পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ইয়াসিরের ঝড়ো ফিফটি, মুমিনুল-সাদমান-শান্তর সুযোগ হাতছাড়া

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-24 20:21:03 BdST

bdnews24
আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের বিপক্ষে দারুণ নৈপুণ্যে ৯২ রান করেন ইয়াসির আলি চৌধুরি। ছবি: বিসিবি

প্রথম ইনিংসের ব্যর্থতা ভুলে ঘুরে দাঁড়ানোর আভাস দিলেন সাদমান ইসলাম। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বড় ইনিংস খেলতে পারলেন না ধৈর্য হারিয়ে। তার মতো ফিফটির দুয়ার থেকে ফিরে গেলেন নাজমুল হোসেন শান্তও। থিতু হয়ে ‘এ’ দলের ব্যাটসম্যানদের ফিরে যাওয়ার মিছিলে ব্যাট হাতে ঝড় তুললেন ইয়াসির আলি চৌধুরি।

চট্টগ্রামে দ্বিতীয় চারদিনের ম্যাচের তৃতীয় দিন বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) দলকে ২৩৭ রানে গুটিয়ে দিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করছে ‘এ’ দল। দিন শেষ করেছে তারা ৪ উইকেটে ২৫৮ রান নিয়ে।

ঝড়ো ফিফটি করা ইয়াসির ৬৫ রানে খেলছেন, সাবধানী ব্যাটিংয়ে মোহাম্মদ মিঠুন অপরাজিত ৪৬ রান নিয়ে।

দিনের শুরুতেই শেষ হয়ে যায় এইচপি দলের প্রথম ইনিংস। দুই উইকেট হাতে নিয়ে আগের দিনের ২৩৭ রানের সঙ্গে তারা যোগ করতে পারেনি কোনো রান।

দারুণ বোলিং করা রকিবুল ইসলাম শেষ দুই উইকেট নিয়ে পূর্ণ করেন ইনিংসে তার পাঁচ উইকেট।

ব্যাটিংয়ে নেমে সাইফ হাসানকে দ্রুত হারায় ‘এ’ দল। মুকিদুল ইসলামের বল দেরিতে খেলে হন বোল্ড। ব্যাট-প্যাডে থাকা যথেষ্ট ফাঁক গলে বল উপড়ে দেয় ১৮ রানে থাকা এই ব্যাটসম্যানের অফ স্টাম্প।

দ্রুত উইকেট হারানো দলের হাল ধরেন শান্ত ও সাদমান। দারুণ ব্যাটিংয়ে তারা গড়েন ৭৫ রানের জুটি। সুইপ করে বিপদ ডেকে আনেন শান্ত। ৬ চার ও এক ছক্কায় তার ৪৭ রানের ইনিংস থামে তানভির ইসলামের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে।

আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে হতভম্ভ হয়ে ক্রিজে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে ছিলেন শান্ত। ইশারায় দেখাচ্ছিলেন ব্যাটে খেলার। এরপর ধীর পায়ে ছাড়েন মাঠ। ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি যেতে যেতে প্যাডে ব্যাট দিয়ে বাড়ি দিয়ে।

একশর বেশি বল খেলে ফেলা সাদমান যেন হুট করে হারিয়ে ফেলেন মনোযোগ। বাঁহাতি স্পিনার তানভিরের বল বেরিয়ে এসে খেলতে চেয়েছিলেন তিনি। তাকে এগোতে দেখে তানভির বল টেনে দেন। শেষ মুহূর্তে শট চেক করে সহজ ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ফিরেন সাদমান। তার ১২১ বলে ৪৯ রানের ইনিংসে চার তিনটি।

৩০ রান করে মমিনুলও বিলিয়ে আসেন উইকেট। রেজাউর রহমানের ফুলটস বলে ছক্কার চেষ্টায় সীমানায় ধরা পড়েন তিনি। চা-বিরতির আগে সেটাই ছিল শেষ বল!

তৃতীয় সেশনে উইকেট হারায়নি ‘এ’ দল। ২৪ ওভারে ১০৩ রান যোগ করেন ইয়াসির ও মিঠুন। এতে ইয়াসের অবদানই বেশি। ৫৩ বলে ফিফটিতে পৌঁছানো এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ৭৪ বলে তিন ছক্কা ও ছয় চারে খেলছেন ৬৫ রানে।

ইয়াসির যখন ক্রিজে আসেন তখন মিঠুনের রান ৪৭ বলে ৮। পরে তিনি রানের গতি একটু বাড়ান। তবে উইকেটে সময় কাটানোর দিকেই ছিল তার মনোযোগ। ১১৮ বলে ৬ চারে তিনি ব্যাট করছেন ৪৬ রানে।

৪৮ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার তানভির। প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়া আরেক বাঁহাতি স্পিনার হাসান মুরাদ ২২ ওভারে ৭৯ রান দিয়ে উইকেটশূন্য।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ‘এ’ ১ম ইনিংস: ২৩১

বাংলাদেশ এইচপি ১ম ইনিংস: (আগের দিন ২৩৭/৮) ৮২ ওভারে ২৩৭ (রেজাউর ৫*, মুরাদ ০, তানভির ০; আবু জায়েদ ৯-৪-১৬-১, শহিদুল ১০-৪-২৭-১, খালেদ ১৩-২-৪৬-২, নাঈম ২৭-৮-৭৬-১, রকিবুল ২২-৭-৬০-৫, মুমিনুল ১-০-৫-০)।

বাংলাদেশ ‘এ’ ২য় ইনিংস: ৭৯ ওভারে ২৫৮/৪ (সাদমান ৪৯, সাইফ ১৮, শান্ত ৪৭, মুমিনুল ৩০, মিঠুন ৪৬*, ইয়াসির ৬৫*; সুমন ১১-০-৪৭-০, মুকিদুল ১১-৪-২০-১, মুরাদ ২২-৪-৭৯-০, মাহমুদুল ৬-১-২২-০, রেজাউর ১২-০-৩৯-১, তানভির ১৭-২-৪৮-২)