দুর্ভাবনা বাংলাদেশেই ফেলে গেছেন মাহমুদউল্লাহ

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-01-23 17:34:21 BdST

টিম হোটেলকে রূপ দেওয়া হয়েছে প্রায় দুর্গের। বুলেট প্রুফ বাসে নিরাপত্তার বিশাল বহর নিয়ে চলছে যাতায়াত। নিজের মতো চলাফেরার কোনো সুযোগ নেই। এমন নিরাপত্তার জালে হাঁসফাঁস অবস্থায় মাঠের ক্রিকেটে শতভাগ মনোযোগ দেওয়া কঠিন। নিরাপত্তার কড়াকড়িই তো বারবার মনে করিয়ে দেয় শঙ্কার কথা! তবে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ বলছেন, দেশ ছাড়ার সময় নিরাপত্তার ভাবনা তারা পেছনে ফেলে এসেছেন।

তিন টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে বুধবার রাতে লাহোরে পৌঁছেছে বাংলাদেশ দল। কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দলকে বরণ করে নিয়ে যাওয়া হয় টিম হোটেলে। যথারীতি নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্যে বৃহস্পতিবার দুপুরে সিরিজের ভেন্যু গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে অনুশীলন করে দল।

অবস্থাদৃষ্টে দম বন্ধ করা পরিস্থিতি মনে হলেও লাহোরে সিরিজ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ বললেন, তারা স্বস্তিতেই আছেন। ভাবছেন কেবল ক্রিকেট নিয়ে।

“বিমানে ওঠার সময়ই আমরা তা (দুর্ভাবনা) ফেলে এসেছি, বাংলাদেশেই রেখে এসেছি। আমরা কেবল পাকিস্তানে ভালো ক্রিকেট খেলা নিয়েই ভাবছি। ভালো পারফর্ম করতে মুখিয়ে আছি আমরা।”

“যখন থেকে বোর্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে আমরা পাকিস্তানে খেলব, তখন থেকে বদ্ধ পরিবেশ নাকি কেমন, সেটা আসলে খুব গুরুত্বপূর্ণ নয়। এখানে এসে আমার মনে হয়, ওই ধরনের চিন্তা-ভাবনা থেকে সরে আসা ভালো। দলের প্রতিটি ক্রিকেটারই ওভাবে চিন্তা করছে। সবাই ভালো ক্রিকেট খেলতে মুখিয়ে আছে।”

পাকিস্তানে যাওয়ার পর থেকে যেমন নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখা যাচ্ছে, তাতে সন্তুষ্ট বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক।

“এমন অভিজ্ঞতা আমার আগে কখনও হয়নি। পাকিস্তান সর্বোচ্চ নিরাপত্তাই দিচ্ছে আমাদের। তাদের সব আয়োজন নিয়ে আমি খুশি।”

অনুশীলন আর ম্যাচের সময়টুকু ছাড়া বাকি সময় হোটেলেই থাকতে হবে ক্রিকেটারদের। অনেকটা বন্দীদশা। তবে এটির একটি ইতিবাচক দিকও খুঁজে পাচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ।

“ইতিবাচক দিকও আছে। টিমমেটদের সঙ্গে অনেক সময় কাটানোর সুযোগ মিলছে। এদিক থেকে ইতিবাচক।”

আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে দুই দফায় পাকিস্তান সফরের অভিজ্ঞতা হয়েছিল মাহমুদউল্লাহর। দুটিই ২০০৮ সালে। পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ও একটি টি-টোয়েন্টি খেলার তিন মাস পর দেশটিতে এশিয়া কাপ খেলতে গিয়েছিল বাংলাদেশ। মোট খেলেছিলেন ১০টি ওয়ানডে ও ১টি টি-টোয়েন্টি। এত বছর পর আবার পাকিস্তানে গিয়ে জানালেন ভালো লাগার কথা।

“এখানে ফিরতে পেরে ভালো লাগছে। আগেও আমি এখানে এসেছি। পাকিস্তানে মাঠের আবহ দারুণ থাকে। ফিরে ভালো লাগছে। এখন আমরা ভালো ক্রিকেট খেলতে চাই।”

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটি শুক্রবার। ম্যাচ শুরু বাংলাদেশ সময় দুপুর ৩টায়।


ট্যাগ:  বাংলাদেশ  মাহমুদউল্লাহ  বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজ