পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

সিনোফার্মের টিকা চট্টগ্রামে, দেওয়া হবে এক কেন্দ্রে

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-18 13:46:24 BdST

চট্টগ্রামে পৌঁছেছে চীনা কোম্পানি সিনোফার্মের তৈরি ৯১ হাজার ২০০ ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা।

বন্দরনগরীতে কেবল একটি কেন্দ্রে সিনোফার্মের এই টিকা দেওয়া হবে বলে জেলার সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বী জানিয়েছেন।

শনিবার মেডিকেল শিক্ষার্থীদের ওপর প্রয়োগ করে চট্টগ্রামে সিনোফার্মের টিকা দেওয়া শুরু হবে। এই টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিতে হবে ২৮ দিনের ব্যবধানে।

ঢাকা থেকে এই টিকার চালান শুক্রবার সকালে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ইপিআই সেন্টারে পৌঁছায়। সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বী আনুষ্ঠানিকভাবে তা গ্রহণ করেন।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “চট্টগ্রাম জেলায় এ টিকা শুধু চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রেই দেওয়া হবে। সেখানে দুটি বুথ থাকবে।”

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা কোভিশিল্ড দিয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে সারা দেশে গণ টিকাদান শুরু হয়েছিল। কিন্তু টিকার সঙ্কটে গত ২৬ এপ্রিল থেকে ওই টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া বন্ধ হয়ে যায়।

রোজার ঈদ পর্যন্ত দ্বিতীয় ডোজের টিকা দেওয়া চললেও পরে কোনো ঘোষণা ছাড়াই চট্টগ্রামে টিকা দেওয়া বন্ধ হয়ে যায়।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবির বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “চীনের টিকা শনিবার থেকে দেওয়া শুরু হবে। প্রথমে শুধুমাত্র মেডিকেলের শিক্ষার্থীদের দেওয়া হবে। এছাড়া যারা টিকার জন্য নিবন্ধন করেছিলেন, তাদের প্রায়োরিটি দেওয়া হবে।”

সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, চীনের এই টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে সরকারি স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, জনশক্তি উন্নয়নে ভূমিকা রাখা বিদেশগামী ব্যক্তি (জনশক্তি কার্যালয়ে রেজিস্ট্রেশন করা), সরকারি-বেসরকারি মেডিকেলের শিক্ষার্থী, নার্সিং শিক্ষার্থী, সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থী, সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারী, করোনাভাইরাসে মৃতদের দেহ সৎকারে নিয়োজিত কর্মী এবং বাংলাদেশে কর্মরত চীনা নাগরিকরা অগ্রাধিকার পাবেন। 

সরকারি ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে নির্ধারিত কেন্দ্রে টিকা দেওয়া চলবে।

সিভিল সার্জন জানান, অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দুইমাসের ব্যবধানে দুই ডোজ দেওয়া হলেও সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হবে ২৮ দিনের ব্যবধানে।

এর আগে চট্টগ্রাম মহানগরীর ১১টি কেন্দ্র এবং ১৪ উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়া হচ্ছিল।

চট্টগ্রামে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ দিয়েছেন চার লাখ ৫৩ হাজার ৭৬০জন। তাদের মধ্যে তিন লাখ ৩৮ হাজারের মত মানুষ দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন।