পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালই ওয়্যাগনারের কাছে বিশ্বকাপ

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-05-30 18:16:44 BdST

bdnews24

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ার নয় বছর ছুঁইছুঁই। কিন্তু ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে এখনও অভিষেকই হয়নি নিল ওয়্যাগনারের। স্বাভাবিকভাবেই বিশ্বকাপের স্বাদ জানা নেই তার। তবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের মাঝেই বিশ্বকাপের রোমাঞ্চ অনুভব করছেন নিউ জিল্যান্ডের এই পেসার।

২০১২ সালের জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পথচলা শুরু ওয়্যাগনারের। এখন তিনি এই সংস্করণে নিউ জিল্যান্ড দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। আইসিসির টেস্ট বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে আছেন তিনে। লাল বলে সাফল্য ধরা দিলেও লম্বা ক্যারিয়ারে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে না পারার আক্ষেপ আছে বাঁহাতি এই পেসারের।

তবে এখন সে সব ভেবে লাভ নেই। তাই, ওয়্যাগনার কেবল তাকিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে। ইএসপিএনক্রিকইনফোকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আগামী ১৮ জুন শুরু হতে যাওয়া ফাইনাল নিয়ে নিজের অনুভূতি জানালেন তিনি।

“হ্যাঁ, এটা (টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল) আমার কাছে বিশ্বকাপের মতো। মনে হয়, আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় হতাশা হলো, আমি কখনও নিউ জিল্যান্ডের হয়ে সাদা-বলের ক্রিকেট খেলতে পারিনি। টি-টোয়েন্ট বা ওয়ানডে দলে জায়গা করে নিতে পারিনি।”

“ওই সুযোগ সম্ভবত এখন আর নেই এবং আমি মনেও করি না, কখনও আসবে। আমার সম্পূর্ণ মনোযোগ ও উদ্যম এখন টেস্ট ক্রিকেটে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলতে পারা আমার জন্য বিশ্বকাপে খেলার মতো।”

টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে মানুষের আগ্রহ বাড়াতে আইসিসি শুরু করেছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। শক্তিশালী সব দলের বিপক্ষে লড়াইয়ে উতরে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে নিউ জিল্যান্ড। যে পথচলায় ওয়্যাগনার ছিলেন দলটির বোলিং আক্রমণের বড় অস্ত্র।

আরেক ফাইনালিস্ট ভারত, যারা আইসিসির টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে। নিউ জিল্যান্ডের অবস্থান দুইয়ে। ফাইনালের এই লড়াইয়ে বিশ্বকাপের রোমাঞ্চ অনুভব করলেও তাতে ভেসে যেতে চান না ৩৫ বছর বয়সী ওয়্যাগনার।

“আমি জানি, এটা প্রথম ফাইনাল এবং এটাকে ঘিরে কোনো ইতিহাস নেই। তবে এটা অনেক বড় কিছুর শুরু। ভারতের বিপক্ষে এক টেস্টের ফাইনাল খেলা, যারা বিশ্ব সেরা দল যদি নাও হয়, সেরা দলগুলোর একটি তো বটেই। সেরাদের বিপক্ষে সর্বোচ্চ মঞ্চে নিজেকে পরখ করতে পারা, এটাই এই টুর্নামেন্টের লক্ষ্য।”

“এটা দারুণ রোমাঞ্চকর, তবে আমি বেশি কিছু ভাবতে চাই না। এটা আমাকে পেয়ে বসুক তা চাই না। এটাকে কেবল আরেকটি টেস্ট হিসেবে দেখে পারফর্ম করতে চাই। নিশ্চিতভাবেই বিশেষ একটি উপলক্ষ হতে যাচ্ছে।”