মিরাজ-নাঈমের লড়াইয়ে দলের লাভ দেখছেন অধিনায়ক

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-02-25 17:59:36 BdST

নাঈম হাসানের পারফরম্যান্সকে অনেকে দেখছেন মেহেদী হাসান মিরাজের জন্য জেগে ওঠার বার্তা হিসেবে। মুমিনুল হক সরাসরি সেটি বলছেন না। তবে অধিনায়ক হিসেবে দারুণ উপভোগ করছেন দুই তরুণ অফ স্পিনারের লড়াই। পরস্পরকে ছাপিয়ে যাওয়ার এই প্রতিযোগিতায় চূড়ান্ত লাভ যে দলেরই!

সময়টা দারুণ কাটছে নাঈমের। মিরপুর টেস্টের আগে পূর্বাঞ্চলের হয়ে বিসিএলের দুই ম্যাচে নিয়েছেন ২১ উইকেট। এরপর টেস্টে ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নিলেন ম্যাচে ৯ উইকেট।

নতুন-পুরোনো দুই বলেই দারুণ কার্যকর ছিলেন নাঈম। প্রথম ইনিংসে একটুর জন্য পাননি পাঁচ উইকেট, ম্যাচে অল্পের জন্য হাতছাড়া হয়েছে ১০ উইকেট। ১৫২ রানে শিকার ৯টি।

টেস্টে বাংলাদেশের সেরা দুটি বোলিংয়ের রেকর্ডই আরেক অফ স্পিনার মিরাজের। ২০১৬ সালে অভিষেক সিরিজে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১৫৯ রানে নিয়েছিলেন ১২ উইকেট। দুই বছর পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১১৭ রানে নেন ১২ উইকেট। সেবার প্রথম কোনো ম্যাচ ইনিংস ব্যবধানে জেতে বাংলাদেশ।

দেশের মাটিতে মিরাজের রেকর্ড দারুণ। ১১ টেস্টে ২১.৪৪ গড়ে নিয়েছেন ৬১ উইকেট। পাঁচ উইকেট ছয়বার, ১০ উইকেট দুইবার। এমন একজনকে বাইরে রেখে নাঈমকে খেলানো সহজ সিদ্ধান্ত ছিল না। মুমিনুল মনে করেন, এই রকম প্রতিযোগিতা দলের জন্য ইতিবাচক।

“দলে প্রতিযোগিতা থাকা সবসময় গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বের সব বড় বড় দলগুলোতেই কিন্তু এ জিনিসটা আছে। এরকম স্বাস্থ্যকর প্রতিযোগিতা থাকা ভালো, দলের পারফরম্যান্সের জন্য ভালো।”

গত বছর টেস্টে বল হাতে সময়টা ভালো কাটেনি মিরাজের। তবে ফর্মের কারণে নাঈমকে সুযোগ দিতেই মিরাজকে বাইরে রাখা, দাবি মুমিনুলের।

“নাঈম কিন্তু অনেকদিন থেকেই লাইন আপে ছিল এবং ভালো বোলিং করছে। এর মানে যে মিরাজ খারাপ বোলিং করছে, এমনটা নয়। নাঈমকে একটু সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এটাই আমার কাছে মনে হয়।”

প্রথম ইনিংসে ৭০ রানে ৪ উইকেট নেন নাঈম। দ্বিতীয় ইনিংসে ৮২ রানে ৫টি। ক্যারিয়ারে এ নিয়ে দ্বিতীয়বার ইনিংসে পেলেন পাঁচ উইকেট। ৫ টেস্টের ক্যারিয়ারেই উজ্জ্বল সম্ভাবনার ছাপ রেখেছেন যথেষ্ট।

তবে ১৯ বছর বয়সী ক্রিকেটারকে এখনই স্তুতিতে ভাসিয়ে না দেওয়ার অনুরোধ জানালেন অধিনায়ক।

“দেখুন নাঈম মাত্র ক্যারিয়ার শুরু করল। আমি এটা নিয়ে খুব বেশি বলতে চাই না। আমি আপনাদের কাছে একটা অনুরোধ করব, আপনারা এই অনুরোধ রাখলে ভালো হবে।”

“নাঈম অনেক ভালো বোলিং করেছে। আশা করি আরও ভালো করবে। ওর অনেক কিছু করার বাকি আছে। ধীর ধীরে সে উন্নতি করবে, আরও করতে হবে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শুরুতে বোঝা যায় না। আমার কাছে মনে হয়, ওকে আরও উন্নতি করতে হবে।”


ট্যাগ:  বাংলাদেশ  নাঈম  মুমিনুল  বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ  মিরাজ