‘মুরগির কলিজা দিয়ে ক্রিকেট হয় না’, মিসবাহর দল নিয়ে আফ্রিদি

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-01-16 09:48:31 BdST

bdnews24

শহিদ আফ্রিদির ক্রিকেট নিয়ে সমালোচনা যতোই থাকুক, একটি জায়গায় তার কোনো ঘাটতি ছিল না। সাহস কিংবা দুঃসাহস। বরং একটু বেশিই ছিল। সেই আফ্রিদি বিরক্ত পাকিস্তানের এখনকার দলকে নতজানু ক্রিকেট খেলতে দেখে। সাবেক এই অলরাউন্ডার তাই বলছেন, মিসবাহ-উল-হকের দলকে সাহসী ক্রিকেট খেলতে হবে।

নিউ জিল্যান্ড সফর থেকে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হেরে ও টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশড হয়ে ফেরার পর পাকিস্তান দলকে নিয়ে চলছে তুমুল সমালোচনা। শূলে চড়ানো হচ্ছে প্রধান কোচ মিসবাহকে।

লাহোরে শুক্রবার একটি অনুষ্ঠানে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে আফ্রিদি প্রশ্ন তুললেন এই দলের খেলার ধরন নিয়ে।

“ মিসবাহ দেশের হয়ে অনেক কিছুই অর্জন করেছেন (খেলোয়াড়ী জীবনে)। তবে তার দলের খেলা উচিত সাহস নিয়ে। মুরগির কলিজা দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা যায় না। যারা চাপে ভেঙে পড়ে না, তারাই কেবল সফল হতে পারে এখানে।”

ভারতীয় কিংবদন্তি রাহুল দ্রাবিড় যেভাবে জাতীয় দলের দায়িত্ব না নিয়ে উঠতি ক্রিকেটারদের গড়ে তোলার দায়িত্ব নিয়েছেন, পাকিস্তানের সাবেকদের প্রতিও সেই আহবান জানালেন আফ্রিদি।

“ আমার মনে হয়, পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটারদের শুধু জাতীয় দলের কোচিংয়েই আগ্রহী হওয়া উচিত নয়। মোহাম্মদ ইউসুফ, ইনজামাম-উল-হক, ইউনিস খানদের মতো তারকারা জুনিয়র পর্যায়ে দারুণ কাজ করতে পারেন, ভারতে এখন যেমন রাহুল দ্রাবিড় করছেন।”

দলের বাজে পারফরম্যান্সে পাশাপাশি পাকিস্তান ক্রিকেটে এখন আলোচিত আরেক ইস্যু মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তুলে মোহাম্মদ আমিরের অবসর। বিশেষ করে বোলিং কোচ ওয়াকার ইউনিসের বিরুদ্ধে আমিরের নানা অভিযোগ, এই দুজনের কথার লড়াই নিয়ে চলছে তোলপাড়। আফ্রিদি এখানে আঙুল তুললেন ওয়াকারের দিকেই।

“ কোচিং স্টাফের সঙ্গে আমিরের এই দ্বন্দ্ব পাকিস্তানের ঐতিহ্যেরই ধারাবাহিকতা। ওয়াকার ইউনিসের সঙ্গে আমার বিরোধের কথাও সবারই জানা। এটা খুব ভালো ঐতিহ্য নয়। বোর্ডের উচিত ক্রিকেটারদের সঙ্গে অভিভাবকসুলভ সম্পর্ক গড়ে তোলা। আমির হোক বা যে কেউ, বোর্ডের উচিত তার সঙ্গে আলোচনা করা ও বুঝিয়ে বলা যেন বাদ পড়লে তারা মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে পারে।”

“ কোচিং স্টাফের বদলে প্রধান নির্বাচক ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বললে ভালো হয়। কোনো কারণ ছাড়াই আমিরকে ইস্যু বানানো হয়েছে। বোর্ডের উচিত আমিরের সঙ্গে কথা বলে ব্যাপারটির ইতি টানা। কোচদের উচিত কোনো ক্রিকেটারের বাজে সময়ে পাশে থাকা। দেশ ও দলের স্বার্থে সবার একসঙ্গে কাজ করা উচিত।”


ট্যাগ:  আফ্রিদি  মিসবাহ  পাকিস্তান