পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

গাড়িতে চড়ে এসে মোটরবাইক চুরি

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-06-22 22:02:17 BdST

bdnews24

মোটর সাইকেল বিক্রির বিজ্ঞাপন দেখে তা দেখতে এসেছিলেন ক্রেতা সেজে। বিক্রেতাকে প্রলুব্ধ করতে এসেছিলেন প্রাইভেটকারে চড়ে। তারপর গাড়িটি রেখে মোটর সাইকেল চালিয়ে দেখার কথা বলে যান উধাও হয়ে।

মঙ্গলবার নগরীর অক্সিজেন আবাসিক জেলা পরিষদ আবাসিক এলাকার একটি ভবন থেকে চুরি করা মোটর সাইকেলসহ এক যুবককে গ্রেপ্তারের পর পুলিশ জানিয়েছে চুরির এ অভিনব পন্থার কথা।

গ্রেপ্তার যুবকের নাম মোস্তাফিজুর রহমান (২৪)। সাতকানিয়া উপজেলার আমিলাইশে তার বাড়ি, থাকেন নগরীর অক্সিজেন জেলা পরিষদ আবাসিক এলাকায়।

বিদেশি জাহাজে প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত এক ব্যক্তি ছুটিতে বাসায় এসে টিবিএস অ্যাপাচি আরটিআর ব্রান্ডের একটি মোটর সাইকেল কেনেন।

বন্দরটিলা নেভী হাসপাতাল গেইট এলাকার বাসিন্দা এ ব্যক্তি ছুটি শেষে জাহাজে যাওয়ার আগে গত ২১ জুন অনলাইনে তার মোটর সাইকেল বিক্রির বিজ্ঞাপন দেন। তা দেখে ২৩ জুন মোস্তাফিজুর তাকে ফোন করে মোটর সাইকেল কেনার কথা বলেন।

ইপিজেড থানার ওসি উৎপল বড়ুয়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, মোস্তাফিজুর একটি প্রাইভেটকার নিয়ে মোটর সাইকেলটি দেখতে যান।

“প্রাইভেটকারটি বাসার পার্কিংয়ে রেখে মোটর সাইকেলটি চালিয়ে দেখার কথা বললে মালিক প্রাইভেটকার রাখা আছে দেখে সেটি চালিয়ে দেখতে দেন। অনেকক্ষণ ধরে ফিরে না আসায় মোটর সাইকেল মালিক মোস্তাফিজকে ফোন করলেও সেটি তিনি রিসিভ করেননি। এক পর্যায়ে ফোন রিসিভ করে আসছি বলে ফোনটি বন্ধ করে রাখেন। তখন প্রাইভেটকারের চালককে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, অক্সিজেন এলাকা থেকে ভাড়া করে গাড়িটি আনা হয়েছে। এমনকি তার ভাড়াও পরিশোধ করা হয়নি।”

২৩ জুন মোটর সাইকেলটি চুরি হলেও মালিক মামলা না করে ব্যক্তিগতভাবে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিতে থাকেন। না পেয়ে গত ১ জুন ইপিজেড থানায় মামলা করেন।

ওসি বলেন, মামলার পর মোটর সাইকেল মালিকের বাসার এবং আশেপাশের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে পুলিশ তদন্ত শুরু করে। এক পর্যায়ে অক্সিজেন জেলা পরিষদ আবাসিক এলাকায় মোস্তাফিজুরের অবস্থান শনাক্ত করা হয়।

ভোরে অভিযান চালিয়ে চুরি করা মোটর সাইকেলসহ মোস্তাফিজকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং যে মোবাইলটি দিয়ে মোটর সাইকেল মালিককে ফোন করা হয়েছে সেটিও উদ্ধার করা হয় বলে জানান ওসি উৎপল।

এধরনের ঘটনা মোস্তাফিজুর আর ঘটিয়েছে কিনা তা জানতে তিন দিনের রিমান্ড আবেদন করেছে পুলিশ। আদালত পরবর্তীতে শুনানির দিন রেখে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।