পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

অধিগ্রহণের জমিতে প্রাচীর দিতে গিয়ে বাধায় চট্টগ্রাম ওয়াসা

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2016-07-28 20:34:59 BdST

প্রকল্পের জন্য ৫৩ বছর আগে অধিগ্রহণ করা জমিতে সীমানা প্রাচীর দিতে গিয়ে এলাকাবাসীর বাধার মুখে পড়েছে চট্টগ্রাম ওয়াসা।

বৃহস্পতিবার নগরীর হালিশহরের চৌচালা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ওয়াসার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিল্লোল বিশ্বাস বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট ও স্যুয়ারেজ প্রকল্পের জন্য জায়গাটি ১৯৬২ সালে অধিগ্রহণ করা হয়।

“আজকে আমরা অধিগ্রহণকৃত জায়গায় সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করতে গেলে এলাকাবাসী বাধা দেয়। স্থানীয় কাউন্সিলরসহ রোববার এলাকাবাসীর সাথে বৈঠকে বসব আমরা।”

বৃহস্পতিবার সকালে চৌচালা এলাকায় জমি অধিগ্রহণ করতে যায় ওয়াসার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

এসময় স্থানীয়রা ওই এলাকার চার রাস্তার মোড়ে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে। এক পর্যায়ে তারা রাস্তায় শুয়ে পড়ে বিক্ষোভ করতে থাকে।

বিক্ষোভকারীদের মধ্যে নারী ও শিশুদেরও দেখা গেছে।

স্থানীয়দের দাবি, দীর্ঘ ৫৩ বছরেও ওই জমি অধিগ্রহণের বিষয়টি সুরাহা না হওয়ায় সেখানে অনেকেই স্থাপনা নির্মাণ করেছেন। এতদিন পর ভিটা-বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ছেড়ে যেতে হলে তারা নিঃস্ব হয়ে যাবেন।

এলাকাবাসীর বাধার মুখে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের কাজ না করেই ফিরে আসে ওয়াসার দলটি।

স্থানীয়রা জানান, ১৯৬২ সালে হালিশহরের চৌচালা এলাকায় ১৬৩ একর জায়গা অধিগ্রহণ করে ওয়াসা। প্রকল্প বাস্তবায়ন না হওয়ায় অধিগ্রহণ করা জায়গা ফেরত পেতে এলাকাবাসী ২০০১ সালে হাই কোর্টে রিট করে।

তারা বলছেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন না হওয়ায় ২০১৪ সালে হাই কোর্ট জেলা প্রশাসনকে উক্ত জমি এলাকাবাসীর কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

ওই রায়ের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আদালতে চট্টগ্রাম ওয়াসা আপিল করে। বিষয়টি এখন বিচারাধীন আছে বলে জানিয়েছেন ওয়াসা কর্মকর্তারা।

তবে জমি ফেরত দিতে হাই কোর্টের নির্দেশনা বিষয়ে দাবি করলেও এর পক্ষে এলাকাবাসী কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেনি বলে জানান ওয়াসার ম্যাজিস্ট্রেট হিল্লোল বিশ্বাস।

ওয়াসা কর্মকর্তার দাবি প্রত্যাখ্যান করে এলাকার বাসিন্দা সৈয়দ এনামুল হক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “৫৩ বছর ধরে স্যুয়ারেজ প্রকল্পের কাজে কোনো অগ্রগতি না হওয়ায় জায়গা ফেরত পেতে ২০০১ সালে হাই কোর্টে রিট করি আমরা।

“২০১৪ সালে হাই কোর্ট এলাকাবাসীর জায়গা ফেরত দিতে জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দেয়। সেই রায়ের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম ওয়াসা সর্বোচ্চ আদালতে আপিল করে।”

এনামুল হক বলেন, “সে আপিলের নিষ্পত্তি হওয়ার আগে কোনো ধরনের পুনর্বাসন ও ক্ষতিপূরণ ছাড়া ওয়াসার দখল বেআইনি। তাই আমরা নিয়মতান্ত্রিকভাবে প্রতিবাদ করেছি।”