দোকানিদের আয়ের সুযোগ বিএনপির সহ্য হচ্ছে না: হাছান

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-05-20 21:14:12 BdST

লকডাউন কিছুটা শিথিল করায় ছোটোখাট দোকানদাররা জীবিকা নির্বাহের কিছুটা হলেও সুযোগ পাচ্ছে, তা বিএনপির ‘সহ্য হচ্ছে না’ বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

বুধবার রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসে চট্টগ্রাম-৭ নির্বাচনী এলাকার (রাঙ্গুনিয়া ও বোয়ালখালী আংশিক) ইমাম মুয়াজ্জিনদের মাঝে ইফতার ও ঈদ উপহার বিতরণের সময় ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এ কথা বলেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত উদ্যোগে তার পারিবারিক প্রতিষ্ঠান এনএনকে ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে দেড় হাজার ইমাম মুয়াজ্জিনের মাঝে এসব সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

‘লকডাউন শিথিল করে সরকার ভয়াবহ ভুল করেছে’- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান বলেন, “লকডাউন কিছুটা শিথিলের কারণে দেশের ছোটোখাট দোকানদাররা কিছু বিক্রি করে তাদের বাচ্চাকাচ্চাদের কিছু খাওয়ানোর একটা পথ পাচ্ছে এবং তাদের জীবিকা নির্বাহ করার কিছুটা হলেও সুযোগ পাচ্ছে।

“মানুষ মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়ছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে খেটে খাওয়া মানুষের জীবিকা রক্ষা, মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায়... সম্ভবত বিএনপির সহ্য হচ্ছে না। সেই কারণে মির্জা ফখরুলসহ বিএনপি নেতারা সরকারের এসব পদক্ষেপের সমালোচনা করছেন।”

এ ধরনের সমালোচনা না করে জনগণকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য সরকারের সঙ্গে একসাথে কাজ করতে বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান তথ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “যেখানে ভারতে প্রতিদিন একশর বেশি মানুষ মারা যাচ্ছে, সেখানেও বিভিন্ন রাজ্যে লকডাউন শিথিল করা হচ্ছে। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে যেখানে এখনো প্রতিদিন শতশত মানুষ মৃত্যুবরণ করছে সেখানেও মানুষের জীবিকার কথা চিন্তা করে লকডাউন শিথিল করা হচ্ছে।

“অথচ আমাদের দেশে কিছুটা শীতিল করা হয়েছে। তবে যেখানে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিচ্ছে, সেখানে আবারো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।”

হাছান মাহমুদ বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শুধু বাংলাদেশের মানুষের জীবন রক্ষা নয়, জীবিকা রক্ষার জন্যও কাজ করছেন। ... বাংলাদেশে কোটি কোটি খেটে খাওয়া মানুষ। তারা প্রাত্যহিক উপার্জনের উপর নির্ভরশীল। সেই কথা মাথায় রেখে কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রী কিছু দোকানপাট খুলে দিয়ে লকডাউন কিছুটা শিথিল করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।”

তবে বিধিনিষেধ শিথিলের সঙ্গে সঙ্গে মানুষকে যে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ জানানো হয়েছে, সে কথাও তিনি মনে করিয়ে দেন।

বাংলাদেশের মানুষকে ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থেকে রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে শুরু থেকেই নানা পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছিলেন, সে কথা উল্লেখ করে হাছান বলেন, “বাংলাদেশের মানুষকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা দেওয়ার পাশাপাশি লকডাউন পরিস্থিতিতে দেশের খেটে খাওয়া মানুষের যাতে কষ্ট না হয়, সেজন্য দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ত্রাণ কার্যক্রম তিনি শুরু করেছেন, এখনো সেটি অব্যাহত আছে।

“ইতোমধ্যে দেশের এক-তৃতীয়াংশের বেশি মানুষ সরকারি ত্রাণ সহায়তার আওতায় এসেছে। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা দেশের আলেম ওলামাদের কথা চিন্তা করে দেশের প্রায় সবগুলো কওমী মাদ্রাসায় সরকারি অনুদান দিয়েছেন।”

এনএনকে ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা খালেদ মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার মেয়র শাহজাহান সিকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম তালুকদার, জসিম উদ্দিন তালুকদার, মাস্টার আবদুর রউফ, এমরুল করিম রাশেদ, কামাল উদ্দিন চৌধুরী ও মাওলানা আইয়ুব নুরীসহ উপজেলার বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিনরা ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেন।