ব্যাটিং ধসে চাপে উইন্ডিজ

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-07-20 00:42:06 BdST

ব্যাটিং ধসে দ্বিতীয় টেস্টে চাপে পড়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নাটকীয় মোড় নিয়েছে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট। তাদের পরিস্থিতি হতে পারতো আরও খারাপ। কোনোমতে ফলোঅন এড়াতে পেরেছে সফরকারীরা। বড় লিড নেওয়া ইংল্যান্ড রান তুলছে দ্রুত। শেষ দিনে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে হাতছানি দিচ্ছে রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের।

চতুর্থ দিনের খেলা শেষে ইংল্যান্ডের স্কোর ২ উইকেটে ৩৭ রান। বেন স্টোকস ১৬ ও জো রুট ৮ রানে ব্যাট করছেন। স্বাগতিকরা এগিয়ে রয়েছে ২১৯ রানে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ফলোঅন এড়ানোয় সিরিজে সমতা ফেরানোর কাজটা ইংল্যান্ডের জন্য হয়ে গেছে অনেক কঠিন। স্কোরবোর্ডে লাগবে লড়াইয়ের পুঁজি, সঙ্গে সফরকারীদের ১০ উইকেট নিতে রাখতে হবে যথেষ্ট সময়। দ্বিতীয় ইনিংসে তাই শুরু থেকে দ্রুত রান তোলার জন্য মরিয়া স্বাগতিকরা।

নিয়মিত দুই ওপেনারের জায়গায় ইনিংস উদ্বোধন করেন স্টোকস ও জস বাটলার। রানের খাতাই খুলতে পারেননি কিপার-ব্যাটসম্যান বাটলার। কেমার রোচের করা প্রথম ওভারেই ফিরেন বোল্ড হয়ে। দুই অঙ্ক ছোঁয়ার পরপরই বোল্ড হয়ে যান জ্যাক ক্রলি।

এর আগে রোববার ১ উইকেটে ৩২ রান নিয়ে দিন শুরু করা ওয়েস্ট ইন্ডিজ গুটিয়ে যায় ২৮৭ রানে।

বৃষ্টির জন্য আগের দিন কোনো বল গড়ায়নি মাঠে। চতুর্থ দিন সকালে স্বাগতিকদের হতাশা বাড়ান ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ও নাইটওয়াচম্যান আলজারি জোসেফ। দ্বিতীয় উইকেটে দুই জনে গড়েন ৫৪ রানের জুটি। বোলিংয়ে এসে নিজের দ্বিতীয় বলে জোসেফকে বিদায় করেন ডম বেস।

পরের দুই উইকেটেও পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটি গড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এতে বড় অবদান ওপেনার ব্র্যাথওয়েটের। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শেই হোপের সঙ্গে ৫৩ ও শামারাহ ব্রুকসের সঙ্গে গড়েন ৭৬ রানের জুটি।

দারুণ বোলিং করে যাওয়া বেন স্টোকস ভাঙেন ব্র্যাথওয়েটের প্রতিরোধ। সাদামাটা এক ডেলিভারিতে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ফিরেন এই ওপেনার। তার ১৬৫ বলে খেলা ৭৫ রানের ইনিংস গড়া ৮ চারে।

ব্রুকস ও রোস্টন চেইসের ব্যাটে এগিয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এক সময়ে দলকে তারা নিয়ে যান ৪ উইকেটে ২৪২ রানের দৃঢ় অবস্থানে।

দ্বিতীয় নতুন বলে স্টুয়ার্ট ব্রড ও ক্রিস ওকস বদলে দেন ম্যাচের চিত্র। এক সময়ে সহজেই ফলোঅন এড়ানোর পথে থাকা ক্যারিবিয়ানরা পড়ে যায় শঙ্কায়। ১১ চারে ৬৮ রান করা ব্রুকসকে এলবিডব্লিউ করে সম্ভাবনাময় জুটি ভাঙেন ব্রড।

এরপর রানের খাতাই খুলতে দেননি আগের ম্যাচে চতুর্থ ইনিংসে ৯৫ রানের দারুণ ইনিংস খেলা জার্মেইন ব্ল্যাকউড ও কিপার-ব্যাটসম্যান শেন ডাওরিচকে।

অধিনায়ক জেসন হোল্ডারকে দ্রুত থামিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ফলোঅনে ফেলার সম্ভাবনা জাগান ওকস। তবে এক প্রান্ত আগলে রাখা চেইসের ব্যাটে বেঁচে যায় সফরকারীরা। স্যাম কারানকে দুই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ফলোঅন এড়ান চেইস।

এলবিডব্লিউর সফল রিভিউ নিয়ে চেইসকে থামায় ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেওয়া এই অলরাউন্ডার ৭ চারে করেন ৫১ রান। সেই ওভারেই শ্যানন গ্যাব্রিয়েলকে বিদায় করে দলকে ১৮২ রানের লিড এনে দেন ওকস।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ শেষ ৬ উইকেট হারায় ৪৫ রানে।

৪২ রানে ৩ উইকেট নেন ওকস। ব্রড ৩ উইকেট নেন ৬৬ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৪৬৯/৯ ইনিংস ঘোষণা

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস: (আগের দিন শেষে ৩২/১) ৯৯ ওভারে ২৮৭ (ব্র্যাথওয়েট ৭৫, জোসেফ ৩২, হোপ ২৫, ব্রুকস ৬৮, চেইস ৫১, ব্ল্যাকউড ০ ডাওরিচ ০, হোল্ডার ২, রোচ ৫*, গ্যাব্রিয়েল ০; ব্রড ২৩-৭-৬৬-৩, ওকস ২১-১০-৪২-৩, কারান ২০-৪-৭০-২, বেস ২১-৩-৬৭-১, রুট ১-১-০-০, স্টোকস ১৩-৩-২৯-১)

ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস: ৮ ওভার ৩৭/২ (স্টোকস ১৬*, বাটলার ০, ক্রলি ১০, রুট ৮*; রোচ ৪-০-১৪-২, গ্যাব্রিয়েল ৪-০-২২-০)


ট্যাগ:  ইংল্যান্ড  ম্যাচ রিপোর্ট  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  টেস্ট