পছন্দের খবর জেনে নিন সঙ্গে সঙ্গে

ঈদ পরবর্তী লকডাউনেও শিল্প কারখানা খোলা রাখার দাবি

  • জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
    Published: 2021-07-15 19:50:48 BdST

bdnews24
ফাইল ছবি

কোরবানির ঈদের পর দেশে যখন আবার লকডাউনের কঠোর বিধিনিষেধ ফিরবে, তখনও শিল্প কারখানা খোলা রাখার দাবি জানিয়েছে পোশাক শিল্প মালিকরা।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সঙ্গে দেখা করে এই দাবি জানিয়ে আসেন পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠনগুলোর নেতারা।

করোনাভাইরাস মহামারী নিয়ন্ত্রণের লকডাউনে এতদিন শিল্প কারখানা চালু থাকলেও সাময়িক শিথিলতার পর ঈদের পর ২৩ জুলাই থেকে যে লকডাউন আসছে, তাতে শিল্প কারখানাও বন্ধ রাখতে বলেছে সরকার।

ঈদের পর ‘কঠোর’ বিধিনিষেধে শিল্প কারখানাও বন্ধ  

সব শিল্প কারখানা বন্ধের সিদ্ধান্ত হলে দেশের রপ্তানি আয়ের প্রধান খাত তৈরি পোশাক শিল্প সমস্যায় পড়বে বলে জানান বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “গত বছর ৪ বিলিয়ন ডলার অর্ডার ফিরে গিয়েছিল, তা আবার ফিরে পেয়েছি। তারা (বিদেশি আমদানিকারক) কিন্তু বসে থাকবে না, এ অর্ডারগুলো চলে যাবে।

“লকডাউনের ঘোষণায় শিল্পকারখানা বন্ধ থাকবে- এ কথা জানার পর বায়াররা অর্ডার স্লো করে দিয়েছে। এ জায়গা থেকে আমরা বের হয়ে আসতে চাই। শিপমেন্ট করতে না পারলে আমাদের অর্ডার ক্যানসেল হয়ে যাবে।”

প্রায় অর্ধ কোটি মানুষের পোশাক শিল্প খাতে জীবন-জীবিকা সমন্বয় করে সিদ্ধান্তটি পুনর্বেবেচনা করতে সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছে বিজিএমইএ।

কোনো আশ্বাস মিলেছে কি না- সেই প্রশ্নে ফারুক বলেন, “আমরা শিল্প কারখানা খোলা রাখার দাবি জানিয়েছি। মন্ত্রিপরিষদ সচিব আমাদের জানিয়েছেন, আগামী পরশু তারা বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করবেন। বৈঠকের পর এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে।”

বৈঠকে বিজিএমইএ ছাড়াও বিকেএমইএ, বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ গার্মেন্টস এক্সেসরিজ অ্যান্ড প্যাকেজিং ম্যানুফেকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন এবং বাংলাদেশ টেরিটাওলে অ্যান্ড লিনেন ম্যানুফেকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।