২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

নোয়াবের বিবৃতি প্রত্যাহারের দাবিতে চট্টগ্রামে সমাবেশ

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-06-16 18:47:20 BdST

bdnews24

সাংবাদিকদের নতুন বেতন কাঠামোর সুপারিশ নিয়ে সংবাদপত্র মালিকদের অন্যতম সংগঠন নোয়াবের বিবৃতি প্রত্যাহারসহ পাঁচ দাবিতে সমাবেশ করেছে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে)।

রোববার চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব চত্বরে সমাবেশ থেকে সাংবাদিক সংগঠনগুলোর নেতারা নবম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদ সুপারিশ বাস্তবায়নের দাবিতে কর্মসূচিও ঘোষণা করেন।

দীর্ঘদিন ঝুলে থাকার পর সংবাদকর্মীদের নতুন বেতন কাঠামো তৈরিতে আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি মো. নিজামুল হককে প্রধান করে গত বছরের ২৯ জানুয়ারি নবম ওয়েজ বোর্ড গঠন করা হয়।

বোর্ডের প্রতিবেদন মন্ত্রিসভা কমিটিতে পর্যালোচনার মধ্যে সম্প্রতি নোয়াব এক বিবৃতিতে দাবি করে, ওই বোর্ডের সুপারিশ ‘অবাস্তব’।

চট্টগ্রামের সমাবেশে সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতারা বলেন, নোয়াব সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাংবাদিকদের বেতনের তুলনা দেখিয়ে ‘মিথ্যাচার’ করেছে। নোয়াবের এই বিবৃতি রোয়েদাদ সুপারিশ বাস্তবায়ন না করার ‘টালবাহানা’।

নবম ওয়েজ বোর্ড অচিরেই ঘোষণার দাবিতে তথ্যমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দেওয়ার কর্মসূচিও দেওয়া হয় সমাবেশ থেকে।

সিইউজের পাঁচ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে- সংবাদপত্র, সংবাদ সংস্থাসহ ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীদের ওয়েজ বোর্ডের আওতায় এনে অবিলম্বে নবম ওয়েজ বোর্ড রোয়েদাদ সুপারিশ কার্যকর করা।

সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নোয়াবের পক্ষ থেকে অষ্টম ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়নের যে দাবি করা হয়েছে, তা খতিয়ে দেখতে সরকারি তদন্ত কমিটি গঠন।

যেসব সংবাদপত্র অষ্টম ওয়েজ বোর্ড পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করেনি সেসব গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের বকেয়াসহ সব পাওনা পরিশোধ।

ডিএফপিতে দেওয়া পত্রিকার সার্কুলেশনসহ আয়-ব্যয় হিসাবের সঙ্গে সংবাদপত্র মালিকদের আয়কর বিভাগে প্রদত্ত হিসাব মিলিয়ে দেখতে সরকারি পর্যায়ে নিরীক্ষা কমিটি গঠন।

গণমাধ্যমে কর্মরত সকল সাংবাদিক-কর্মচারীদের জন্য সরকারি ছুটি বাস্তবায়ন, শ্রম আইন অনুযায়ী প্রভিডেন্ট ফান্ড গঠন, নিয়োগপত্র প্রদানসহ ওয়েজ বোর্ড অনুযায়ী সকল প্রান্তিক সুবিধা নিশ্চিত করা।

সিইউজের সভাপতি নাজিমুদ্দীন শ্যামলের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক সবুর শুভর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, সিইউজের সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলী আব্বাস, সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, বিএফইউজের সাবেক সহ-সভাপতি শহীদ উল আলম, মোস্তাক আহমেদ, আবু তাহের মোহাম্মদ, সিইউজের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী, বিএফইউজের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব আসিফ সিরাজ, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম ইফতেখারুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আহমেদ কুতুব, নির্বাহী সদস্য উত্তম সেনগুপ্ত, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ম. শামসুল ইসলাম, টিভি ইউনিটের প্রধান অনিন্দ্য টিটো, পূর্বদেশ ইউনিট প্রধান রতন কান্তি দেবাশীষ, প্রমুখ।

সিইউজে’র কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ১৭ জুন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দৈনিক আজাদী, ১৮ জুন বুধবার দৈনিক পূর্বকোণে ও দৈনিক কর্ণফুলীতে, ১৯ জুন বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকার পত্রিকায় কর্মরত সাংবাদিকদের প্রতিনিধি ইউনিটের, সন্ধ্যায় দৈনিক পূর্বদেশ ইউনিটের এবং ২০ জুন সন্ধ্যায় টেলিভিশন ইউনিটের সভা।

এছাড়া ২১ জুন শনিবার সন্ধ্যায় দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশ ইউনিটে বিক্ষোভ-সমাবেশ ও ২২ জুন রোববার তথ্যমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দেওয়ার কর্মসুচি ঘোষণা করা হয় সমাবেশ থেকে।