অস্ট্রেলিয়ার ইংল্যান্ড সফরের সূচি চূড়ান্ত

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-08-14 16:00:02 BdST

bdnews24

অস্ট্রেলিয়ার ইংল্যান্ড সফর নিয়ে আলোচনা চলছিল বেশ কিছুদিন ধরে। অবশেষে দুই দলের সীমিত ওভারের সিরিজের সূচি চূড়ান্ত হয়েছে।

নিজেদের ওয়েবসাইটে দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডই বৃহস্পতিবার সফরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। আগামী ৪ সেপ্টেম্বর শুরু হবে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সিরিজ।

প্রাথমিক সূচি অনুযায়ী, গত জুলাইয়ে ইংল্যান্ডে যাওয়ার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সেটি সম্ভব হয়নি।

‘জীবাণুমুক্ত’ পরিবেশে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সফলভাবে সিরিজ আয়োজন শেষে বর্তমানে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলছে ইংল্যান্ড। এবার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও (সিএ) রাজি হলো কঠিন এই সময়ে ইংল্যান্ড সফরের জন্য।

টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে শুরু হবে সফরটি। সাউথ্যাম্পটনে আগামী ৪, ৬ ও ৮ সেপ্টেম্বর হবে ম্যাচ তিনটি। এরপর ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ম্যানচেস্টারে যাবে অ্যারন ফিঞ্চের দল। সেখানে ১১, ১৩ ও ১৬ সেপ্টেম্বর খেলবে তিনটি ওয়ানডে।

যুক্তরাজ্য সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী, যে কয়টি দেশের নাগরিককে ইংল্যান্ড সফরে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না, তার মধ্যে অস্ট্রেলিয়া একটি।   

আগামী ২৪ অগাস্ট অস্ট্রেলিয়া দল ইংল্যান্ডে পৌঁছাতে পারে। সেখানে নিজেদের মধ্যে একটি ওয়ানডে ও তিনটি টি-টোয়েন্টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে তারা।

সফর নিশ্চিত হওয়ায় সিরিজের জন্য ২১ জনের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করেছে সিএ। বিগ ব্যাশে নজরকাড়া তিন পারফরমার জশ ফিলিপ, রাইলি মেরেডিথ ও ড্যানিয়েল স্যামস সুযোগ পেয়েছেন। সিরিজের সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখে গত জুলাইয়ে ২৬ জনের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছিল অস্ট্রেলিয়া। সেখান থেকে ট্রাভিস হেড, উসমান খাওয়াজা, বেন ম্যাকডারমট, মাইকেল নিসার ও ডার্সি শর্ট জায়গা পাননি চূড়ান্ত স্কোয়াডে।

ফিলিপকে এই মুহূর্তে মনে করা হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে সম্ভাবনাময় তরুণদের একজন। বিগ ব্যাশে ১২৯.৮৬ স্ট্রাইক রেটে ও ৩৭.৪৬ গড়ে ৪৮৭ রান করেছেন ২৩ বছর বয়সী এই কিপার-ব্যাটসম্যান। এই পারফরম্যান্স দেখেই তাকে আইপিএলে নিয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু।

৩০ উইকেট নিয়ে স্যামস ছিলেন গত বিগ ব্যাশের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী। ২৭ বছর বয়সী এই বাঁহাতি পেসারের ব্যাটের হাতও মন্দ নয়। মেরেডিথ বিগ ব্যাশে খেলেন মাত্র ৬ ম্যাচ, উইকেট নেন ১০টি। ২৪ বছর বয়সী ফাস্ট বোলার আলোচনায় এসেছিলেন গতিময় বোলিং দিয়ে। শেফিল্ড শিল্ডেও তিনি দেখিয়েছেন সামর্থ্যের ঝলক।

অস্ট্রেলিয়া দল: শন অ্যাবট, অ্যাশটন অ্যাগার, অ্যালেক্স কেয়ারি, প্যাট কামিন্স, অ্যারন ফিঞ্চ, জশ হেইজেলউড, মার্নাস লাবুশেন, ন্যাথান লায়ন, মিচেল মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, রাইলি মেরেডিথ, জশ ফিলিপ, ড্যানিয়েল স্যামস, কেন রিচার্ডসন, স্টিভেন স্মিথ, মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টয়নিস, অ্যান্ড্রু টাই, ম্যাথু ওয়েড, ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যাডাম জ্যাম্পা।


ট্যাগ:  ইংল্যান্ড  অস্ট্রেলিয়া