পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে হারের দুয়ারে ইংল্যান্ড

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-13 00:56:40 BdST

bdnews24

প্রতিপক্ষকে চারশর আগে থামিয়ে দিয়ে কিছুটা স্বস্তিতে ছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় তা মিইয়ে গেল খুব দ্রুতই। ম্যাট হেনরি, নিল ওয়্যাগনারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ের জবাব যেন জানা নেই ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের। ব্যাটে-বলে নিজেদের মেলে ধরে বড় জয়ের সামনে দাঁড়িয়ে নিউ জিল্যান্ড।

এজবাস্টনে দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিন দুই দলের পড়েছে মোট ১৬ উইকেট। বড় ক্ষতিটা হয়েছে স্বাগতিকদেরই। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১২২ রান তুলতেই ৯ উইকেট হারিয়ে ফেলেছে তারা। দিন শেষ করেছে কেবল ৩৭ রানে এগিয়ে থেকে।

তিনটি করে উইকেট নিয়ে নিউ জিল্যান্ডকে জয়ের দুয়ারে নিয়ে এসেছেন ওয়্যাগনার ও হেনরি। এজাজ প্যাটেলের শিকার দুটি।

ইংল্যান্ডের ৩০৩ রানের জবাবে প্রথম ইনিংসে ৩৮৮ রান করে নিউ জিল্যান্ড। বড় লিড না গড়তে পারার হতাশা দিনের শুরুতে সঙ্গী হলেও, দিন শেষ করেছে তারা মুখে হাসি নিয়ে।

জয়ের পথে প্রথম সাফল্য এনে দেন হেনরি। ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই ররি বার্নসকে ফিরিয়ে দেন এই পেসার। পরের দুই ব্যাটসম্যান ডম সিবলি ও জ্যাক ক্রলিও তার শিকার। সিবলি ফেরেন স্লিপে ক্যাচ দিয়ে, এলবিডব্লিউ হন ক্রলি।

দ্রুত ২৩ রান করা অলি পোপকে ফিরিয়ে দেন ওয়্যাগনার। পরে ড্যান লরেন্সকে শূন্য রানে বিদায় করেন তিনি।

এক প্রান্ত আগলে রেখে সতীর্থদের আসা-যাওয়া দেখছিলেন রুট। তাকে সঙ্গ দিতে পারেননি জেমস ব্রেসিও। ইংলিশ অধিনায়কের প্রতিরোধ ভাঙেন এজাজ।

এখন পর্যন্ত ইংল্যান্ডের কেউ যেতে পারেননি ত্রিশের ঘরে। একটি জুটিও স্পর্শ করেনি পঞ্চাশ। সর্বোচ্চ ২৯ রান মার্ক উডের ব্যাট থেকে। শেষ উইকেটে দলকে আরও কিছু রান এনে দেওয়ার জন্য লড়ছেন অলি স্টোন ও জেমস অ্যান্ডারসন।

এর আগে ৩ উইকেটে ২২৯ রান নিয়ে দিন শুরু করে নিউ জিল্যান্ড। দারুণ দক্ষতায় অ্যান্ডারসন, স্টুয়ার্ট ব্রডদের প্রথম ঘণ্টার চ্যালেঞ্জ কাটিয়ে দেন রস টেইলর ও হেনরি নিকোলস।

আগের দিন ৪৬ রানে অপরাজিত থাকা টেইলর ১০১ বলে স্পর্শ করেন ফিফটি। আস্থার সঙ্গে খেলে তিনি এগিয়ে যাচ্ছিলেন ক্যারিয়ারের ২০তম সেঞ্চুরির দিকে।

কিন্তু বিপত্তি ঘটে পানি পানের বিরতির পরের ওভারেই। নিউ জিল্যান্ড ইনিংসের তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সেঞ্চুরির আশা জাগিয়ে ফেরেন টেইলর। ১১ চারে ৮০ রান করা অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানকে কট বিহাইন্ড করেন স্টোন।

উডের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন থিতু হয়ে যাওয়া নিকোলসও। লাঞ্চের পর তৃতীয় ওভারেই ড্যারিল মিচেলকে ফিরিয়ে দেন স্টোন। পরের ওভারেই অ্যান্ডারসনের শিকার ওয়্যাগনার।

তাকে শূন্য রানে বোল্ড করে দারুণ এক কীর্তি গড়েন ইংলিশ পেসার। টেস্ট ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ১০৫ জন ব্যাটসম্যানকে রানের খাতা খোলার আগে ফেরানোর রেকর্ডে লেখান নাম।

টম ব্লান্ডেল, এজাজরা শেষ দিকে দলের রান কিছুটা বাড়ান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ১০১ ওভারে ৩০৩

নিউ জিল্যান্ড ১ম ইনিংস: (আগের দিন ২২৯/৩) ১১৯.১ ওভারে ৩৮৮ (টেইলর ৮০, নিকোলস ২১, ব্লান্ডেল ৩৪, মিচেল ৬, ওয়্যাগনার ০, হেনরি ১২, এজাজ ২০, বোল্ট ১২*; অ্যান্ডারসন ২৯-৯-৬৮-১, ব্রড ২৩.১-৮-৪৮-৪, উড ২৫-০-৮৫-২, স্টোন ২৪-৫-৯২-২, রুট ১৫-৩-৪৫-০, লরেন্স ৩-০-১৬-১)।

ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস: ৪১ ওভারে ১২২/৯ (বার্নস ০, সিবলি ৮, ক্রলি ১৭, রুট ১১, পোপ ২৩, লরেন্স ০, ব্রেসি ৮, স্টোন ১৫*, উড ২৯, ব্রড ১, অ্যান্ডারসন ০*; হেনরি ১২-২-৩৬-৩, বোল্ট ১০-২-৩৪-১, ওয়্যাগনার ১০-১-১৮-৩, এজাজ ৯-৪-২৫-২)।