নিউ জিল্যান্ডের হুমকিতে ক্ষুব্ধ শোয়েব

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-11-27 17:24:36 BdST

bdnews24

আরেকবার কোভিড বিধি ভাঙলে পাকিস্তান দলকে দেশে পাঠিয়ে দেওয়ার নিউ জিল্যান্ড সরকারের হুঁশিয়ারিতে বেজায় চটেছেন শোয়েব আখতার। যেন মানতেই পারছেন না তিনি। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ায় পাকিস্তানের সাবেক এই পেসার নিউ জিল্যান্ডের উদ্দেশে ভদ্র আচরণ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনটি টি-টোয়েন্টি ও দুটি টেস্ট খেলতে নিউ জিল্যান্ডে আছে পাকিস্তান দল। সেখানে গিয়েই বিপাকে পড়েছে তারা। কোভিড-১৯ পরীক্ষায় তাদের ৬ জন ক্রিকেটার পজিটিভ হয়েছেন। এরপর কয়েকজন কোয়ারেন্টিনের শর্ত ভাঙায় দলটিকে চূড়ান্তভাবে সতর্ক করেছে নিউ জিল্যান্ড সরকার। বিব্রতকর এই ঘটনার পর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান হোয়াটসঅ্যাপে কড়া অডিও বার্তা পাঠান ক্রিকেটারদের জন্য।

শোয়েব চটেছেন নিউ জিল্যান্ড সরকারের আচরণে।  তার মতে, একটি দেশের জাতীয় দলকে এভাবে ফিরিয়ে দেওয়ার হুমকি দিতে পারে না কেউ। ইউটিউব চ্যানেলে সাবেক এই তারকা পেসার নিজের ক্ষোভ উগড়ে দেন। 

“আমি নিউ জিল্যান্ড বোর্ডকে বলতে চাই, এটা কোনো ক্লাব দল নয়, এটা পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দল। আমাদের আপনাদের দরকার নেই। আমাদের ক্রিকেট শেষ হয়ে যায়নি। সম্প্রচার স্বত্বের অর্থ আপনারা পাবেন। কঠিন এই সময়ে আপনাদের দেশে সফরে যাওয়ার জন্য আমাদের কাছে আপনাদের ঋণী হয়ে থাকা উচিত।”

“পাকিস্তান সম্পর্কে কথা বলছেন আপনারা, পৃথিবীর সেরা দেশ। তাই ভদ্র আচরণ করুন এবং এই ধরনের মন্তব্য করা বন্ধ করুন। সাবধান। পাকিস্তান দলের এখন তাদেরকে টি-টোয়েন্টি সিরিজে উড়িয়ে দেওয়া উচিত।”

পিসিবির সমালোচনা করতেও পিছপা হননি শোয়েব। নিউ জিল্যান্ডকে কড়া জবাব দেওয়া উচিত ছিল বলে মনে করেন তিনি।

“পিসিবির আরও কঠিন হওয়া উচিত। আমি যদি তাদের জায়গায় থাকতাম, জানিয়ে দিতাম, নিউ জিল্যান্ড ক্রিকেট খুশি না হলে আমরা তাদের সঙ্গে খেলব না। আমাদের দলকে ফিরিয়ে আনতাম এবং পাঁচ বছরের জন্য তাদের সঙ্গে খেলতাম না।”

ঘরবন্দি তিন দিন শেষে কোয়ারেন্টিনের মধ্যেই শুক্রবার অনুশীলন শুরু করার কথা ছিল পাকিস্তানের। কিন্তু বিধি ভাঙার ঘটনার পর বৃহস্পতিবার থেকে তাদের কোয়ারেন্টিনের বাধ্যবাধকতা আবার নতুনভাবে শুরু হয়েছে। তিন দিন শেষে আরেক দফা পরীক্ষা করিয়ে নেগেটিভ হলেই কেবল অনুমতি মিলবে অনুশীলনের।

দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টিনে থেকে অনুশীলনের পর কোভিড পরীক্ষায় নেগেটিভ হওয়ার সাপেক্ষে তারা স্বাভাবিক চলাফেরা করতে পারবেন। সব মিলিয়ে কোভিড পরীক্ষা হবে চার দফায়।

আগামী ১৮ ডিসেম্বর টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু হবে দুই দলের লড়াই। টেস্ট সিরিজটি শুরু হবে ২৬ ডিসেম্বর।


ট্যাগ:  নিউ জিল্যান্ড  শোয়েব আখতার  পাকিস্তান