তিন হ্যাটট্রিকে চতুর্থ রশিদ খান

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-01-08 22:26:31 BdST

bdnews24

ক্যারিয়ারে একটি হ্যাটট্রিকই কত বোলারের আরাধ্য। অনেক বিখ্যাত বোলারও পাননি এই স্বাদ। রশিদ খান সেখানে টি-টোয়েন্টিতে করে ফেললেন তিনটি হ্যাটট্রিক! বিগ ব্যাশে হ্যাটট্রিক করে আফগান লেগ স্পিনার নাম লেখালেন রেকর্ড বইয়ে।

বিগ ব্যাশে বৃহস্পতিবার অ্যাডিলেইড স্টাইকার্সের হয়ে সিডনি সিক্সার্সের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেন রশিদ। টি-টোয়েন্টিতে তৃতীয় হ্যাটট্রিকে স্পর্শ করলেন রেকর্ড। ২০ ওভারের ক্রিকেটে তিনটি হ্যাটট্রিক আছে আর তিন বোলারের।

অ্যাডিলেইডে এবার রশিদের হ্যাটট্রিকের শিকার জেমস ভিন্স, জ্যাক এডওয়ার্ডস ও জর্ডান সিল্ক। তার প্রথম হ্যাটট্রিক ছিল ২০১৭ সিপিএলে গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের হয়ে জ্যামাইকা তালাওয়াহসের বিপক্ষে। রশিদের আরেকটি হ্যাটট্রিক গত ফেব্রুয়ারিতে, আফগানিস্তান জাতীয় দলের হয়ে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে।

রশিদের আগে টি-টোয়েন্টিতে তিনটি করে হ্যাটট্রিকের স্বাদ পেয়েছেন ভারতের অমিত মিশ্র, অস্ট্রেলিয়ার অ্যান্ড্রু টাই ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের আন্দ্রে রাসেল।

প্রথম বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে তিনটি হ্যাটট্রিকের কীর্তি প্রথম গড়েছিলেন অমিত মিশ্র। ভারতীয় লেগ স্পিনারের তিনটি হ্যাটট্রিকই আইপিএলে; ২০০৮, ২০১১ ও ২০১৩ আসরে।

টাই তিনটি হ্যাটট্রিক করেন এক বছরের মধ্যেই। দুটি বিগ ব্যাশে, একটি আইপিএলে। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে এই পেসার ব্রিজবেন হিটের হয়ে করেছিলেন প্রথমটি, এপ্রিলে আইপিএলে গুজরাট লায়ন্সের হয়ে দ্বিতীয়টি, ডিসেম্বরে পার্থ স্কর্চার্সের হয়ে তৃতীয়টি।

রাসেল প্রথম হ্যাটট্রিক করেছিলেন ২০১৩ সালে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ‘এ’ দলের হয়ে ভারত ‘এ’ দলের বিপক্ষে। দ্বিতীয়টি ২০১৮ সিপিএলে জ্যামাইকা তালাওয়াহসের হয়ে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ও আরেকটি গত বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে।

টি-টোয়েন্টিতে দুটি করে হ্যাটট্রিক আছে বাংলাদেশের আল আমিন হোসেন, দক্ষিণ আফ্রিকার ইমরান তাহির, পাকিস্তানের ওয়াহাব রিয়াজ, নিউ জিল্যান্ডের টিম সাউদি, ওয়েস্ট ইন্ডিজের লেনক্স কাশ, শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্গা ও ভারতের যুবরাজ সিংয়ের।

যুবরাজ আবার একটি জায়গায় অনন্য। দুইবার নিজে হ্যাটট্রিক করেছেন, দুইবার নিজে হ্যাটট্রিকের শিকারও হয়েছেন!

তিন হ্যাটট্রিকের পাশাপাশি আরেকটি রেকর্ডেও টি-টোয়েন্টিতে মাত্র পাঁচ বোলারের একজন রশিদ। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওই হ্যাটট্রিকে রশিদ উইকেট নিয়েছিলেন টানা চার বলে!

টানা চার বলে উইকেটের কীর্তি সবার আগে গড়েছিলেন রাসেল, তার প্রথম হ্যাটট্রিকের ম্যাচে। গত নভেম্বরে ভারতের সৈয়দ মুশতাক আলি ট্রফিতে টানা চার বলে উইকেট নেন পেসার অভিমন্যু মিঠুন।

গত সেপ্টেম্বরে লাসিথ মালিঙ্গাও নাম লেখান এই রেকর্ডে। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে টানা চার বলে আউট করেন কলিন মানরো, হ্যামিশ রাদারফোর্ড, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও রস টেইলরকে। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে টানা চার বলে উইকেট নেই আর কারও। মালিঙ্গা এই স্বাদ পেয়েছেন ওয়ানডেতেও।

বাংলাদেশের একজনেরও আছে টানা চার বলে উইকেটের কীর্তি। ২০১৩ সালের ডিসেম্বরে বিজয় দিবস টি-টোয়েন্টিতে এই কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন আল আমিন হোসেন। ইউসিবি-বিসিবি একাদশের হয়ে আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে ইনিংসের শেষ ওভারে তৃতীয় থেকে ষষ্ঠ বলে আউট করেছিলেন নাজমুল হোসেন মিলন, সোহরাওয়ার্দী শুভ, নাঈম ইসলাম জুনিয়র ও নাবিল সামাদকে।

ওই ওভারের প্রথম বলে মেহেদি মারুফকেও আউট করেছিলেন আল আমিন। দুর্দান্ত সেই ওভারে তাই তার উইকেট ছিল ৫টি!


ট্যাগ:  আফগানিস্তান  রশিদ