যাত্রাবাড়ী-ডেমরা মহাসড়ক চার লেনের কাজ পেল তমা

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-02-26 20:12:09 BdST

bdnews24

ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে ডেমরা পর্যন্ত মহাসড়ক চার লেনে সম্প্রসারণের কাজ পেয়েছে তমা কনস্ট্রাকশন।

মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানটি ৩৩২ কোটি ১২ লাখ ৬৩ হাজার টাকা ব্যয়ে এই কাজ করবে।

বুধবার সচিবালয়ে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “যাত্রাবাড়ী (মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার)- ডেমরা (সুলতানা কামাল সেতু) মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্পে পূর্তকাজ সম্পাদনের জন্য সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠান তমা কনস্ট্রাকশনকে কাজ দেওয়া অনুমোদন করা হয়েছে। এ কাজে ব্যয় হবে ৩৩২ কোটি ১২ লাখ ৬৩ হাজার টাকা।”

এছাড়া সভায় বিদ্যমান চুক্তির আওতায় সৌদি আরব থেকে সাড়ে চার লাখ টন ডিএপি সার আমদানিতে সায় দেওয়া হয়েছে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, এক হাজার ৩২৯ কোটি টাকা ব্যয়ে এ সার আমদানি করা হবে।

সভায় সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ইন্দোনেশিয়ার বিএসপি থেকে ১৫৯ কোটি টাকা ব্যয়ে জরুরি চাহিদা পূরণের জন্য কম্বি পার্সেল গ্যাস ওয়েল ১৫ হাজার ২৭২ টন এবং ১৪ হাজার ৪০১ টন ডিজেল আমদানিতে সায় দেওয়া হয়। এতে ব্যয় হবে ১৫৯ কোটি ১২ লাখ টাকা।

সভায় ই-জিপি রিলেটেড ট্রেনিং কার্যক্রম বাস্তবায়নে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে দোহাটেক নিউ মিডিয়াকে নিয়োগের চুক্তি স্বাক্ষরের প্রস্তাবে সায় দেওয়া হয়। এতে খরচ হবে ৪০ কোটি ১১ লাখ টাকা।

সভা শেষে অর্থমন্ত্রী বলেন, “সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের আওতায় ধলেশ্বরী কম্পিউটারাইজড টোল প্লাজা করা হবে। এখানে আগে যা ছিল তার থেকে সামান্য কিছু ৮ কোটি ১৯ লাখ ৯৫ হাজার টাকা বাড়ানো হয়েছে। এটি ভেরিয়েশন প্রকল্প। সব মিলিয়ে মোট ব্যয় হবে ৩৬ কোটি ১০ লাখ টাকা।“

টোল ব্যবস্থায় অটোমেশনসহ গাড়িতে প্রিপেইড মিটার লাগানো হবে বলে জানান মুস্তফা কামাল।

তিনি বলেন, “আমাদের টোল ব্যবস্থায় অটোমেশন করতে হবে, গাড়িতে প্রিপেইড মিটার লাগানো থাকবে৷ ফলে গাড়ি এক সেকেন্ডের জন্য থামবে না। আসবে আর যাবে।

“যতক্ষণ পর্যন্ত প্রিপেইড মিটার কাজ করবে এবং সেই মিটারে অর্থ থাকবে সেটা চলতে পারবে। টাকা শেষ হয়ে গেলে অটোমেটিক গাড়ি চলবে না আবার মিটারে টাকা ভরতে হবে।”