এরপরেও এত লোভী হওয়ার মানে নেই: এনবিআর চেয়ারম্যান

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-01-23 22:26:23 BdST

bdnews24

দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে এনবিআরের নতুন চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেছেন, সরকারি কর্মকর্তাদের এখন যে বেতন-ভাতা ও সুবিধা দেওয়া হয় তারপরে দুর্নীতি করাটা ‘অতি লোভের’ কারণে হয়ে থাকে।

তিনি বলেছেন, “জিরো টলারেন্স একটা ফাঁকা বুলি। এটা কখনোই বাস্তবায়ন করা যায় না। বর্তমান সরকার চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা বাড়ানোসহ অনেক সুযোগ-সুবিধা দিয়েছে। ফলে দুর্নীতি না করেও সচ্ছলভাবে জীবনযাপন করা সম্ভব। তারপরও যারা অতি লোভী হয়ে দুর্নীতির সাথে সম্পৃক্ত হবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রথম সংবাদ সম্মেলনে কর্মকর্তাদের উদ্দেশে একথা বলেন রহমাতুল মুনিম।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় এনবিআর সম্মেলন কক্ষে আন্তর্জাতিক কাস্টমস দিবস উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে নতুন চেয়ারম্যান বলেন, “স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও সততা নিশ্চিত করতে যতটা কঠোর হওয়ার দরকার, আমি ঠিক ততটাই কঠোর হব।”

দুর্নীতি না করার পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে তিনি বলেন, “এখন আমরা সরকারি কর্মকর্তারা ভালো বেতন পাই, এমনকি অবসরের পরও ভালো সুযোগ-সুবিধা পাই। বাড়ি-গাড়ি কেনার ঋণ পান। এরপরও এত লোভী হওয়ার কোনো মানে নেই।”

রাজস্ব ঘাটতি পূরণের প্রতিশ্রুতি দিয়ে রহমাতুল মুনিম বলেন, রাজস্ব ঘাটতি পূরণে গুরুত্ব দেওয়া হবে। করের আওতা বাড়াতে কাজ করা হবে। স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও সততা আনার পাশাপাশি বাস্তবায়নযোগ্য নতুন নতুন পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

“এ কথা ঠিক যে, এখনও রাজ্স্ব আদায়ে পিছিয়ে আছি, তবে শেষ পর্যন্ত লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছানো যাবে বলে আশা করছি।”

রাজস্ব আদায় বাড়াতে ‘খুব শিগগিরই’ শুল্ক, ভ্যাট ও আয়কর কর্মকর্তাদের সঙ্গে বসে নতুন পরিকল্পনা করবেন বলে জানান তিনি।

এনবিআরের তথ্য ঘেটে দেখা যায়, চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরে পাঁচ মাসে (জুলাই-নভেম্বর) ৮৩ হাজার ৭০৫ কোটি ২৬ লাখ টাকার রাজস্ব আদায় হয়েছে। এই অংক গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ৫ দশমিক ০৮ শতাংশ বেশি হলেও লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় ২৭ হাজার কোটি টাকা কম।

এই পাঁচ মাসে লক্ষ্য ধরা ছিল ১ লাখ ১০ হাজার ৫৬৮ কোটি টাকা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও ২৬ জনুয়ারি রোববার আন্তর্জাতিক কাস্টমস দিবস পালন করা হবে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনের ক্ষেত্রে কাস্টমসের ভূমিকা ও গুরুত্বকে বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরাই এবারের প্রতিপাদ্য।

দিবসটি উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

রোববার সকালে এনবিআরের সামনে থেকে শোভাযাত্রা শুরু হবে। সন্ধ্যায় বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে আলোচনা সভা হবে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

সংবাদ সম্মেলনে এনবিআরের সদস্যসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।