পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

পাকিস্তানে যাচ্ছে না ইংল্যান্ড

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-20 22:19:27 BdST

bdnews24
ফাইল ছবি

নিরাপত্তা ইস্যুতে নিউ জিল্যান্ড শেষ মুহূর্তে সিরিজ বাতিল করার পরপরই জেগেছিল শঙ্কা, ইংল্যান্ডও হয়তো খেলবে না পাকিস্তানে। সঙ্গে সঙ্গে সিদ্ধান্ত না নিয়ে একটু সময় নিয়েছে ইসিবি। তবে শেষ পর্যন্ত পুরুষ ও নারী দলকে পাকিস্তানে না পাঠানোরই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

আগামী অক্টোবরে ইংল্যান্ডের দুটি দলের পাকিস্তান যাওয়ার কথা ছিল। দুই দলই খেলার কথা দুটি টি-টোয়েন্টি, ১৩ ও ১৪ অক্টোবর। ছেলেরা এরপর ফিরে গেলেও মেয়েরা থাকত পাকিস্তানেই। স্বাগতিকদের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলার কথা ছিল তাদের। এক বিবৃতিতে সোমবার ইসিবি দুটি দলেরই সফর বাতিল করার কথা জানায়।

ইংল্যান্ড সফর থেকে সরে দাঁড়িয়েছে মূলত পাকিস্তানে গিয়ে কোনো ম্যাচ না খেলে নিউ জিল্যান্ড ফিরে আসায়। গত শুক্রবার প্রথম ওয়ানডে শুরুর দিন নিরাপত্তা শঙ্কা দেখিয়ে সিরিজ পরিত্যক্ত ঘোষণা করে নিউ জিল্যান্ড। পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ওয়ানডে ও পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার কথা ছিল তাদের।

এরপর ইংল্যান্ড সফর নিয়ে জাগে শঙ্কা। যদিও পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান রোববার জোর দিয়েই আশাবাদ প্রকাশ করেছিলেন, সূচি অনুযায়ীই সিরিজটি হওয়ার। কিন্তু পরদিনই এলো বাতিলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

এই সফর দিয়ে ১৬ বছর পর পাকিস্তান খেলতে আসার কথা ইংল্যান্ডের। মাঝের দীর্ঘ সময়ে নিরাপত্তার কারণ দেখিয়েই দেশটিতে খেলা থেকে বিরত ছিল ওয়ানডের বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। তবে গত বছর বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরুর পর ইংল্যান্ডে ক্রিকেট ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়ায় পাকিস্তান দল ইংল্যান্ড সফরে যাওয়ার পর দুই বোর্ডের মধ্যে পাকিস্তান সফর নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। এরই প্রেক্ষিতে ইংল্যান্ড চলতি বছর ছোট্ট এই সফরের জন্য সম্মত হয়।

ইসিবি বিবৃতিতে জানায়, ইচ্ছা না থাকলেও ক্রিকেটারদের মানসিক ও শারীরিক দিক ভেবে এবং চলমান নিরাপত্তা শঙ্কার ভাবনা মাথায় রেখেই নেওয়া হয়েছে সফর বাতিলের এই সিদ্ধান্ত।

“২০২২ সালের ভবিষ্যৎ সফর সূচির অংশ হিসেবে পাকিস্তানে খেলার ব্যাপারে ইসিবির দীর্ঘদিনের প্রতিশ্রুতি রয়েছে। চলতি বছরের শুরুতে আগামী অক্টোবরে পাকিস্তানে দুটি অতিরিক্ত টি-টোয়েন্টি, বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে খেলতে সম্মত হয়েছিলাম। ছেলেদের পাশাপাশি মেয়েদের একটি সফরও করতে রাজি ছিলাম।”

“ইসিবির বোর্ড চলতি সপ্তাহান্তে পাকিস্তানে ইংল্যান্ডের পুরুষ ও নারী দলের অতিরিক্ত এই ম্যাচগুলো নিয়ে আলোচনায় বসেছিল। অনিচ্ছা থাকা সত্ত্বেও বোর্ড দুই দলের অক্টোবরের সফর প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

নিউ জিল্যান্ড সিরিজের পর এখন এই সফর বাতিল হওয়ায় বেশ হতাশ পিসিবি, ভালো করেই বুঝতে পারছে ইসিবি। এর জন্য দুঃখও প্রকাশ করেছে ইংল্যান্ডের বোর্ড।

“আমরা বুঝতে পারছি, এই সিদ্ধান্ত পিসিবির জন্য বড় ধরনের হতাশা, যারা তাদের দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করছে। গত দুই গ্রীষ্মে ইসিবির প্রতি তাদের সমর্থন বন্ধুত্বের অনেক বড় একটি প্রদর্শন। পাকিস্তানের ক্রিকেটে এর (সফর বাতিল) প্রভাবের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত। ২০২২ সালে আমাদের মূল সফর পরিকল্পনা সচল থাকবে।”