করোনাভাইরাস: নগদ লেনদেন কমানোর পরামর্শ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2020-03-22 22:17:05 BdST

bdnews24

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে ব্যাংকে গ্রাহকদের নগদ লেনদেন কম করতে বলেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

রোববার ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো এক সার্কুলারে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলেছে, পরিস্থিতির গুরুত্ব বিবেচনায় আপাতত নগদ উত্তোলনের পরিবর্তে চেক প্রদান, মানি ট্রান্সফার বা অনলাইন ব্যাংকিংসহ অন্যান্য ব্যাংকিং ইন্সট্রুমেন্ট ব্যবহারের জন্য গ্রাহককে উৎসাহিত করতে হবে।

সেইসঙ্গে প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাস নিয়ে রোববার আরও তিনটি সার্কুলার জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। একইদিনে একই বিষয়ে চারটি সার্কুলার এর আগে কখনও জারি করেনি কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধ এবং নিরপদ ক্যাশ ব্যবস্থাপনায় ব্যাংকগুলোর করণীয় শীর্ষক সার্কুলারে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলেছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, প্রাথমিকভাবে করোনাভাইরাসের মতো উচ্চ সংক্রমণশীল ভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব না হলে বাংলাদেশের ন্যায় ঘন বসতিপূর্ণ দেশে রোগটির ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

অতিমাত্রায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের জন্য নগদ অর্থের লেনদেনকে ইতোমধ্যে একাধিক স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে।

বৈশ্বিক অভিজ্ঞতা এবং বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক বাস্তবতাকে বিবেচনায় নিয়ে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে ব্যাংকগুলোর ক্যাশ ব্যবস্থাপনায় সাতটি সতর্কতামূলক কার্যক্রম গ্রহন করতে বলেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

>>  বাণিজ্যিক ব্যাংকের সব শাখার ক্যাশ কাউন্টারে কাজ করার সময় ক্যাশ কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস পড়তে হবে। এছাড়া, জনসাধারণের সঙ্গে লেনদেন করার সময় বিশেষ করে নোট গণনা বা নাড়াচাড়ার পর হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার বা সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

>> নগদ অর্থ নাড়াচাড়ার পর নিজ হাত জীবাণু মুক্ত করার আগে কোনোভাবেই হাত দিয়ে অফিসের অন্য কোনও জায়গায় স্পর্শ করা যাবে না; যেখানে অন্যদেরও স্পর্শ করতে হয়।

>> ক্যাশ বিভাগের দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তি ছাড়া ব্যাংক শাখার অন্য কোনও কর্মকর্তা ক্যাশ কাউন্টার বা ভোল্ট এলাকায় প্রবেশ করবেন না। যদি কোনও বিশেষ প্রয়োজনে প্রবেশ করতে হয়, তাহলে ক্যাশ কাউন্টারে প্রবেশ ও প্রস্থানের আগে তাকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার বা সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

>> নগদ লেনদেনের উদ্দেশ্যে ব্যাংক শাখায় আগত  জনসাধারণ ও গ্রাহকরা যাতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার বা সাবান দিয়ে হাত ধুতে পারে, সে বিষয়ে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

>> বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর শাখা পর্যায়ে প্রয়োজনীয় হ্যান্ড স্যানিটাইজার মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস সরবরাহের জন্য ব্যাংক ব্যবস্থাপনা দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

>> পরিস্থিতির গুরুত্ব বিবেচনায় আপাতত নগদ উত্তোলনের পরিবর্তে চেক প্রদান, মানি ট্রান্সফার বা অনলাইন ব্যাংকিংসহ অন্যান্য ব্যাংকিং ইন্সট্রুমেন্ট ব্যবহারের জন্য গ্রাহককে উৎসাহিত করতে হবে।

>>পূর্বের সার্কুলার মোতাবেক সব ধরনের নোট গ্রহন, ছেঁড়া-ফাটা ও ক্রুটিপূর্ণ নোট গ্রহন এবং উহার বিনিময় মূল্য প্রদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।