নাছিরের মায়ের শয্যাপাশে রেজাউল

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-02-21 15:06:55 BdST

চট্টগ্রামের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অসুস্থ মাকে দেখতে হাসপাতাল ঘুরে এলেন আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরী।

শুক্রবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে তিনি মেহেদীবাগ ম্যাক্স হাসপাতালে যান। তবে আ জ ম নাছির তখন হাসপাতালে ছিলেন না।

রাউজানের উপজেলা চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, চট্টগ্রামের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সামশুল আলম, লেখক অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক নেতা মো. ইলিয়াস উদ্দিন এসময় রেজাউল করিম চৌধুরীর সাথে ছিলেন।

ইলিয়াস পরে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “মেয়র সাহেবের মা ম্যাক্স হাসপাতালে আছেন। তাকে দেখতে সেখানে গিয়েছিলেন মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম। তিনি মেয়র আ জ ম নাছিরের মায়ের শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নিয়েছেন।”

মেয়র নাছিরের মা ফাতেমা জোহরা বেগম ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে ম্যাক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

হাসপাতালের একজন চিকিৎসক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ফুসফুসের প্রদাহ এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ফাতেমা। তার অবস্থা এখন আগের চেয়ে ভালো।

চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাছির ২০১৫ সালে সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন। এবার তিনি ফের মেয়রপ্রার্থী হতে চাইলেও আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দিয়েছে চট্টগ্রাম নগর কমিটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরীকে।

বুধবার বিকেলে নগরীর পুরাতন রেল স্টেশন চত্বরে মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত রেজাউল করিমের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ছিলেন নাছির। পরে বৃহস্পতিবার রেজাউল বলেন, মায়ের অসুস্থতার কারণেই নাছির বুধবারের সংবর্ধনায় উপস্থিত থাকতে পারেননি।

মঙ্গলবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে নাছির বলেন, এবারের মেয়র পদের মনোনয়ন নিয়ে তিনি ‘ষড়যন্ত্র ও অপরাজনীতির শিকার’।

অবশ্য বৃহস্পতিবার রেজাউলকে সঙ্গে নিয়েই তিনি নগরীর চশমা হিলে মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসায় তার স্ত্রী হাসিনা মহিউদ্দিনের সাথে দেখা করতে যান।

এরপর বৃহস্পতিবার বিকেলে ম্যাক্স হাসপাতালে নাছিরের মাকে দেখতে যান হাসিনা মহিউদ্দিন ও মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছোট ছেলে বোরহানুল এইচ চৌধুরী সালেহীন।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার বিকেলে নগর আওয়ামী লীগের আলোচনা সভাতেও রেজাউল ও নাছির উপস্থিত ছিলেন।