পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

রুট ও বোলারদের নৈপুণ্যে জিতল ইংল্যান্ড

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-29 23:00:09 BdST

bdnews24

জৈব-সুরক্ষা বলয় ভাঙা ত্রয়ীকে হারানোর সঙ্গে যোগ হয়েছে চোট সমস্যা। সব মিলিয়ে শ্রীলঙ্কার ভারসাম্যপূর্ণ একাদশ সাজানোই কঠিন। স্রেফ তিন জন বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলতে নামা সফরকারীদের দারুণ ভোগালেন ক্রিস ওকস ও ডেভিড উইলি। তাদের চমৎকার বোলিংয়ে দুইশর নিচে লক্ষ্য পাওয়া ইংল্যান্ড জিতল জো রুটের দায়িত্বশীল ইনিংসে।

প্রথম ওয়ানডেতে ৫ উইকেটে জিতেছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগে ১০ পয়েন্ট পেয়ে বাংলাদেশকে ছাড়িয়ে উঠেছে চূড়ায়।

শ্রীলঙ্কার মাত্র দুজন ব্যাটসম্যান পেরেছেন ২০ ছাড়াতে। অধিনায়ক কুসল পেরেরা খেলেন ৭৩ রানের ইনিংস। ভানিন্দু হাসারাঙ্গা করেন ৫৪ রান। তাদের ৯৯ রানের জুটির পরও শ্রীলঙ্কা গুটিয়ে যায় ১৮৫ রানে।

মাত্র ১৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের সফলতম বোলার পেসার ওকস। উইলি ৩ উইকেট নেন ৪৪ রানে। শ্রীলঙ্কার শেষ দুই ব্যাটসম্যান হন রান আউট।

বেয়ারস্টোর ঝড়ো ইনিংসে উড়ন্ত সূচনার পর মাঝপথে দিক হারাতে বসেছিল ইংল্যান্ড। সেখান থেকে অপরাজিত ৭৯ রানের ইনিংসে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান রুট। ওয়েন মর্গ্যানের দল লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে ৯১ বল বাকি থাকতে।

চেস্টার-লি-স্ট্রিটের রিভারসাইড গ্রাউন্ডে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে শ্রীলঙ্কা। এক প্রান্তে কুসল পেরেরা রান তুলছিলেন দ্রুত। অন্য প্রান্তে মিলছিল না তেমন কোনো সহায়তা।

পাথুম নিসানকার পর দাসুন শানাকাকে ফিরিয়ে দেন ওকস। মাঝে চারিথ আসালঙ্কাকে শূন্য রানে থামান বাঁহাতি পেসার উইলি।

পাঁচে নেমে অধিনায়ক পেরেরাকে দারুণ সঙ্গ দেন ভানিন্দু হাসারাঙ্গা। ৪৬ রানে ৩ উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কা এগিয়ে যায় এই দুই জনের ব্যাটে। শুরুর ধাক্কা সামাল দিয়ে ৩ উইকেটে ১৪৫ রানের দৃঢ় ভিতের উপর দাঁড়ায় শ্রীলঙ্কা। সেখান থেকে যখন আড়াইশ ছাড়ানো সংগ্রহে চোখ, ঠিক তখনই এক ধসে দুইশ রানের নিচে গুটিয়ে যায় সফরকারীরা।

পঞ্চাশ ছোঁয়ার পর বেশি দূর যেতে পারেননি হাসারাঙ্গা। ওকসের শর্ট বলে ধরা পড়েন লিয়াম লিভিংস্টোনের হাতে। ৬৫ বলে খেলা হাসারাঙ্গার ৫৪ রানের ইনিংস গড়া ৬ চার ও ১ ছক্কায়।

এরপর আর তেমন কোনো জুটি পায়নি শ্রীলঙ্কা। দলটি শেষ ৭ উইকেট হারায় কেবল ৪০ রানে।

উইলিকে পুল করে ছক্কায় ওড়ানোর চেষ্টায় সীমানায় স্যাম বিলিংসের হাতে ধরা পড়েন পেরেরা। ৮১ বলে খেলা তার ৭৩ রানের অধিনায়কোচিত ইনিংস গড়া ৭ চারে।

ছোট রান তাড়ায় জনি বেয়ারস্টোর বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ে উড়ন্ত সূচনা পায় ইংল্যান্ড। ৪.৩ ওভারেই পঞ্চাশ ছুঁয়ে ফেলে স্বাগতিকরা।

এক ছক্কায় ৯ রান করা লিভিংস্টোনকে ফিরিয়ে ৫৪ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন চামিকা করুনারত্নে। পরের ওভারে বোল্ড করা বেয়ারস্টোকে থামান বিনুরা ফার্নান্দো। ইংলিশ ওপেনারের ২১ বলে খেলা ৪৩ রানের ঝড়ো ইনিংসে ছয় চারের পাশে ছক্কা একটি।

শুরুতে খরুচে বোলিং করা দুশমন্থ চামিরার হাত ধরে এরপর ঘুরে দাঁড়ানোর আশা জাগায় শ্রীলঙ্কা। ওয়েন মর্গ্যানকে বিদায় করার পরের ওভারে বিলিংসের উইকেট পান চামিরা। পরের বলেই পেতে পারতেন মইন আলির উইকেট, কিন্তু উইকেটের পেছনে ক্যাচ গ্লাভসে জমাতে পারেননি পেরেরা।

গোল্ডেন ডাকের হাত থেকে বেঁচে যাওয়া মইনকে পরে বোল্ড করে বিদায় করেন চামিরাই। কিন্তু এর আগে জো রুট ও মইনের ৯১ রানের জুটিতে জয়ের খুব কাছে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড।

স্যাম কারানকে নিয়ে বাকিটা সহজেই সারেন রুট। ৮৭ বলে চারটি চারে এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান করেন ৭৯ রান।

আগামী বৃহস্পতিবার সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ৪২.৩ ওভারে ১৮৫ (নিসানকা ৫, পেরেরা ৭৩, আসালঙ্কা ০, শানাকা ১, হাসারাঙ্গা ৫৪, লাকসান ২, রমেশ ১, চামিকা ১৯*, বিনুরা ২, চামিরা ৭, জয়াবিক্রমা ৪; ওকস ১০-৫-১৮-৪, উইলি ১০-১-৪৪-৩, উড ৭-০-১৯-০, কারান ৭.৩-০-৪৫-০, রশিদ ৬-০-৪৫-০, মইন ২-০-৫-১)।

ইংল্যান্ড: ওভারে ৩৪.৫ ওভারে ১৮৯/৫ (বেয়ারস্টো ৪৩, লিভিংস্টোন ৯, রুট ৭৯*, মর্গ্যান ৬, বিলিংস ৩, মইন ২৮, কারান ৯*; চামিরা ৮-০-৫০-৩, বিনুরা ৯.৫-০-৫০-১, চামিকা ৭-০-৩৯-১, হাসারাঙ্গা ৭-০-২৬-০, ধনাঞ্জয়া ২-০-১২-০, জয়াবিক্রমা ১-০-৭-০)।

ফল: ইংল্যান্ড ৫ উইকেটে জয়ী।

সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ১-০তে এগিয়ে ইংল্যান্ড।

ম্যান অব দা ম্যাচ: ক্রিস ওকস।