দারুণ জয়ে সমতা ফেরাল ইংল্যান্ড

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-07-20 23:22:27 BdST

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে সময়ও যেন ইংল্যান্ডের প্রতিপক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। সেই লড়াইয়ে জিতে টেস্ট সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে জো রুটের দল। পঞ্চম দিন সকালে তারা টি-টোয়েন্টি ঘরানার ব্যাটিংয়ের পর দারুণ বোলিংয়ে গুটিয়ে দিয়েছে ক্যারিবিয়ানদের।

ম্যানচেস্টারে দ্বিতীয় টেস্টে ১১৩ রানে জিতেছে ইংল্যান্ড। ৩১২ রান তাড়ায় দ্বিতীয় ইনিংসে জেসন হোল্ডারের দল থমকে গেছে ১৯৮ রানে। ম্যাচ বাঁচাতে শেষ দিন ৮৫ ওভার কাটিয়ে দিতে হতো সফরকারীদের। তাদের ইনিংস টিকেছে ৭০.১ ওভার।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে সোমবার ২ উইকেটে ৩৭ রানে দিন শুরু করে ইংল্যান্ড। প্রথম থেকেই বোলারদের ওপর চড়াও হন বেন স্টোকস। তাকে সঙ্গ দিয়ে যান জো রুট। পরে অলরাউন্ডারকে স্ট্রাইক দিতে গিয়ে রান আউট হয়ে ফিরেন স্বাগতিক অধিনায়ক।

টি-টোয়েন্টি ঘরানার ব্যাটিংয়ে ৩৬ বলে পঞ্চাশ স্পর্শ করেন স্টোকস। শেষ পর্যন্ত ৫৭ বলে তিন ছক্কা ও চারটি চারে অপরাজিত থাকেন ৭৮ রানে। ১১ ওভারে ৯২ রান যোগ করা ইংল্যান্ড ৩ উইকেটে ১২৯ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে।

লাঞ্চের আগেই টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দেয় স্বাগতিকরা। জন ক্যাম্পবেলকে কট বিহাইন্ড করার পর শেই হোপকে বোল্ড করেন স্টুয়ার্ট ব্রড। দুই অঙ্ক ছুঁয়েই ক্রিস ওকসের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে যান ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট।

সাউথ্যাম্পটন টেস্টে একই ধরনের শুরুর পরও ম্যাচ জিতে নিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এবার লড়াই ছিল বাঁচানোর, কিন্তু শেষ রক্ষা করতে পারেনি দলটি।

৩৭ রানে ৪ উইকেট হারানো দলকে আশা দেখান শামার ব্রুকস ও জার্মেইন ব্ল্যাকউড। দুই ব্যাটসম্যান উপহার দেন শতরানের জুটি, দুই জনই স্পর্শ করেন ফিফটি।

আক্রমণে ফিরে জমে যাওয়া জুটি ভাঙেন স্যাম কারান। এলবিডব্লিউ করে দেন দুই ছক্কা ও চারটি চারে ৬২ রান করা ব্রুকসকে। ১০০ রানের জুটি ভাঙার পর আর তেমন কোনো জুটি গড়তে পারেনি ক্যারিবিয়ানরা।

ব্ল্যাকউডকে কট বিহাইন্ড করে ইংল্যান্ডকে আরেকটু এগিয়ে নেন স্টোকস। পরে থামান আলজারি জোসেপকে। আশা হয়ে টিকে থাকা হোল্ডারকে দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড করে দেন ডম বেস।

শেষ ঘণ্টার খেলা শুরুর আম্পায়ারের ইশারার পরপরই শেষ ক্যারিবিয়ানদের ইনিংস। বেসের বলে শর্ট লেগে কেমার রোচের দুর্দান্ত ক্যাচ নেন অলি পোপ। সিরিজে ফেরে ১-১ সমতা।

প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরি, দ্বিতীয় ইনিংসের ফিফটি আর ম্যাচে ৩ উইকেট নিয়ে স্টোকস জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। শেষের দিকে তাকে নিয়ে একটু দুর্ভাবনারও জন্ম নিয়েছে। ম্যাচের শেষ দিকে একটা ওভার অসমাপ্ত রেখেই বোলিং থেকে সরে যান তিনি।

একই ভেন্যুতে আগামী শুক্রবার শুরু হবে তৃতীয় ও শেষ টেস্ট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৪৬৯/৯ ইনিংস ঘোষণা

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস: (আগের দিন শেষে ৩২/১) ৯৯ ওভারে ২৮৭ (ব্র্যাথওয়েট ৭৫, জোসেফ ৩২, হোপ ২৫, ব্রুকস ৬৮, চেইস ৫১, ব্ল্যাকউড ০ ডাওরিচ ০, হোল্ডার ২, রোচ ৫*, গ্যাব্রিয়েল ০; ব্রড ২৩-৭-৬৬-৩, ওকস ২১-১০-৪২-৩, কারান ২০-৪-৭০-২, বেস ২১-৩-৬৭-১, রুট ১-১-০-০, স্টোকস ১৩-৩-২৯-১)

ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস: (আগের দিন ৩৭/২) ১৯ ওভার ১২৯/৩ ইনিংস ঘোষণা (স্টোকস ৭৮, রুট ২২, পোপ ১২*; রোচ ৬-০-৩৭-২, গ্যাব্রিয়েল ৭-০-৪৩-০, হোল্ডার ৪-০-৩৩-০, জোসেপ ২-০-১৪-০)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২য় ইনিংস: ৭০.১ ওভারে ১৯৮ (ব্র্যাথওয়েট ১২, ক্যাম্পবেল ৪, হোপ ৭, ব্রুকস ৬২, চেইস ৬, ব্ল্যাকউড ৫৫, ডাওরিচ ০, হোল্ডার ৩৫, রোচ ৫, জোসেফ ৯, গ্যাব্রিয়েল ০*; ব্রড ১৫-৫-৪২-৩, ওকস ১৬-৩-৩৪-২, কারান ৮-৩-৩০-১, বেস ১৫.১-৩-৫৯-২, স্টোকস ১৪.৪-৪-৩০-২, রুট ১.২-১-০-০)

ফল: ইংল্যান্ড ১১৩ রানে জয়ী

সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা

ম্যাচ সেরা: বেন স্টোকস


ট্যাগ:  ইংল্যান্ড  ম্যাচ রিপোর্ট  ওয়েস্ট ইন্ডিজ  টেস্ট