মোড়ক নকল, শিশু শ্রমিক দিয়ে বোতলে ভরা হচ্ছিল অনুমোদনহীন ভোজ্য তেল

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-08-09 23:14:40 BdST

মোড়ক নকল করে অনুমোদনহীন ভোজ্য তেল বাজারজাত করায় চট্টগ্রামে একটি কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুকের নেতৃত্বে রোববার নগরীর কালুরঘাটের মোহরা শিল্প এলাকায় এ অভিযান পরিচালিত হয়।

এ সময় সাকসেস অয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড নামের ওই কোম্পানির মালিক মো. গোলজার হোসেনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বিডিনিউজ টোয়ন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সরেজমিনে দেখা যায়, ওই কারখানা অস্বাস্থ্যকরভাবে ভোজ্য তেল বোতলজাত করে বাজারে বিক্রি করছিল। প্লাস্টিক বোতল ৪০০ গ্রামের হলেও মোড়কে লেখা ৫০০ গ্রাম ।

“এই প্রতিষ্ঠানের বিএসটিআইয়ের অনুমোদন নেই, উপযুক্ত ল্যাব নেই, এমনকি কেমিস্টও নেই। নষ্ট যন্ত্রপাতি দিয়ে অপরিচ্ছন্ন কক্ষে শিশু শ্রমিক দিয়ে ভেজাল তেল তৈরির প্রমাণ আমরা পেয়েছি।”

তিনি বলেন, বিএসটিআইয়ের অনুমোদন ছাড়া লোগো ব্যবহার করে কারখানাটি ‘গৃহিনী’ ও ‘নবান্ন’ নামের মোড়কে তেল বোতলজাত করে বাজারে বিক্রি করে আসছিল। নবান্ন নামের ওই মোড়ক হুবহু রূপচাঁদা সয়াবিন তেলের নকল।

“এমনকি এস আলম এডিবল অয়েল ও পতেঙ্গার ভিওটিটি অয়েল কোম্পানির মোড়ক লাগিয়েও নিজেদের তেল বাজারজাত করে আসছিল তারা, যদিও তাদের মধ্যে এ বিষয়ে কোনো চুক্তি নেই।”

বিএসটিআই এর ফিল্ড অফিসার রাজীব দাশ গুপ্ত, স্যানিটারি অফিসার ইয়াসিন আহম্মেদ এবং র‌্যাব কর্মকর্তারা অভিযানে উপস্থিত ছিলেন।