টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জে চ্যাম্পিয়ন সালমার ট্রেইলব্লেজার্স

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-11-09 23:32:57 BdST

দারুণ ফিফটিতে দলকে লড়াই করার মতো সংগ্রহ এনে দিলেন অধিনায়ক স্মৃতি মান্ধানা। বোলিংয়ে নিজেদের মেলে ধরলেন সালমা খাতুন ও দিপ্তি শর্মা। সুপারনোভাসকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ভারতের উইমেন টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জের শিরোপা জিতল ট্রেইলব্লেজার্স।

শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সোমবার তৃতীয় আসরের ফাইনালে ১৬ রানে জিতেছে ট্রেইলব্লেজার্স। ১১৯ রানের লক্ষ্য তাড়ায় আগের দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন সুপারনোভাস থামে ১০২ রানে।

দারুণ বোলিংয়ে দলের শিরোপা জয়ে বড় অবদান রাখেন সালমা। চার ওভারে ১৮ রানে ৩ উইকেট নেন বাংলাদেশের এই স্পিনার। প্রথমবার এই টুর্নামেন্টে খেলতে গিয়েই শিরোপার স্বাদ পেলেন তিনি।

লক্ষ্য তাড়ায় ৩৭ রানে ৩ উইকেট হারানো সুপারনোভাসকে টানেন হারমানপ্রিত কাউর ও শশিকলা সিরিবর্ধনে। ষষ্ঠ বোলার হিসেবে ত্রয়োদশ ওভারে প্রথমবার বল হাতে নিয়ে সালমা দেন ৫ রান। নিজের পরের ওভারে তিনিই ভাঙেন ৩৭ রানের জুটি। সুইপ করার চেষ্টায় শর্ট ফাইন লেগে ক্যাচ দেন ১৮ বলে ১৯ রান করা সিরিবর্ধনে।

শেষ দুই ওভারে সুপারনোভাসের দরকার ছিল ২৮ রান। ১৯তম ওভারে দুর্দান্ত বোলিংয়ে ট্রেইলব্লেজর্সের শিরোপা অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেলেন সালমা। তার দ্বিতীয় বলে রান আউট হয়ে ফেরেন আনুজা পাতিল। পরের বলে নেন সবচেয়ে বড় উইকেট, বোল্ড করে ফেরান হারমানপ্রিতকে। ৩৬ বলে অধিনায়ক করেন ৩০।

ছবি: বিসিসিআই

ছবি: বিসিসিআই

পঞ্চম বলে সালমা উইকেট নেন আরেকটি। বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক এই ওভারে দেন মাত্র ৪ রান। শেষ ওভারে ২৪ রানের প্রয়োজনে আর পেরে ওঠেনি সুপারনোভাস। তিন ওভারে ৯ রানে ২ উইকেট নেন দিপ্তি।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে মান্ধানার দারুণ ব্যাটিংয়ে ভালো সূচনা পায় ট্রেইলব্লেজার্স। দ্বাদশ ওভারে ক্যারিবিয়ান ব্যাটার ডিয়েন্ড্রা ডটিন ৩২ বলে ২০ করে ফিরলে ভাঙে ৭১ রানের উদ্বোধনী জুটি।

দারুণ কিছু শটে ৩৮ বলে ফিফটি তুলে নেওয়া মান্ধানা স্টাম্পড হন ৬৮ রান করে। এই বাঁহাতির ৪৯ বলের ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও ৩টি ছক্কা। অধিনায়কের বিদায়ের পর ভেঙে পড়ে দলটির ব্যাটিং লাইনআপ। শেষ পাঁচ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে তারা তুলতে পারে কেবল ১৭ রান। শেষ ওভারেই আউট হন চার জন!

বাঁহাতি স্পিনার রাধা যাদব ১৬ রানে ৫ উইকেট নিয়ে লক্ষ্যটা রাখেন নাগালে। কিন্তু সালমাদের দারুণ বোলিংয়ে পেরে উঠেনি দলটি।

ছবি: বিসিসিআই

ছবি: বিসিসিআই

তিন দলের টুর্নামেন্টে দলের তিন ম্যাচেই খেলেছেন সালমা। প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষের ৮ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর বোলিং পেয়ে দুই ওভারে ৪ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন, দল পেয়েছিল বড় জয়। পরের ম্যাচে দলের হারে ২৫ রানে নিয়েছিলেন একটি উইকেট।

টুর্নামেন্টে ভেলোসিটির হয়ে খেলেছেন বাংলাদেশের আরেক ক্রিকেটার জাহানারা আলম। এই পেসার প্রথম ম্যাচে ২ উইকেট নিয়ে দলের জয়ে রেখেছিলেন অবদান। দ্বিতীয় ম্যাচে দল হারে বড় ব্যবধানে, জাহানারা পাননি বোলিং। একই দলের হয়ে গত আসরেও খেলেছিলেন তিনি, ফাইনালে করেছিলেন দারুণ বোলিং।

মেয়েদের আইপিএল হিসেবে টুর্নামেন্টটিকে গড়ে তোলার চেষ্টা করছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।


ট্যাগ:  সালমা  আইপিএল  ভারত  উইমেন্স টি-টোয়েন্টি  বাংলাদেশ