তীরে এসে তরী ডুবল ওয়েস্ট ইন্ডিজের

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-01-16 03:04:27 BdST

গ্রানাডায় যেন রান উৎসবে মেতেছিল দুই দল। টি-টোয়েন্টিতে আয়ারল্যান্ডের সেরা জুটি গড়লেন পল স্টার্লিং ও কেভিন ও’ব্রায়েন। দলকে এনে দিলেন লড়াইয়ের পুঁজি। ক্যারিবিয়ানে প্রথমবারের মতো দুইশ ছাড়ানো লক্ষ্য তাড়ার পথে এগিয়েই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শেষের দিকের তালগোল পাকানো ব্যাটিংয়ে রোমাঞ্চকর ম্যাচে হেরে গেছে কাইরন পোলার্ডের দল।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৪ রানে জিতে তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেছে আয়ারল্যান্ড। ২০৯ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ৭ উইকেটে ২০৪ রানে থামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

সেন্ট জর্জেসের ন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বুধবার টস জিতে রেকর্ড গড়া জুটিতে দারুণ শুরু পায় আয়ারল্যান্ড। দুই ওপেনারের ১৫৬ রানের জুটিতে অগ্রণী ছিলেন স্টার্লিং, তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন ও’ব্রায়েন।

এই ম্যাচ দিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে ফেরা অলরাউন্ডার ডোয়াইন ব্রাভো ভাঙেন ১২.৩ ওভার স্থায়ী জুটি। টি-টোয়েন্টিতে আইরিশদের যে কোনো জুটিতে স্টার্লিং-ও’ব্রায়েনের ১৫৬ রান সেরা। উদ্বোধনী জুটিতে এই সংস্করণে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে যে কোনো দেশের সেরা। 

৩২ বলে ৪৮ রান করে ও’ব্রায়েনের বিদায়ের পরপরই থেমে যান স্টার্লিং। চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ দুইবার নব্বইয়ের ঘরে আউট হওয়া এই ডানহাতি ওপেনার করেন ৯৫। ৪৭ বলে খেলা তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসটি গড়া আট ছক্কা ও ছয় চারে।

সাজানো মঞ্চে ঝড় তুলতে পারেননি পরের ব্যাটসম্যানরা। অনেক বড় সংগ্রহের সম্ভাবনা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত কোনোমতে দুইশ পার হয় সফরকারীদের সংগ্রহ।

ফেরার ম্যাচে ২৮ রানে ২ উইকেট নেন ব্রাভো। আঁটসাঁট বোলিংয়ে ২৫ রানে এক উইকেট নেন হেইডেন ওয়ালশ।

রান তাড়ায় শুরুতে পথ দেখান লেন্ডল সিমন্স। ওয়ানডে সিরিজে ভোগানো এভিন লুইসও খেলতে শুরু করেন শট। দ্রুত এগিয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিমন্সের বিদায়ে ভাঙে ৩৭ রানের উদ্বোধনী জুটি। পঞ্চাশ ছুঁয়ে থামেন লুইস। ২৯ বলে খেলা তার ৫৩ রানের বিস্ফোরক ইনিংস গড়া তিন ছক্কা ও ছয় চারে।

তিন ছক্কায় ১৮ বলে ২৮ রান করেন শিমরন হেটমায়ার। পোলার্ডের ব্যাট থেকে তিন ছক্কা ও এক চারে ১৫ বলে আসে ৩১ রান। সেই তুলনায় শান্তই ছিলেন নিকোলাস পুরান, ২৩ বলে করেন ২৬।

জয়ের পথেই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শেষ দুই ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৬ রান, হাতে ছিল ৬ উইকেট। দারুণ এক ওভারে ৩ রান দিয়ে পুরানকে বিদায় করে কাজটা কঠিন করে তোলেন ক্রেইগ ইয়ং।

তিন ছক্কায় ২৬ রান করা রাদারফোর্ড ২০তম ওভারের প্রথম বলে ফিরেন সীমানায় ক্যাচ দিয়ে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার ম্যাচে নায়ক হওয়ার হাতছানি ছিল ব্রাভোর সামনে, পারেননি তিনি।

ছক্কার পর দুই নিয়ে সমীকরণ নামিয়ে আনেন ৩ বলে ৫ রানে। এরপর আর কোনো রানই করতে পারেনি স্বাগতিকরা! ডট বল খেলে পরের বলে ক্যাচ দেন ব্রাভো। শেষ বলে ব্যাটই ছোঁয়াতে পারেননি ওয়ালশ।

ফল হওয়া চার ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় জয়ের খুশিতে মাঠ ছাড়ে আয়ারল্যান্ড।

২৯ রানে ৩ উইকেট নেন লিটল। ইয়ং ২ উইকেট ৩১ রানে। ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়ে ফেরা স্টার্লিং জিতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

আগামী শনিবার হবে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

আয়ারল্যান্ড: ২০ ওভারে ২০৮/৭ (স্টার্লিং ৯৫, ও’ব্রায়েন ৪৮, বালবার্নি ৭, ডিল্যানি ১৯, টেক্টর ২, উইলসন ১৭, ডকরেল ৫*, সিমি ০; কটরেল ৪-০-৩৭-২, পিয়ের ৩-০-৪৫-২, উইলিয়ামস ৩-০-৪৮-০, ব্রাভো ৪-০-২৮-২, ওয়ালশ ৪-০-২৫-১, পোলার্ড ২-০-২২-০)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ২০ ওভারে ২০৪/৭ (সিমন্স ২২, লুইস ৫৩, হেটমায়ার ২৮, পোলার্ড ৩১, পুরান ২৬, রাদারফোর্ড ২৬, ব্রাভো ৯, ওয়ালশ ০*, পিয়ের ০*; সিমি ৪-০-৩৬-১, ম্যাককার্থি ৪-০-৫৫-০, লিটল ৪-০-২৯-৩, ইয়ং ৪-০-৩১-২, ডকরেল ৪-০-৫১-১)

ফল: আয়ারল্যান্ড ৪ রানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: পল স্টার্লিং


ট্যাগ:  আয়ারল্যান্ড  স্টার্লিং  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  ম্যাচ রিপোর্ট  টি-টোয়েন্টি