পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

বন্দর নগরীতে কোরবানির জন্য ৩০৪ স্থান নির্ধারণ

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-20 21:18:54 BdST

bdnews24
হাট থেকে কোরবানির পশু নিয়ে যাচ্ছেন চট্টগ্রাম নগরীর এক বাসিন্দা; ঈদের দিন বুধবার তা জবাই করা হবে।

বন্দর নগরীতে পশু কোরবানির জন্য ৩০৪টি স্থান নির্ধারণ করে দিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (সিসিসি)। পাশাপাশি যত্রতত্র পশুর চামড়া না ফেলার নির্দেশনাও দিয়েছে।

বুধবার ঈদের দিন কোরবানির পশুর বর্জ্য ১০ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণের লক্ষ্যও ঠিক করেছে নগর কর্তৃপক্ষ।

সিসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা কালাম চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে কয়েকটি করে মোট ৩০৪টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে পশু কোরবানি দেওয়ার জন্য। নগরবাসীর কাছে অনুরোধ করা হচ্ছে সেসব স্থানে কোরবানি দিতে।

সিটি করপোরেশনের দামপাড়া নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম তদারক করা হবে বলেও জানান তিনি।

কালাম জানান, সকালে কোরবানি শুরুর পর থেকে ১০ ঘণ্টার মধ্যে বর্জ্য অপসারণের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

“এরপরও কোনো পাড়া মহল্লায় বর্জ্য থেকে গেলে তা আমাদের নিয়ন্ত্রণ কক্ষে জানানো হলে মোবাইল টিম গিয়ে অপসারণ করবে।”

এদিকে কাঁচা চামড়ার সংরক্ষণ, ক্রয় ও বিক্রয়, পরিবহণসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা সার্বক্ষণিক তদারকির লক্ষে সোমবার সভা করেছে সিসিসি।

গত দুই বছর চামড়া দাম পড়ে যাওয়ায় তা সংগ্রহের পর নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ফেলে চলে যায় মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা।

সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, কোনো মৌসুমী ব্যবসায়ী যদি চামড়া সংরক্ষণের ব্যবস্থা না করে যত্রতত্র ফেলে দেয়, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এজন্য চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেটরা পুলিশ ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে নিয়ে মাঠে তৎপর থাকবেন।

এদিকে কোরবানির বর্জ্য অপসারণে সিসিসির সুনাম অক্ষুণ্ণ রাখার নির্দেশনা দিয়েছেন মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী।

এ লক্ষ্যে শনিবার এক সভায় তিনি বলেন, “কোরবানির পশু জবাইয়ের পর ৮ থেকে ১০ ঘণ্টার মধ্যে বর্জ্য অপসারণের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করতে হবে। এতে পর্যাপ্ত জনবল, ওয়াকিটকি, গাড়ি, কন্টেইনার মুভার ও টমটম গাড়িসহ যা যা প্রয়োজন সবধরনের প্রস্তুতি ইতোমধ্যে করা হয়েছে। এ বিষয়ে কোনো অজুহাত আমি শুনব না।”

মেয়র জানান, নগরীর কোন মহল্লায় কত পশু জবাই হচ্ছে, তার সঠিক তথ্য সংগ্রহ করে সে অনুপাতে পরিচ্ছন্নকর্মীদের ভাগ করা হবে।

দ্রুত বর্জ্য অপসারণের লক্ষ্যে ঈদের দিন সিসিসি’র দামপাড়া অফিসে একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা থাকবে। যার নম্বর ৬৩০৭৩৯ ও ৬৩৩৬৪৯।

নগরীর কোথাও ময়লা-আবর্জনা পড়ে থাকতে দেখলে তা জানানোর আহ্বান জানিয়েছেন মেয়র।