পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

‘ভাই’ ব্রাভোর সঙ্গে ধোনির যে লড়াই

  • স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-25 11:20:00 BdST

bdnews24

দুজনের কেউ চেন্নাইয়ের নন। তবে চেন্নাই সুপার কিংসে দীর্ঘদিনের পথচলায় মহেন্দ্র সিং ধোনি ও ডোয়াইন ব্রাভো হয়ে গেছেন যেন চেন্নাইয়ের ঘরের ছেলে। তাদের নিজেদের মধ্যেও সম্পর্ক দারুণ। ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডারকে ‘ভাই’ বলে ডাকেন ভারতীয় কিংবদন্তি। এই সম্পর্কের ভেতর টক-ঝাল-মিস্টি, সবই আছে। দুজনের খুনসুটিও চলে প্রচুর। একটি যেমন, ব্রাভোর স্লোয়ার বল নিয়ে!

ব্রাভোকে এখন ডানহাতি স্লোয়ার বোলারই বলা যায়। নিজের স্বাভাবিক গতিতে বল করেন কমই, ৪ ওভারের বেশির ভাগ ডেলিভারি তিনি স্লোয়ারই করেন। তাতে সাফল্যও পেয়ে আসছেন বছরের পর বছর। এই ৩৮ ছুঁইছুঁই বয়সেও তিনি যথেষ্ট সফল বল হাতে।

ব্যাটসম্যানদের যদিও জানা, ব্রাভোর হাত থেকে স্লোয়ারই আসছে। তবু তার বলের শিকার অনেকেই। সম্প্রতি ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে ৬ ইনিংস বল করে তার প্রাপ্তি ৮ উইকেট। স্থগিত আইপিএল শুরুর পর প্রথম দুই ম্যাচেই তার প্রাপ্তি তিনটি করে উইকেট।

শারজাহতে শুক্রবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালোর উদ্বোধনী জুটিতে ১১১ রান তুলে ফেলার পরও শেষ পর্যন্ত কেবল ১৫৬ রানে আটকে থাকে ব্রাভোর বোলিংয়েই। বিরাট কোহলিকে ফিরিয়ে উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পর আরও দুটি উইকেট নেন ব্রাভো। ৪ ওভারে মাত্র ২৪ রান দিয়ে তার শিকার ৩ উইকেট। ম্যাচের সেরা তিনিই। আগের ম্যাচে ৮ বলে ২৩ রান করার পর ৩ উইকেট নিয়েছিলেন ২৫ রানে।

তবে এমন সাফল্যের পরও ধোনি মনে করেন, স্লোয়ার বল আরেকটু কম করা উচিত ব্রাভোর। বেঙ্গালোরের বিপক্ষে ম্যাচের পর চেন্নাই অধিনায়ক বললেন ব্রাভোর সঙ্গে তার রসায়ন ও খুনসুটি নিয়ে।

“এবার সে বেশ ফিট হয়ে এসেছে, যা দারুণ। মাঠে নিজেকে মেলে ধরছেও ভালোভাবে। আমি ওকে ‘ভাই’ বলে ডাকি। প্রতি বছরই ওর সঙ্গে আমার তর্ক হয় এটা নিয়ে যে, এত বেশি স্লোয়ার ওর করা উচিত কিনা। এই ডেলিভারি তো ব্যাটসম্যানদের বিভ্রান্ত করার জন্য। কিন্তু এখন সবাই জানে, ব্রাভো স্লোয়ারই করবে। কাজেই, ৬টি ভিন্ন ডেলিভারি করে কেন বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করা যাবে না! ইয়র্কার, লেংথ… স্লোয়ার না করেই বরং ব্যাটসম্যানকে বিভ্রান্ত করা… এটিও একটি পথ হতে পারে।”

আগের ম্যাচে ভাইয়ের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে একটি ক্যাচ হাতছাড়া হয় ধোনির। দুজনই ক্যাচ নিতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত নিতে পারেননি কেউ। ধোনি মজা করলেন সেটি নিয়েও।

“সে আমার খুব কাছাকাছি চলে এসেছিল… কিছু একটা বলছিল, আমি চমকে গিয়েছিলাম, আমার হাত সামনে গিয়ে আবার চলে আসে, ক্যাচ নিতে পারিনি…ওকে বলছিলাম যে, ‘আমাকে তো নিতে দাও!’ যাহোক, ভাইদের মধ্যে এসব হয়। আমাদের লড়াই চলতেই থাকে। সে ছেলে ভালো, খুব একটা খারাপ নয়…!”

ব্রাভোর সামর্থ্যে অবশ্য ধোনির প্রবল আস্থা। চেন্নাই নিষিদ্ধ থাকার দুটি মৌসুম ছাড়া ২০০৮ সালে আইপিএল শুরুর সময় থেকে প্রতিটিতেই চেন্নাইয়ে খেলে আসছেন ধোনি। ব্রাভো প্রথম তিন মৌসুম মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে খেলে ২০১১ সালে যোগ দেন চেন্নাইয়ে। নিষিদ্ধ ওই দুই মৌসুম ছাড়া তিনিও বাকি সব আসরে খেলেন চেন্নাইয়েই।

ব্রাভো দলের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ, সেটিও তুলে ধরলেন ধোনি।

“এই সংস্করণে সে ঝানু। বিশ্বজুড়ে খেলেছে, নানা কন্ডিশনে পারফর্ম করেছে। যখনই দলের প্রয়োজন হয়, সে দায়িত্ব নিতে পিছপা হয় না। আমাদের জন্য সবসময়ই ভালো করে আসছে।”