পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ফেরার চিন্তায় নির্ঘুম রাত কাটত জাদেজার

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-05-30 20:04:49 BdST

bdnews24
২০১৮ সালে ওভাল টেস্টে ফিফটি করার পর জাদেজা। ছবি: বিসিসিআই।

টেস্ট কিংবা সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এখন ভারত দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্যদের একজন রবীন্দ্র জাদেজা। তবে, এই অলরাউন্ডারের ক্যারিয়ারেও এসেছিল দুঃসময়; দলে সুযোগ না পেয়ে যখন তিনি হতাশায় ভুগতেন, খুঁজে বেড়াতেন জাতীয় দলে ফেরার পথ।

জাদেজার দুঃসহ সময়টি ছিল ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পর। ইংল্যান্ডে হওয়া ওই টুর্নামেন্টের ফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে হেরে গিয়েছিল ভারত। এরপর থেকেই দলে তার জায়গা হয়ে যায় নড়বড়ে। টেস্ট দলে ছিলেন আসা-যাওয়ার মাঝে। আর ওয়ানডেতে তো এক বছরের বেশি সময় সুযোগই পাননি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিন বছর আগের সেই কঠিন সময়ের কথা বলেন জাদেজা।

“আমি ঘুমাতে পারতাম না। শুয়ে থাকলেও ঘুম আসত না। আমি টেস্ট দলে ছিলাম, কিন্তু দেশের বাইরে বেশি ম্যাচ হওয়ায় খেলতে পারতাম না। ওয়ানডেও খেলছিলাম না।”

“না খেলা সত্ত্বেও ভারত দলের সঙ্গে ভ্রমণ করতে হতো, যে কারণে ঘরোয়া ক্রিকেটেও খেলতে পারছিলাম না। নিজেকে প্রমাণ করার কোনো সুযোগই পাচ্ছিলাম না। সবসময় ভাবতাম, কিভাবে দলে ফেরা যায়।”

নিজের ওপর আত্মবিশ্বাস তলানিতে নেমে গিয়েছিল জাদেজার। সে সময় তার জন্য আশীর্বাদ হয়ে আসে ইংল্যান্ড সিরিজ। ২০১৮ সালে ওভাল টেস্টে খেলেছিলেন নিজেকে প্রমাণ করার ইনিংস।

১৬০ রানে ৬ উইকেট পড়ে যাওয়া দলের হাল ধরেছিলেন তিনি, খেলেছিলেন ৮৬ রানের অপরাজিত ইনিংস। দলকে দিয়েছিলেন লড়াই করার পুঁজি। বল হাতেও রাখেন অবদান, দুই ইনিংস মিলিয়ে নিয়েছিলেন সাত উইকেট।

যদিও শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি ১১৮ রানে হেরে যায় ভারত। তবে জাদেজার প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন কোচ রবি শাস্ত্রী।

ওই বছরই এশিয়া কাপে ডাক পান তিনি ওয়ানডে দলে। হার্দিক পান্ডিয়ার চোট খুলে দেয় তার দুয়ার। তবে দুঃসময় থেকে বেরিয়ে আসতে ইংলিশদের বিপক্ষে ওই টেস্টের পারফরম্যান্সই সাহায্য করেছে বলে জানালেন জাদেজা।

“ওই টেস্ট ম্যাচ আমার সবকিছু বদলে দেয়। পারফরম্যান্স, আত্মবিশ্বাস, সবকিছু। ইংলিশ কন্ডিশনে সেরা বোলিং আক্রমণের বিপক্ষে রান করলে নিজের আত্মবিশ্বাসে দারুণ প্রভাব পড়ে।”