পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

স্নায়ু চাপে ভুগছিল বাংলাদেশের ড্রেসিং রুম: মাহমুদউল্লাহ

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-08-04 23:00:39 BdST

bdnews24

উইকেট মন্থর, বোলারদের জন্য সুবিধা প্রবল। ছোট পুঁজি নিয়েও তাই দারুণ লড়াই করছিল অস্ট্রেলিয়া। এক পর্যায়ে ৯ রানের মধ্যে তিন উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে চেপে ধরেছিল তারা। ম্যাচ শেষে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ জানালেন, সেই সময় উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছিল বাংলাদেশের ড্রেসিং রুমে।

১২২ রান তাড়ায় ৬৭ রানের মধ্যে ৫ উইকেট হারিয়ে ভীষণ চাপে ছিল স্বাগতিকরা। ৯ রানের মধ্যে সাকিব আল হাসান ও মেহেদি হাসানের সঙ্গে ফিরে গিয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। সেখান থেকে অবিচ্ছিন্ন ৫৬ রানের জুটিতে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান নুরুল হাসান সোহান ও আফিফ হোসেন।

এক-দুই নিয়ে সচল রাখেন রানের চাকা। বাজে বলে মারেন বাউন্ডারি। চাপের মধ্যে দুই ব্যাটসম্যান দেখান দৃঢ়তা। বড় শট খেলে চাপ সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা না করে খেলে গেছেন বল অনুযায়ী, তাতেই ধরা দিয়েছে জয়।

প্রথম ম্যাচে ২৩ রানে জেতা বাংলাদেশ এবার ৫ উইকেটে জিতে সিরিজে এগিয়ে গেছে ২-০ ব্যবধানে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো কোনো সিরিজ জয়ের হাতছানি স্বাগতিকদের সামনে।

আগের ম্যাচের মতো এবারও জয়কে স্বাভাবিকভাবেই নিয়েছে বাংলাদেশে। তেমন কোনো উদযাপন নেই। বাউন্ডারি মারার পর আফিফ যা একটু চিৎকার দিলেন, সুর মেলালেন সোহান। বাউন্ডারিতে করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানালেন সতীর্থরা।

ম্যাচ শেষে নিজেদের ড্রেসিং রুম থেকে খানিকটা এগিয়ে এসে হাত তালি দিয়ে অভিনন্দন জানালেন অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়-কোচরা। এই করতালি প্রাপ্য আফিফ, সোহানদের।

প্রবল চাপের মুখে ৩৭ রানের ইনিংসে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন আফিফ। সাতে নেমে তাকে দারুণ সঙ্গ দেওয়া সোহান অপরাজিত থাকেন ২২ রানে। ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মাহমুদউল্লাহ জানান, একটা সময়ে স্নায়ু চাপে ভুগছিলেন তারা।     

“দলের প্রয়োজনের সময় আফিফ ও সোহান এগিয়ে এসেছে, দেখাটা সন্তোষজনক। আজ ওরা পরিপক্কতা দেখিয়েছে।”

“শুরুতে দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারানোর পর ড্রেসিং রুম স্নায়ু চাপে ভুগতে শুরু করেছিল। তবে যেভাবে আফিফ ও সোহান ব্যাটিং করেছে, সেটা দলের জন্য স্বস্তি হয়ে এসেছে।”