রপ্তানির ঋণে সুদের হার কমলো

  • নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2019-11-19 14:11:11 BdST

bdnews24
দেশের রপ্তানি আয়ের ওঠা-নামায় সবসময়ই তৈরি পোশাক খাতের একটা বড় ভূমিকা থাকে (ফাইল ছবি)

রপ্তানি উন্নয়ন তহবিলের (ইডিএফ) আকার বাড়ানোর পর এবার এ তহবিলের ঋণের সুদের হার কমালো কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এখন রপ্তানিকারকরা লন্ডন আন্তব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে ১ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদে ব্যাংক থেকে এ ঋণ নিতে পারবেন, যার জন্য আগে লন্ডন আন্তব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে ২ দশমিক ৫০ শতাংশ সুদ দিতে হতো।

রপ্তানি বাণিজ্য বাড়াতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে।

ব্যাংকগুলোর জন্যও ইডিএফ তহবিলের ঋণের সুদের হার কমানো হয়েছে।

এ তহবিল থেকে অর্থ নিতে আগে ব্যাংকগুলোকে লন্ডন আন্তব্যাংক হারের (লাইবর) সঙ্গে আরও ১ শতাংশ সুদ দিতে হতো। এটা কমিয়ে দশমিক ৫০ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এই সুদহার আগামী বছর ৩০ জুন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রপ্তানি উন্নয়ন তহবিলের আকার ৫০ কোটি ডলার বাড়িয়ে ৩৫০ কোটি ডলার করা হয়।

রপ্তানি খাতে সহায়তা দিতে ১৯৮৯ সালে মাত্র তিন কোটি ডলার দিয়ে ইডিএফের যাত্রা শুরু হয়। দফায় দফায় বাড়িয়ে এই তহবিলের পরিমাণ এখন ৩৫০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে।

ব্যাংকগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ইডিএফ থেকে ঋণ নিয়ে সেই অর্থ আবার রপ্তানিকারকদের দিয়ে থাকে। এ তহবিলের ঋণের হার সাধারণ ঋণের হারের চেয়ে বেশ কম বলে রপ্তানিকারক এই ফান্ড থেকে ঋণ নিতে চান।

বিজিএমইএ বা বিটিএমএর সদস্য বস্ত্র বা তৈরি পোশাকের একজন রপ্তানিকারক তহবিলটি থেকে সর্বোচ্চ আড়াই কোটি (২৫ মিলিয়ন) ডলার ঋণ নিতে পারেন।

এছাড়া চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, সিরামিক, ওষুধসহ বিভিন্ন খাতের রপ্তানিকারকরাও এ তহবিল থেকে ঋণ সুবিধা পেয়ে থাকে।