পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

বিশ্বকাপ ও অ্যাশেজেও আর্চারকে পাচ্ছে না ইংল্যান্ড

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-08-05 19:40:31 BdST

bdnews24

কনুইয়ে অস্ত্রোপচারের পর পুরোপুরি সেরে ওঠার খুব কাছেই ছিলেন জফ্রা আর্চার। মাঝে কাউন্টি দল সাসেক্সের হয়ে ফিরেছিলেন মাঠেও। কিন্তু পুরনো চোট মাথাচাড়া দেওয়ায় বছরের বাকিটা সময় মাঠের বাইরেই কাটাতে হবে ইংল্যান্ডের এই পেসারকে।

ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড বৃহস্পতিবার বিবৃতিতে জানিয়েছে, ভারতের বিপক্ষে চলমান টেস্ট সিরিজ, আসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও বছরের শেষ দিকে অ্যাশেজে খেলতে পারবেন না আর্চার।

গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে কনুইয়ের চোট ভোগাচ্ছে আর্চারকে। নানা সময়ে ব্যথানাশক নিয়ে খেলে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু চলতি বছরের শুরুতে আর পারেননি, দেশে ফিরে আসেন ভারত সফর থেকে। খেলতে পারেননি আইপিএলেও।

মাঝে এর সঙ্গে যোগ হয়েছিল আঙুলের অস্বস্তি। সেখানে অস্ত্রোপচার করলে বের হয় কাঁচের টুকরা। সেরে উঠে গত মে মাসের শুরুতে আর্চার মাঠে ফেরেন সাসেক্সের দ্বিতীয় একাদশের একটি ম্যাচ দিয়ে। পরে কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপে সাসেক্সের হয়ে খেলেন একটি ম্যাচ। ওই ম্যাচেই আবার মাথাচাড়া দেয় কনুইয়ের ব্যথা।

শেষ পর্যন্ত তাকে যেতে হয় শল্যবিদের ছুরি-কাঁচির নিচে। মে মাসেই তার ডান কনুই থেকে একটি হাড়ের টুকরা সরানোর অস্ত্রোপচার করানো হয়।

এরপর গত জুলাইয়ে আবারও মাঠে ফেরেন আর্চার। সাসেক্সের হয়ে খেলেন টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টের একটি ম্যাচ, যেখানে বল করেন তিন ওভার। পরে ওয়ানডে কাপের একটি প্রস্তুতি ম্যাচে ছয় ওভার বোলিং করেন এই পেসার।

আবারও বেঁকে বসে তার কনুই। বেশ অস্বস্তি অনুভব করার কথা জানান আর্চার। পরে গত সপ্তাহে করানো স্ক্যানে স্ট্রেস ফ্র্যাকচার ধরা পড়ে। ২০২০ সালের শুরুতে যেটা প্রথম ধরা পড়েছিল। ইসিবি জোর দিয়ে জানিয়েছে, অস্ত্রোপচারের সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই।

এই চোটে পড়ার পর থেকে কেবল ৬ টেস্ট, ৩ ওয়ানডে ও ১১ টি-টোয়েন্টি খেলতে পেরেছেন আর্চার। এখন তার ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন। বয়স কেবল ২৬, সেরে ওঠে আবারও ফিরে আসার পর্যাপ্ত সময় আছে আর্চারের। তবে ক্যারিয়ার লম্বা করতে কিংবা আগামীতে এসব চোটের ধাক্কা কমাতে কেবল সীমিত ওভারের ক্রিকেটকেই তিনি বেছে নেন কিনা, সেটা দেখার বিষয়। 

এদিকে বেন স্টোকসের ক্রিকেট থেকে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য সরে দাঁড়ানোর পর আর্চারের বছরের বাকি সময়ের জন্য ছিটকে পড়া ইংল্যান্ডের জন্য বিশাল বড় ধাক্কা। ভারত সিরিজের মাঝপথে তাকে পাওয়ার আশা করছিল দলটি। কিন্তু এখন তো অস্ট্রেলিয়া থেকে অ্যাশেজ পুনরুদ্ধারের অভিযানেও এই পেসারকে পাবে না ইংলিশরা। অক্টোবরে হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তার অভাব অনুভব করবে তারা।