‘নিজের খেলায় মনোযোগ দাও’, হাফিজকে পিসিবির প্রধান নির্বাহী

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-21 23:02:54 BdST

bdnews24

নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরা ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে সব সময়ই উচ্চকিত দেখা যায় মোহাম্মদ হাফিজকে। ব্যতিক্রম হয়নি শারজিল খানের ক্ষেত্রেও। প্রশ্ন তুলেছিলেন তার প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরা নিয়ে। সেটি আবার ভালোভাবে নেননি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান। হাফিজকে সতর্ক করে দিয়ে নিজের খেলায় মনোযোগ দিতে বলেছেন ওয়াসিম।

২০১৭ সালে পিএসএলে দুর্নীতির দায়ে শারজিলকে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছিল পিসিবি। তবে এই ব্যাটসম্যান ‘নিঃশর্ত ক্ষমা’ চাওয়ায় গত অগাস্টে তার নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় বোর্ড।

সম্প্রতি পিএসএল দিয়ে ক্রিকেটে ফেরেন শারজিল। করাচি কিংসের হয়ে ১০ ম্যাচে যদিও করতে পেরেছেন কেবল ১৯৯ রান। শীর্ষ পর্যায়ে খেলার জন্য শারীরিকভাবে তিনি যথেষ্ট ফিট কি না, সে প্রশ্নও উঠে গেছে।  এমনই এক প্রশ্ন তুলে টুইটারে হাফিজ লিখেছিলেন, “পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য মর্যাদা ও গর্বের চেয়ে অন্য কোনো ‘বাড়তি প্রতিভা’ দিয়ে মানদণ্ড নির্ধারণ করা উচিত নয়।”

হাফিজের এমন মন্তব্য ভালোভাবে নেননি পিসিবির প্রধান নির্বাহী। লাহোরে ভিডিও বার্তায় কড়া ভাষায় তিরস্কার করেছেন ৩৯ বছর বয়সী অলরাউন্ডারকে।

“অন্য খেলোয়াড়দের সমালোচনা করা বা ক্রিকেট বোর্ডের নীতিমালা কেমন হওয়া উচিত বা উচিত নয়, তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলা বর্তমান খেলোয়াড়দের জন্য ঠিক নয়। বিশ্ব ক্রিকেটের অনেক বিষয় নিয়েই তারা তাদের মতামত দিতে পারে, কিন্তু খেলোয়াড়দের কোনটা সঠিক, কোনটা ভুল সেটা নিয়ে নয়। এটা বোর্ডের ওপর ছেড়ে দেওয়া উচিত।”

“এটা নিয়ে আমি ব্যক্তিগতভাবে হাফিজের সঙ্গে কথা বলব। আমি মনে করি না এটা তার বলার জায়গা। বিশ্বের কোনো খেলোয়াড়ই এটা করে না। আমাদের পাকিস্তানি খেলোয়াড়রা কেন করবে? আমি মনে করি না এটা তাদের করা উচিত। এটাই আমার ব্যক্তিগত দর্শন।”

‘ইংলিশ ক্রিকেটের পরিবেশ দেখে এসেছি আমি, কখনও কোনো ইংলিশ খেলোয়াড়কে নীতি, পদ্ধতি এবং অন্য খেলোয়াড়ের সঠিক বা ভুল নিয়ে টুইট করতে দেখিনি। আমার দর্শন হলো, সে তার নিজের খেলায় মনোযোগ দেবে, ক্রিকেটীয় মতামতে মনোযোগ দেবে, কিন্তু অন্য খেলোয়াড়দের সম্পর্কে ব্যক্তিগত মতামত দেবে না।”

নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরা ক্রিকেটারকে নিয়ে প্রশ্ন তোলার ঘটনা হাফিজের জন্য অবশ্য এটাই প্রথম নয়। এর আগে নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরা মোহাম্মদ আমিরের কারণে ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে নিউ জিল্যান্ড সফরের ক্যাম্প ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন হাফিজ ও বর্তমান টেস্ট অধিনায়ক আজহার আলি। পিসিবির হস্তক্ষেপে পরে আবার ক্যাম্পে যোগ দিয়েছিলেন তারা। দুজনই এরপর বেশ কিছু ম্যাচে আমিরের সঙ্গে খেলেছেন।

পাকিস্তানের হয়ে ২৫ ওয়ানডে, ১৫টি টি-টোয়েন্টি ও একটি টেস্ট খেলেছেন শারজিল। নিষেধাজ্ঞার আগে তাকে বেশ সম্ভাবনাময় হিসেবে দেখা হচ্ছিল। পিএসএল দিয়েই দুই বছরের বেশি সময় পর ক্রিকেটে ফেরেন তিনি।


ট্যাগ:  পাকিস্তান  হাফিজ