২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

জীবনে সফল হওয়ার মন্ত্র শোনালেন তথ্যমন্ত্রী

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-08-08 23:33:26 BdST

bdnews24

চট্টগ্রামে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের (এইউডব্লিউ) একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের জীবনে সফলতার জন্য সব কাজকর্মে ভারসাম্য রেখে চলার পরামর্শ দিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, “জীবন হচ্ছে বাইসাইকেল চালানোর মতো। সাইকেল চালাতে যেমন ভারসাম্য রাখতে হয়, জীবনে সফল হতে হলেও তেমনি সব কিছুতে ভারসাম্য থাকা চাই।

“চলার পথে জীবনকে যুদ্ধক্ষেত্র মনে করবে। নিজের স্বপ্ন ঠিক করে তা বাস্তবায়নে দৃঢ়ভাবে এগিয়ে যাবে। সফলতা একদিন ধরা দেবেই।”

বেলজিয়ামের একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিবেশ বিজ্ঞানে পিএইচডি ডিগ্রি নেওয়া হাছান মাহমুদ জাহাঙ্গীরনগর ও নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়িয়েছেনও।

বড় হয়ে বাবা-মাকে ভুলে না যাওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, “তোমরা যখন ছোট ছিলে বাবা-মায়েরা স্নেহ দিয়ে তোমাদের সেবা করত। এখন তোমরা বড় হয়েছ, পড়াশোনা করছ।

“একদিন আরও বড় হবে। বড় হয়ে বাবা-মাকে ভুলে যাবে না। তাদের সেবা করবে। কারণ বয়স বাড়লে বাবা-মায়েরা হয়ে যায় ছোট সন্তানের মতো।”

তথ্যমন্ত্রী বলেন, “বিশ্বের অনেক দেশের মতো বাংলাদেশেও এখন অনেক সন্তানেরা বাবা-মাকে অবহেলা করে। তাদের সেবা করে না। নির্যাতন করে। ফলে পারিবারিক বন্ধন নষ্ট হচ্ছে। সমাজে বিশৃঙ্খলা দেখা দিয়েছে।

“এসব বন্ধ করতে হবে। তবেই শান্তি ফিরে আসবে। এ বিষয়ে সরকার ইতোমধ্যে সংসদে আইন পাস করেছে। আইনের বাস্তবায়নও আমরা করব।”

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন নারীর ক্ষমতায়নে ‘অবিশ্বাস্য কাজ করছে’ বলে মন্তব্য করেন চট্টগ্রামের সন্তান হাছান মাহমুদ।

“যারা এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মতো বিশ্বমানের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনার সুযোগ পেয়েছ তোমরা সত্যিই ভাগ্যবান। আমরা আশা করব, তোমরা একদিন স্বপ্নের চেয়েও বড় হবে। নারীর ক্ষমতায়নে আরও বেশি ভূমিকা রাখবে।”

নবম ওয়েজবোর্ড নিয়ে আশাবাদ

সংবাদকর্মীদের বেতন-ভাতার নবম ওয়েজবোর্ড নিয়ে বাধা কেটে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “সংবাদপত্রে কর্মরতদের জন্য নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আদালতে সরকারের বক্তব্য উপস্থাপন করা হবে। আমরা আশা করছি, আদালতের বিবেচ্য দৃষ্টি নিশ্চয়ই সাংবাদিকদের স্বার্থে বিবেচনা হবে।

“তবে যেহেতু এটি বিচারাধীন বিষয়, তাই আমি এর চেয়ে বেশি বলতে পারি না। শুধু আশা প্রকাশ করতে পারি।”

তথ্যমন্ত্রী বলেন, “সরকারের পক্ষ থেকে নবম ওয়েজবোর্ডের প্রজ্ঞাপন জারি করার জন্য সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছিল। মন্ত্রিসভা কমিটি চূড়ান্ত করে সেটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ও কেবিনেটে পাঠানোর জন্য আমরা সমস্ত কাগজপত্র তৈরি করে ফেলেছি। সেই পর্যায়ে আদালত থেকে স্থিতাবস্থার একটি আদেশ এসেছে।

“সংবাদপত্র মালিকদের পক্ষ থেকে আদালতে গেছে। সংবাদপত্র মালিকদের যে মামলা সেটাতে সরকার এবং ওয়েজবোর্ডকে বিবাদী করা হয়েছে। যেহেতু তারা আদালতে গেছে, আদালতে আমরা এটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে আমাদের বক্তব্য অবশ্যই উপস্থাপন করব, যাতে করে এটি বাস্তবায়ন করা সম্ভব পর হয়। আদালত স্থিতাঅবস্থা ও যেসব ব্যাখ্যা চেয়েছে সেগুলো আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতে উপস্থাপন করা হবে।”

সংবাদপত্র মালিকদের অন্যতম সংগঠন নোয়াবের সভাপতি হিসেবে দৈনিক প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানের করা এক রিট আবেদনে মঙ্গলবার নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশের উপর দুই মাসের স্থিতাবস্থা জারি করেছে হাই কোর্ট।

বৃহস্পতিবার বিকেলে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন আয়োজিত ম্যাথ অ্যান্ড সায়েন্স সামার স্কুলের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য ওয়াসিকা আয়েশা খান, বুয়েটের অধ্যাপক ড. সেলিয়া শাহনাজ, এইউডব্লিউ’র রেজিস্ট্রার ড. ডেভ ডল্যান্ড এবং অধ্যাপক এ কে এম মুনিরুজ্জামান মোল্ল্যা।

তথ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মো. এমরুল করিম রাশেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে জানানো হয়।