আজকেই শেষ নয়, আরও দিন আছে: নাছির

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-02-20 21:10:16 BdST

bdnews24
গত বার মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আ জ ম নাছির উদ্দীন (ফাইল ছবি)

দলে ‘আত্মঘাতী’ কর্মকাণ্ডে যারা জড়িত তাদের রাজনীতি বোঝার  আহ্বান জানিয়েছেন সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার বিকালে নগরীর থিয়েটার ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে আয়োজিত আলোচনায় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

সভায় আসন্ন সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীও ছিলেন।

এর আগে দুপুরে দুইজন নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রয়াতদের নেতাদের কবর জিয়ারত ও মহিউদ্দিন চৌধুরী বাসা ঘুরে আসেন।

আলোচনায় অংশ নিয়ে আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, “আমরা যারা আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি, অঙ্গসংগঠনের সঙ্গে যুক্ত আছি, আওয়ামী পরিবারের সদস্য, আমাদের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন করতে হবে। আমাদের আত্মঘাতী কর্মকাণ্ড পরিহার করতে হবে। আমাদের দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দলের ভাবমূর্তি রক্ষায় কাজ করতে হবে।”

গত মঙ্গলবার চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে এক মতবিনিময় সভায় নাছির সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবির উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, তিনি ষড়যন্ত্র ও অপরাজনীতির শিকার। কেউ মেয়র পদ চাইলে তিনি এমনিতেই তা ছেড়ে দিতেন।

বৃহস্পতিবারের সভায় সেই বিষয়ে ইঙ্গিত করে নাছির বলেন, “আত্মঘাতী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত যারা আছেন, তাদের বলছি রাজনীতি বোঝার, শেখার চেষ্টা করুন। ত্যাগ স্বীকার করতে শিখুন। রাজনীতিতে জয়-পরাজয় বলতে কোনো শব্দ নেই। আজকের দিনটিই কিন্তু শেষ দিন নয়, আরও দিন আছে। ক্ষমতার পরিবর্তন কিন্তু অপরিহার্য। কেউ ক্ষমতার জন্য অপরিহার্য নন। পরিবর্তনটাই অপরিহার্য, একথা মনে রাখতে হবে।

“সবাইকে নিয়েই কিন্তু সংগঠন। কাউকে বাদ দিয়ে সংগঠন নয়। আসুন, বাস্তবতা উপলব্ধি করে চিন্তাচেতনা, ধ্যানধারণা এবং দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন করি। দলের নীতি-আদর্শকে ধারণ করে সংগঠনের ভাবমূর্তি রক্ষা করে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে যার যার অবস্থান থেকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানাই।”

তিনি আরও বলেন, “আগামী ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচন। সেই নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নৌকা প্রতীক হাতে তুলে দিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরীর হাতে। উনাকে বিজয়ী করার জন্য আমরা চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ পরিবারের সদস্যরা ঐক্যবদ্ধভাবে সর্বশক্তি নিয়োগ করে সর্বোচ্চ চেষ্টা করব, ঝাঁপিয়ে পড়ব।”

সভায় নগর কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মেয়রপ্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, “আওয়ামী লীগ একটি পরিবার। এই পরিবারের সদস্যরা যেকোনো সংকটময় মুহূর্তে ঐক্যবদ্ধ হয়ে, যেকোনো অপশক্তির মোকাবিলা অতীতেও করেছে এবং ভবিষ্যতেও করবে। এই পরিবারের অভিভাবক জননেত্রী শেখ হাসিনা।

“শত্রু কিন্তু ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে। শত্রুকে মোকাবেলার জন্য ঐক্যবদ্ধ এবং প্রস্তুত থাকতে হবে। যতই কথা বলেন, আওয়ামী লীগ যদি ক্ষমতায় না থাকে অস্তিত্ব কারও থাকবে না; কোনো নেতার অস্তিত্ব থাকবে না। রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন কিংবা আরও বড় নেতা, কারও অস্তিত্ব থাকবে না। জাতি ও রাষ্ট্রের অস্তিত্বের স্বার্থে যেকোনো কিছুর মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।”

সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী।