্যাল কমিটি।

শাহাদাতের মতো শহীদেরও রয়েছে শৃঙ্গলাভঙ্গের অতীত ইতিহাস। দুই বছর আগে তার বিরুদ্ধে স্ত্রীকে মারধর ও নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছিল। অভিযোগ নিয়ে বিসিবির কাছেও এসেছিলেন তার স্ত্রী।

ফিটনেসের অবস্থা সন্তোষজনক না থাকায় এবারের জাতীয় লিগের প্রথম পাঁচ রাউন্ডে ঢাকার মূল একাদশে জায়গা হয়নি শহীদের। ষষ্ঠ রাউন্ড দিয়েই ফিরেছেন মাঠে।


ট্যাগ:  বাংলাদেশ  শহীদ