পাকিস্তানে সিরিজ জয়ের আশায় বাংলাদেশ

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-01-23 19:27:21 BdST

মুখোমুখি লড়াইয়ের ফল একতরফা। র‌্যাঙ্কিংয়েও ব্যবধান বিস্তর। টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তান এগিয়ে সব দিক থেকেই। কন্ডিশন ও পারিপার্শ্বিকতাও বিরুদ্ধ বাংলাদেশের জন্য। তবু স্বপ্নের আকাশে উড়ছে রঙিন সব ঘুড়ি। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর বিশ্বাস, পাকিস্তানের মাটিতে সিরিজ জিততে পারে বাংলাদেশ।

নিরাপত্তা শঙ্কায় সিরিজ নিয়ে অনিশ্চয়তা, নানা টানাপোড়েন আর ঘটনাবহুল সব অধ্যায়ের পর অবশেষে শুরু হচ্ছে মাঠের ক্রিকেট। বাংলাদেশ-পাকিস্তান তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ শুক্রবার। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরু বাংলাদেশ সময় দুপুর ৩টায়।

টি-টোয়েন্টিতে এখনও পর্যন্ত ১০ বার মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। পাকিস্তান জিতেছে ৮টিতেই। বাংলাদেশের দুটি জয় অবশ্য দুই দলের সবশেষ তিন লড়াইয়ে। তবে সেই ম্যাচ দুটি ছিল ২০১৫ ও ২০১৬ সালে।

এরপর বিশ্ব ক্রিকেটে পেরিয়ে গেছে অনেক সময়। টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে পাকিস্তান এখন এক নম্বর। বেশ অনেক দিন থেকেই আছে তারা শীর্ষে। বাংলাদেশ সেখানে র‌্যাঙ্কিংয়ের নয়ে।

তবে সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ খুব খারাপ করেনি টি-টোয়েন্টিতে। গত সেপ্টেম্বরে দেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেছিল দল। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ ভেস্তে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। এরপর নভেম্বরে ভারত সফরে গিয়ে জিতেছিল প্রথম ম্যাচ। শেষ ম্যাচে সিরিজ জয়ের দুয়ারেও ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু নিজেদের ভুলে সেবার হাত থেকে ফসকে যায় জয়।

মাহমুদউল্লাহ আত্মবিশ্বাস নিচ্ছেন সাম্প্রতিক এই পারফরম্যান্স থেকেই। র‌্যাঙ্কিংয়ে দুই দলের ব্যবধানকে তিনি চাপা দিতে চান সাম্প্রতিক বাস্তবতায়।

“এখন ওসব ভাবছি না। র‌্যাঙ্কিং নিয়ে ভাবলে তা খেলায় প্রভাব ফেলতে পারে। ওসব আমরা ভাবছি না। আমরা জানি পাকিস্তান খুব ভালো ও শক্তিশালী দল। টি-টোয়েন্টি সংস্করণে তারা বেশ ধারাবাহিকও। র‌্যাঙ্কিংয়েও সেটির প্রমাণ আছে। তবে আমাদের টি-টোয়েন্টি পারফরম্যান্সের গ্রাফও উর্ধ্বমুখি।”

 “গত কয়েক সিরিজে আমরা ভালো খেলেছি। আমরা সেটির ধারাবাহিকতা ধরে রাখার আশা করছি। ছেলেরা যেভাবে কাজ করছে, আশা করি ভালো করবে।”

সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে বাংলাদেশ যেমন ইঙ্গিত দিচ্ছে এগিয়ে যাওয়ার, পাকিস্তান চেপে বসেছে যেন উল্টো রথে। সবশেষ দুটি সিরিজেই তারা হোয়াইটওয়াশড হয়েছে। একটি ছিল নিজেদের মাটিতে শ্রীলঙ্কার দ্বিতীয় সারির দলের বিপক্ষে। কিন্তু আগে এতটাই ধারাবাহিক ছিল তারা, সেটিই তাদের এখনও রেখেছে শীর্ষে।

শক্তি-সামর্থ্য আর নিজেদের চেনা আঙিনা মিলিয়ে তার পরও সিরিজে ফেবারিট পাকিস্তানই। কিন্তু হাল ছাড়লে চলবে কেন! সব বাস্তবতা মিলিয়েই সিরিজ জয়ের আশা করছেন মাহমুদউল্লাহ। এই বছরের অক্টোবরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর বসবে অস্ট্রেলিয়ায়। বাংলাদেশ অধিনায়কের চাওয়া, জয়ের ধারাবাহিকতায় অস্ট্রেলিয়ার পথে এগিয়ে চলা।

“পাকিস্তানের মাটিতে পাকিস্তান অনেক ভালো দল। শক্তিশালী দল। তবে আমি আমাদের দল নিয়ে আশাবাদী যেন ভালো খেলতে পারি ও সিরিজ জিততে পারি।”

“আমরা বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত হচ্ছি। ম্যাচ ও সিরিজ জয়ে আমাদের ধারাবাহিকতায় থাকতে হবে। এখন আমাদের জন্য ভালো সুযোগ দীর্ঘদিন পর পাকিস্তানে সিরিজ জয়ের। আমরা সেদিকে তাকিয়ে আছি।”


ট্যাগ:  বাংলাদেশ  বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজ