পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

জ্ঞান ফেরার পর পোশাককর্মী জানালেন বাসে ধর্ষণচেষ্টার শিকার হওয়ার খবর

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2022-05-25 19:59:26 BdST

চট্টগ্রামে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় সড়কের পাশ থেকে উদ্ধার এক পোশাককর্মী পাঁচ দিন বাদে জ্ঞান ফেরার পর জানালেন, বাসে ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচতে লাফিয়ে পড়েছিলেন তিনি।

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

গত বৃহস্পতিবার রাতে নগরীর বাকলিয়া থানার রাহাত্তারপুল এলাকায় সড়ক থেকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় ওই তরুণীকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়।

ওই তরুণী কীভাবে বাস থেকে পড়ে গেলেন, তা নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছিল না। কেউ বলছিল, তাকে বাস থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়েছে। আবার কেউ বলছিল, তিনি বাস থেকে পড়ে গিয়ে আহত হন।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) নোবেল চাকমা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, স্থানীয়রা ঘটনাটি চান্দগাঁও থানা পুলিশকে জানিয়েছিল। পরে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বাকলিয়া থানা ঘটনার তদন্ত শুরু করে।  

পাঁচ দিন পর মঙ্গলবার ওই তরুণীর জ্ঞান ফেরার পর বুধবার পুলিশ তার সঙ্গে কথা বলে জানতে পারে, ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচতে তিনি বাস থেকে লাফ দিয়ে নিচে পড়ে যান।

পুলিশ কর্মকর্তা নোবেল বলেন, ১৯ বছর বয়সী ওই তরুণী কালুরঘাট বিসিক এলাকায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। তার বাসা চান্দগাঁও থানা এলাকায়। প্রতিদিন কারখানার শ্রমিকবাহী বাসে করে বাসায় আসা যাওয়া করতেন।

“ওই তরুণীর দাবি, ঘটনার দিন রাত ৯টায় বাসায় ফেরার জন্য অন্য শ্রমিকদের সাথে তিনিও বাসটিতে উঠেছিলেন। বহদ্দারহাট মোড়ে অন্য শ্রমিকরা নেমে গেলেও পেছনের আসনে থাকায় তার নামতে দেরি হয়। বাস থেকে নামার সময় চালক তাকে পেছনে টেনে নিয়ে যায়।” 

তরুণীর অভিযোগ, গাড়িতে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছিল। রাহাত্তার পুল এলাকায় তিনি বাস থেকে লাফিয়ে নিচে পড়ে যান।

বাস ও চালককে শনাক্ত করা হয়েছে এবং তাকে ধরতে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানান নোবেল চাকমা।

তিনি বলেন, “ঘটনার দিন হেলপার বাসটি চালাচ্ছিল এবং চালক দরজায় ছিল। তরুণীটিকে পেছনে নেওয়ার পর হেলপার দ্রুতগতিতে বাসটি বহদ্দারহাট থেকে টেনে বাকলিয়ার দিকে নিয়ে যায়।”