পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ট্রাক-কভার্ড ভ্যান ধর্মঘটে বন্দরে পণ্য খালাসে অচলাবস্থা

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-09-21 17:17:38 BdST

জাহাজ থেকে পণ্য ওঠা-নামা চললেও ট্রাক-কভার্ড ভ্যান ধর্মঘটের কারণে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে সেই পণ্য বের হচ্ছে না।

১৫ দফা দাবিতে চট্টগ্রামসহ সারাদেশে ট্রাক-কভার্ড ভ্যান ও প্রাইম মুভার শ্রমিক-চালকরা মঙ্গলবার ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘট শুরু করলে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে পণ্য পরিবহনে এমন অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

বন্দরে চালক-শ্রমিকদের হয়রানি বন্ধ, ট্রাক-কভার্ড ভ্যান-প্রাইম মুভারের (ট্রেইলর) আয়কর বৃদ্ধি স্থগিতসহ বিভিন্ন দাবিতে ট্রাক-কভার্ড ভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ এই কর্মসূচি ডেকেছে।

ধর্মঘটের কারণে সকাল থেকে বন্দরের ভেতরে পণ্যবাহী যানবাহন ঢুকতে পারেনি। এতে বন্দরের জেটিতে অবস্থানরত জাহাজ থেকে পণ্যবাহী কন্টেইনার খালাস করা হলেও সেগুলো বন্দরেই থেকে যাচ্ছে।

চট্টগ্রাম বন্দর সচিব মো. ওমর ফারুক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “পরিবহন ধর্মঘটের কারণে ট্রেইলর প্রবেশ করতে না পারায় কিছু সমস্যা তো হচ্ছে। ট্রেইলার, কভার্ডভ্যান প্রবেশ না করায় কন্টেইনার, কন্টেইনার ভর্তি পণ্য ও কার্গো পণ্য ডেলিভারি হচ্ছে না।”

ট্রাক ও কভার্ডভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সমর্থনে মঙ্গলবার চট্টগ্রাম বন্দর ক্রসিং এলাকায় বিক্ষোভ। ছবি: সুমন বাবু

আন্দোলনকারী ঐক্য পরিষদের নেতা ও প্রাইম মুভার্স-ট্রেইলার্স শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. মাঈনুদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সকাল থেকেই ট্রাক, কভার্ডভ্যান ও প্রাইম মুভারর্স ট্রেইলরগুলো  চলাচল করছে না।  কোনো গাড়ি বন্দরের ভেতরে ঢোকেনি।”

পণ্যবাহী পরিবহন বন্দরে ঢুকতে না পারায় ভেতর থেকে কোনো পণ্য নিতে পারেননি আমদানিকারকরা।

তবে বন্দরের জেটিতে থাকা জাহাজগুলোতে পণ্য ওঠানামার কাজ চলছে বলে জানান ওমর ফারুক।

এতে বন্দরে পণ্যজট সৃষ্টি হচ্ছে কি না- প্রশ্নে তিনি বলেন, “ধর্মঘট মাত্র শুরু হওয়ায় এখনই কন্টেইনার বা পণ্যজট হওয়ার সম্ভাবনা কম। এছাড়া সিমেন্ট ক্লিংকারসহ অন্যান্য পণ্য অনেক প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব পরিবহনের মাধ্যমে সরবরাহ অব্যাহত আছে।”

কর্মসূচি শুক্রবার ভোর পর্যন্ত

সারাদেশে মঙ্গলবার সকাল ৬টায় শুরু হওয়া এই ধর্মঘট শুক্রবার ভোর পর্যন্ত চলবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ট্রাক কভার্ড ভ্যান ড্রাইভার ইউনিয়নের সভাপতি তালুকদার মনির।

পণ্যবাহী যান মালিক-শ্রমিকদের একাংশের এই নেতা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “মটর যান মালিকের ওপর আরোপিত অগ্রিম আয়কর বন্ধ করতে হবে, ড্রাইভিং লাইসেন্স বন্ধ রয়েছে তা চালু করতে হবে- এমন ১৫ দাবিতে বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ড ভ্যান পরিবহন মালিক ও শ্রমিক যৌথ সংগঠনের পক্ষ থেকে এ কর্মবিরতি চলছে।”

বরিশাল, কুমিল্লা, বগুড়া, বেনাপোল, যশোর ও চট্টগ্রামে সংবাদ সম্মেলন করে আলোচনা ও সমাবেশের পর কেন্দ্রীয়ভাবে এ কর্মসূচি দেওয়া হয় বলে জানান তিনি।

মনির বলেন, “আমরা কল্পনাও করিনি এত সাড়া পাবে। আমরা হার্ড লাইনে ছিলাম না। গতকাল তেঁজগাঁও ট্রাক টার্মিনালে শ্রমিক সমাবেশের মাধ্যমে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেছি আমরা।”

এদিকে মালিক ও শ্রমিকদের আরেক অংশের কর্মসূচি রয়েছে ২৭ সেপ্টেম্বর।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সহ-সভাপতি ও মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব তাজুল ইসলাম বলেন, “শ্রমিকের লাইসেন্স, ১০ দফা দাবিতে আমাদের ধর্মঘট ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে ৪৮ ঘণ্টার জন্য। এর আগে ২৬ সেপ্টেম্বর সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আমাদের বৈঠকের কথা রয়েছে।