সমবায় প্রতিষ্ঠান খুলে প্রতারণা, চট্টগ্রামে নারী আটক

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-09-27 19:12:07 BdST

সমবায় প্রতিষ্ঠান খুলে প্রতারণার মধ্যমে অর্থ আদায়ের অভিযোগে চট্টগ্রামে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। 

পাহাড়তলী থানার ডিটি রোড এলাকা থেকে শনিবার পারভীন আক্তার (৫০) নামের ওই নারীকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক এএসপি তারেক আজিজ জানান।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “স্বীকৃতি নামে একটি সমবায় প্রতিষ্ঠান খুলে কর্মচারী এবং গ্রাহকদের সাথে প্রতারণা করে পারভীন বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন। কখনো সাংবাদিক, কখনো ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের পরিচালক, আবার কখনো উন্নয়ন কর্মী কিংবা আইনজীবী পরিচয় দিয়েও তিনি মানুষের সাথে প্রতারণা করকেন।”

সম্প্রতি ওই প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী এবং গ্রহকরা অভিযোগ করলে র‌্যাব এ বিষয়ে অনুসন্ধান শুরু করে জানিয়ে এএসপি তারেক বলেন, “পারভীন তার প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার সময় কর্মচারীদের কাছ থেকে ২০ থেকে ৫০ হাজার টাকা জামানত নিতেন। সাপ্তাহিক, মাসিক ভিত্তিতে তার প্রতিষ্ঠানে সঞ্চয় করতে মানুষকে প্রলুব্ধ করতেন। কিন্তু মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তাদের টাকা পরিশোধ করতেন না।”

স্বীকৃতির অফিসে অভিযান চালিয়ে ভুয়া এনআইডি কার্ডসহ বিভিন্ন ধরনের নথিপত্র, বাংলাদেশ সরকারের মনোগ্রাম সম্বলিত ভিজিটিং কার্ড, ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানার ভুয়া কাগজ জব্দ করা হয়েছে বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তা তারেক।

তিনি বলেন, “পারভীন জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন, নিজের প্রতিষ্ঠানের নামে অনুদানের জন্য তিনি বিভিন্ন সরকারি দপ্তরেও আবেদন করতেন। সম্প্রতি ভুতুড়ে কার্যক্রম দেখিয়ে তিনি একটি মন্ত্রনালয়ে ৬ কোটি টাকার বেশি প্রকল্পের ভুয়া তথ্য জমা দিয়েছিলেন।”

প্রতিষ্ঠানের কেউ চাকরি ছাড়ার চেষ্টা করলে পারভীন তাদের ‘মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দিতেন’। কখনও আবার ‘মোবাইল কোর্ট পরিচালনার হুমকি দিয়ে’ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা আদায় করতেন বলে অভিযোগ পেয়েছে র‌্যাব।

তারেক আজিজ জানান, প্রতারণার কারণে সমবায় অধিদপ্তর ২০১৪ সালে ওই সমবায় প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন বাতিল করে দিয়েছিল। তারপরও তিনি প্রতারণা চালিয়ে আসছিলেন। পারভীনের বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলাও রয়েছে।